খবর Archives - Page 2 of 2070 - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

Biman432.jpg

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়তে থাকায় গত ৫ এপ্রিল বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার, যা শেষ হচ্ছে ১১ এপ্রিল। এরপর ১৪ এপ্রিল থেকে নতুন করে দেওয়া হচ্ছে সাত দিনের কঠোর লকডাউন। এসময় বন্ধ থাকবে দেশের অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট।

রোববার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানায়, গত ৫ এপ্রিল থেকে বন্ধ দেশের ভেতরে আকাশপথে যাত্রা, যা চলবে আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত। প্রশ্ন ছিল কঠোর লকডাউনের আগের দুদিন ১২ ও ১৩ এপ্রিল কী হবে। বেবিচক জানিয়েছে এ দুদিনও বন্ধ থাকবে ফ্লাইট।

বেবিচকের একাধিক সূত্র জানায়, শুধু অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট নয়, বন্ধ হতে পারে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটও। এ সংক্রান্ত সুপারিশ প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কিংবা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রজ্ঞাপন জারি করবে।

Garments8.jpg

আগামী বুধবার থেকে কঠোর লকডাউনে জরুরি সেবা ছাড়া সবকিছু বন্ধ রাখার পরিকল্পনা থাকলেও শিল্প কারখানা চালু রাখার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। রপ্তানিকারক, শিল্প উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়িক সংগঠন প্রতিনিধিদের সাথে এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে আজ রোববার বেলা তিনটায় মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম ও নবনির্বাচিত সভাপতি ফারুক হাসান, নিট পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, বস্ত্রকল মালিকদের সংগঠন বিটিএমএর সভাপতি মোহাম্মদ আলী প্রমুখ অংশ নেন।

বৈঠক শেষে নিট পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম সাংবাদিকদের জানান, ১৪ এপ্রিল থেকে সম্পূর্ণ লকডাউন হলেও শিল্প কারখানা চলবে। মন্ত্রী পরিষদ সচিব আমাদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও বলেন, লকডাউনে শিল্প কারখানা ছাড়া সব বন্ধ থাকবে। মানুষের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এ ছাড়া ব্যাংক বন্ধ থাকতে পারে। তাতে আমদানি রপ্তানিতে সমস্যা হবে। এ বিষয়েও পরিস্থিতি বুঝে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মন্ত্রী পরিষদ সচিব।

সরকার এ বিষয়ে এখনো প্রজ্ঞাপন জারি করেনি। আজ বা কাল সোমবার প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিকেএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম।

biman-.jpg

আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে সাত দিনের ‘সর্বাত্মক’ লকডাউনে সব অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

রোববার বেবিচক চেয়ারম্যান এম মফিদুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, লকডাউনের কারণে এক সপ্তাহের জন্য (১৪ থেকে ২০ এপ্রিল) সব ডমেস্টিক ও ইন্টারন্যাশনাল ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। তবে কার্গো ফ্লাইট চালু থাকবে। বিশেষ কোনো ফ্লাইট থাকলে সেটা পরিচালনা করতে কোনো বাধা নেই।

উল্লেখ্য, দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ বাড়লে গত ৩ এপ্রিল থেকে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের সব দেশের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

ইউরোপের দেশগুলো ছাড়াও আর্জেন্টিনা, বাহরাইন, ব্রাজিল, চিলি, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, পেরু, কাতার, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক ও উরুগুয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের ফ্লাইট বন্ধ।

প্রথমবারের মত দেশে এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। সোমবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন মূল্য ঘোষণা হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জলিল। দাম ঘোষণার বিষয়ে রোববার বিইআরসির ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, দেশে এলপিজির মূল্য নির্ধারণে গত জানুয়ারিতে প্রথম গণশুনানি করে জ্বালানি খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এর তিন মাসের মধ্যে মূল্য ঘোষণা করা হচ্ছে। নতুন মূল্য আইপিপির (ইমপোর্ট প্যারিটি প্রাইস) ভিত্তিতে নির্ধারণ করা হচ্ছে বলে জানান চেয়ারম্যান। এলপিজির ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো বিশ্বের বৃহত্তম তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর দরকে ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করে।

এলপিজির দাম কত হতে পারে, এমন প্রশ্নের জবাবে বিইআরসির চেয়ারম্যান বলেন, আমরা ন্যায়বিচার দেয়ার চেষ্টা করেছি। মূল্য সকলের কাছে গ্রহণীয় ও সহনীয় যেন হয় সেই চেষ্টাও করেছি। যে সকল বিষয়াদি বিবেচনায় নেয়া দরকার, আইন ও বিধিবিধান অনুযায়ী সবই নেয়া হয়েছে। মূল্যহার নির্ধারণের প্রস্তাবে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এলপিজিএল সাড়ে ১২ কেজি দাম ৬০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭০০ টাকা প্রস্তাব করে।

গণশুনানিতে বিইআরসির কারিগরি কমিটি সারাদেশে একই মূল্যে বিক্রির সুবিধায় এর সঙ্গে ‘ক্রস সাবসিডি ফান্ডের’ অর্থ যোগ করে ৯০২ টাকা করার প্রস্তাব করে। ভর্তুকি বাবদ ৩৩৩ টাকা যোগ করা না হলে দাম দাঁড়ায় ৫৬৯ টাকা। তবে শুনানিতে ক্যাবের প্রশ্নের জবাবে ভর্তুকি বাবদ ওই অর্থ যোগ করার প্রয়োজন নেই বলে জানান সরকারি কোম্পানি এলপিজিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান খান। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো এখন সম্মিলিত সিদ্ধান্তে প্রতি কেজি ১০৪ টাকা ৯৩ পয়সা হিসেবে বিক্রি করছে বলে প্রস্তাবে উল্লেখ করে। বিইআরসি এই মূল্য ৭২ টাকা ২৪ পয়সা সুপারিশ করে।

এছাড়া ১২ কেজি এলপিজি সিলিন্ডার খুচরা পর্যায়ে এক হাজার ২৫৯ টাকা করার প্রস্তাব করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো, যা কারিগরি কমিটির বিবেচনায় ৮৬৬ টাকা হতে পারে বলে মত দিয়েছে।

এছাড়া ৩৫ কেজির সিলিন্ডারের দাম ২ হাজার ৫২৫ টাকা, ৪৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৩ হাজার ২৪৬ টাকা করার প্রস্তাব করে কারিগরি কমিটি। কমিটির ভাষ্য, সৌদি আরামকো কোম্পানির সিপি প্রতি টন ৫৩৮ ডলার বিবেচনায় নিলে ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম দাঁড়ায় ৯৫৪ টাকা। বর্তমান ৩৫৬ ডলার বিবেচনায় নিলে দাম হয় ৭৫৮ টাকা।

bank5.jpg

এবার ক্ষুদ্র আমানতকারীদের সুবিধা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তাদের হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ খরচ অর্ধেক কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে যাদের হিসাবে গড়ে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জমা থাকে, এমন আমানতকারীদের থেকে বছরে একবার মাশুল আদায় করতে পারবে ব্যাংকগুলো। এতে ২ লাখ থেকে ১০ লাখ পর্যন্ত আমানতে সর্বোচ্চ মাশুল হবে ২৫০ টাকা। এ সুবিধা শুধু চলতি বছরের জন্য প্রযোজ্য হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু ফরাহ মো. নাছের।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণজনিত কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষুদ্র আমানতকারীদের আর্থিক প্রণোদনা প্রদান ও আমানত বৃদ্ধির জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে। এ জন্য ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতিবিশিষ্ট সঞ্চয়ী হিসাবের বিপরীতে বছরে দুবারের পরিবর্তে একবার হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ মাশুল আদায় করার জন্য ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা প্রদান করা যাচ্ছে।

এতে আরো বলা হয়, এর আগে ব্যাংক খাতে আমানত বৃদ্ধি এবং ক্ষুদ্র আমানতকারীদের ব্যাংকমুখী করার লক্ষ্যে গড় আমানত স্থিতির ওপর ভিত্তি করে সঞ্চয়ী হিসাবের বিপরীতে রক্ষণাবেক্ষণ মাশুল পুনর্নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। উক্ত পুনর্নির্ধারিত হার অনুযায়ী ব্যাংকগুলো বছরে দুবার একটি হিসাব হতে মাশুল আদায় করতে পারে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আগের নির্দেশনা অনুযায়ী, একটি হিসাব থেকে ৬ মাসের জন্য কোনোভাবেই ৩০০ টাকার বেশি মাশুল আদায় করা যাবে না। অর্থাৎ বছরে নেওয়া যাবে সর্বোচ্চ ৬০০ টাকা। আগে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা গড় আমানতের ক্ষেত্রে মাশুল নির্ধারিত ছিল। সঞ্চয়ী হিসাবে গড় আমানত ১০ হাজার টাকার মধ্যে থাকলে হিসাব পরিচালনার জন্য ব্যাংক কোনো মাশুল নিতে পারবে না। আর গড় আমানত ১০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকার মধ্যে থাকলে প্রতি ৬ মাসে ১০০ টাকা মাশুল নেওয়া যাবে।

sumon-273032.jpg

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার তাড়িয়াপাড়া গ্রামের মো. সুমনের মেডিকেলে ভর্তির দায়িত্ব নিয়েছেন স্থানীয় সাংসদ এবং তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। এখন আর তার মেডিকেল ভর্তি নিয়ে শঙ্কা নেই।

মো. সুমন ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। তবে অভাবের সংসারে তার মেডিকেলে পড়া হবে কিনা, তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছিল।

অভাব-অনটনের সংসারে মো. সুমন বন্ধুদের কাছ থেকে বই ধার নিয়ে ও প্রাইভেট পড়িয়ে নিজের পড়াশোনার খরচ জুগিয়েছেন। বাবা মো. মিন্টু দিনমজুর হিসেবে কাজ করে সংসার চালান।

সুমন পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে বৃত্তি পেয়েছিলেন। ২০১৮ সালে সুমন এসএসসি পরীক্ষায় সরিষাবাড়ী আরডিএম মডেল পাইলট উচ্চবিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান শাখায় জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন। পরে ধারদেনা করে ময়মনসিংহের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজে এইচএসসিতে বিজ্ঞান শাখায় ভর্তি হন। ২০২০ সালে তিনি এইচএসসিতে বিজ্ঞান শাখা থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

প্রতিমন্ত্রী এ সংবাদ শুনে শনিবার রাতে সরিষাবাড়ী পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাখায়াতুল আলমের মাধ্যমে সুমন ও তার পরিবারের হাতে মেডিকেলে ভর্তির ২০ হাজার টাকা তুলে দেন। প্রতিমন্ত্রী  এরপরও সুমনের মেডিকেলে পড়াশোনায় আর্থিক সহায়তা করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

সুমন বলেন, আমি মেডিকেলে ভর্তি নিয়ে চিন্তায় ছিলাম। এখন আমার ভর্তির চিন্তা কেটেছে। আল্লাহর দুনিয়ায় ভালো মানুষের অভাব নেই। তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান স্যার আমার মেডিকেলে ভর্তির ২০ হাজার টাকা বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছেন। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন আমার পড়াশোনায় আর্থিক সহযোগিতা করার।

প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান বলেন, আমি সুমনের মেডিকেলে ভর্তির দায়িত্ব নিয়েছি। সুমনের পরিবারের হাতে ২০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। সুমনের পড়াশোনায় আর্থিক সহায়তা করবে।

bank-taka.jpg

করোনা সংক্রমণ রোধে বাংলাদেশ ব্যাংক সীমিত আকারে ব্যাংকিং ব্যবস্থা চালু রাখার যে সিদ্ধান্ত দিয়েছিল, তা অব্যাহত থাকবে। তবে ভিড় ঠেকাতে কঠোর লকডাউন শুরুর আগে সোমবার ও মঙ্গলবার ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়ানো হয়েছে।

এ দু’দিন ব্যাংকিং লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত। আর লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রমের জন্য বিকেল ৩টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে।

রোববার (১১ এপ্রিল) বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রজ্ঞাপনে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ১২ এপ্রিল (সোমবার) ও ১৩ এপ্রিল (মঙ্গলবার) ব্যাংক লেনদেন চলবে ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত। আর ব্যাংকের দাপ্তরিক কার্যক্রম চলবে বেলা ৩টা পর্যন্ত। পাশাপাশি আগের সব সিদ্ধান্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয়।

এর আগে সরকার ঘোষিত এক সপ্তাহের (৫-১১ এপ্রিল) লকডাউনে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু ছিল আড়াই ঘণ্টা, সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত। আর দাপ্তরিক কাজের জন্য ব্যাংক খোলা ছিল ২টা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের আগের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছিল, শাখার নিকটবর্তী স্থানে বসবাসকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতির বিষয়টি অগ্রাধিকার দিতে হবে। এছাড়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি ও কর্মপরিবেশের বিষয়টি সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে পালন করতে হবে।

ফলে ৫০ শতাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারী দিয়েও অফিস পরিচালনা করা যাবে। এই সময়ে ব্যাংকের সব ধরনের লেনদেন চালু থাকবে।

Ramadan77.jpg

সৌদি আরবে পবিত্র মাহে রমজান শুরু হবে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) থেকে। শনিবার (১০ এপ্রিল) দেশটির আকাশে কোথাও রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সেই হিসেবে সৌদিতে সোমবার (১২ এপ্রিল) শাবান মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে।

রোববার (১১ এপ্রিল) দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আরব নিউজের একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল শনিবার (১০ এপ্রিল) সৌদি আরবের চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক হয়। ওইদিন দেশটির কোথাও চাঁদ দেখা গেলে চাঁদ দেখা কমিটিকে নাগরিকদের তথ্য জানানোর অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু চাঁদ দেখার কোনো তথ্য তাদের কাছে আসেনি।

এদিকে মহামারির মধ্যেই দেশে দেশে চলছে পবিত্র মাহে রমজানের প্রস্তুতি। রোজার আগেই বিভিন্ন দেশে আরোপ করা হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ। তাই পবিত্র মাস শুরুর আগেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনাকাটায় ব্যস্ত মুসলিম সম্প্রদায়। তারা এই পবিত্র মাসে শান্তির আহ্বান জানিয়েছেন।

করোনা সংক্রমণ বাড়ায় এবার মার্কেট, শপিংমল সব জায়গায় আরোপ করা হয়েছে বিধিনিষেধ। এরমধ্যেই মাহে রমজানের প্রস্তুতি হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের শপিংমলগুলোতে লোকজনকে দেখা গেছে ব্যস্ত কেনাকাটায়। রমজান উপলক্ষে নিত্যপণ্যের দাম কমে যাওয়ায় খুশি ক্রেতারা।

করোনায় আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক অবস্থা ধ্বংসের পথে। এ অবস্থায় রমজানে আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার আশা করছেন ব্যবসায়ীরা। পবিত্র মাসে সহিংসতা বন্ধেরও প্রার্থনা আফগানদের।

অন্যদিকে রোজা শুরুর আগের সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ভিড় ছিল ইন্দোনেশিয়ার মার্কেটগুলোতে। রজমানের আগেই স্বজনদের কবর জিয়ারত করেছেন পরিবারের সদস্যরা। অন্যান্য বারের মতো এবারও দেশটিতে সর্ব প্রথম মাহে রমজানের চাঁদ দেখা যাবে বলে আশাবাদী স্থানীয়রা।

করোনার ভয়াবহতায় সীমিত আকারে মাহে রমজানের প্রস্তুতি চলছে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ ইরাকে। এদিকে, অর্থনৈতিক মন্দার পরও ফিলিস্তিনের মার্কেটগুলোতেও মানুষের আনাগোনা ছিল লক্ষণীয়।

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর একদিন পর বাংলাদেশের আকাশে চাঁদ দেখা যায়। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর পরদিনই বাংলাদেশে রোজা ও ঈদ পালন হয়ে থাকে।

earth4.jpg

জলবায়ুর পরিবর্তন, গ্রহাণুর আঘাতের আশঙ্কাসহ নানা ঝুঁকিতে রয়েছে পৃথিবী। এবার জানা গেল, মহাশূন্য থেকে টনকে টন ধূলিকণা আসছে। ধূমকেতু ও গ্রহাণু থেকে এসব ছুটে আসছে আমাদের গ্রহে। বছরে পাঁচ হাজার ২০০ টন ধূলিকণা বা উল্ক্কাকণা এসে জমছে বায়ুমণ্ডল ও ভূমিতে।

১০ থেকে ১০০ মিলিমিটারের এসব কণা পৃথিবীর পরিবেশকে করছে দূষিত। এ ছাড়া বাইরে থেকে কী পরিমাণ পানি ও কার্বন পৃথিবীতে আসে, তা জানার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে গবেষণার মাধ্যমে।

ফ্রান্সের পোলার ইনস্টিটিউটের সহায়তায় ইউনিভার্সিটি প্যারিস-স্যাকলে, দ্য ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রি ও সিএনআরএসের বিজ্ঞানীরা ২০ বছর ধরে মহাশূন্যের বর্জ্য নিয়ে গবেষণা করছেন।

এর জন্য ফ্রান্সো-ইতালিয়ান কো-অর্ডিনেশন সেন্টারের পাশে অ্যান্টার্কটিকা মহাদেশের অ্যাডলি ল্যান্ড নামক জায়গা বেছে নেন সিএনআরএসের গবেষকরা। সেখানে তুষারপাতের হার কম হওয়ায় গবেষণাকাজের জন্য সহায়ক। গবেষণায় জানা গেছে, মহাশূন্যর ৮০ শতাংশ কণা আসে ধূমকেতু থেকে এবং বাকিগুলো আসে বিভিন্ন গ্রহাণু থেকে। সূত্র :সায়েন্স ডেইলি।

4gs.jpg

মাত্র তিন মাসের বিয়ে করা স্ত্রীকে তারই প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছেন এক যুবক।

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের কানপুরের চকেরি থানার অন্তর্গত সানিগওয়ান গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, গত ৯ ফেব্রুয়ারি সুজিত নামের এক ছেলের সঙ্গে পাশের গ্রাম শ্যামনগরের মেয়ে শান্তির বিয়ে হয়। ধূমধাম করে বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে থাকতে শুরু করেন শান্তি।

বিয়ের কয়েক দিন পর বাবার বাড়িতে যান শান্তি। কিন্তু সেখান থেকে আর স্বামীর কাছে ফিরতে চাইছিলেন না শান্তি। শ্বশুরবাড়ি থেকে স্ত্রীকে একাধিক বার বাড়ি ফিরিয়ে আনতে গেলেও রাজি হয়নি। কেন স্বামীর বাড়িতে যেতে চাইছেন না তাও বলতে চাইছিলেন না শান্তি।

অনেক চেষ্টার পর স্বামীর কাছে সব স্বীকার করেন শান্তি। জানান তার মনের মানুষের কথা। কীভাবে তার বাবা-মা তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে দিয়েছেন তাও স্বামীকে বলেন।

শান্তি জানান, লখনৌয়ের বাসিন্দা রবি নামের একে ছেলেকে ভালোবাসেন তিনি।

স্ত্রীর মুখ থেকে এ কথা শোনার পর সুজিত সিদ্ধান্ত নেন শান্তিকে রবির সঙ্গে বিয়ে দেবেন! শ্বশুবাড়ির লোকের সঙ্গে কথা বলে তিনি রবির খোঁজ শুরু করেন। তারপর স্ত্রীর বিয়ে দেন তার প্রেমিকের সঙ্গে।


About us

DHAKA TODAY is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and 7 days in week. It focuses most on Dhaka (the capital of Bangladesh) but it reflects the views of the people of Bangladesh. DHAKA TODAY is committed to the people of Bangladesh; it also serves for millions of people around the world and meets their news thirst. DHAKA TODAY put its special focus to Bangladeshi Diaspora around the Globe.


CONTACT US

Newsletter