ক্রিকেট Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

mushi463.jpg

পারিবারিক কারণে পাকিস্তান সফরে যাননি মুশফিকুর রহিম। এ নিয়ে কম সমালোচনা হয়নি। পাকিস্তানের সমর্থকরা তাকে নিয়ে গালমন্দও করে। এবার খোদ পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিকও কথা শোনালেন মুশফিককে।

সম্প্রতি খানিকটা খোঁচা মেরে মালিক মুশফিকের পাকিস্তানে না আসা প্রসঙ্গে বলেন, ‘বাইরের দেশের বিভিন্ন লিগে খেলতে গেলে, অনেকেই জিজ্ঞেস করে পাকিস্তানের বর্তমান অবস্থার ব্যাপারে। পাকিস্তানে যেমন নিরাপত্তা দেয়া হয়, সেটা বিশ্বের কোথাও নেই। বাংলাদেশের কিছু খেলোয়াড়ও নিরাপত্তার ব্যাপারে জানতে চেয়েছে। আমি তাদের বলেছিলাম যে নিজেরাই এসে দেখে যায় যেন।

‘শুধুমাত্র একজন খেলোয়াড় (মুশফিকুর রহীম) আসছে না ওদের। আমি শুধু ওকে বলতে চাই, দয়া করে পরের বার এসো এবং নিজেই দেখে যেও। বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা এখান (পাকিস্তান) থেকে ফেরার পর নিজেরাই অন্যান্য খেলোয়াড়দের রাজী করাবে পাকিস্তান সফরের ব্যাপারে।’

প্রসঙ্গত, আগামী ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনটি টি২০ খেলবে টাইগাররা। ওই সিরিজ খেলে দেশে ফিরে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে টেস্ট খেলতে দল আবার যাবে পাকিস্তানে। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ হবে রাওয়ালপিণ্ডিতে।

বাংলাদেশের তৃতীয় দফার সফর এপ্রিলে। ৩ এপ্রিল করাচিতে একটি ওয়ানডে খেলবে দুই দল। তার পর একই শহরে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আরেকটি টেস্ট ৫ এপ্রিল থেকে।

teambd3.jpg

লাহোরের ওপর জঙ্গিদের নজর অনেক আগে থেকেই। ইতিহাস ঐতিহ্যের দিক থেকে পাকিস্তানের এই শহরটি নানা কারণে বিখ্যাত। সেজন্য গত কয়েক বছরে এখানটায় অসংখ্যবার জঙ্গি হামলা হয়েছিল। যাতে হতাহত হয় বহু মানুষ, নিরাপত্তাকর্মী।

এমনকি ২০০৯ সালে এই লাহোরেই লংকান টিম বাসে হামলা করে সন্ত্রাসীরা। তাইতো এখন লাহোরকে নিয়ে খোদ পাকিস্তানও শঙ্কিত। আর কোনো কারণে যেন ওঁত পেতে থাকা জঙ্গিরা সুযোগ না পায় সেজন্য সব ধরণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নিয়ে তারা।

বিশেষ করে বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফরকে কেন্দ্র করে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ১০ হাজারের বেশি পুলিশ এবং অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। সেই সাথে গোয়েন্দা নজরদারিও জোরালো করা হয়। এমন তথ্যই জানাল দেশটির জনপ্রিয় দৈনিক ‘ডন’।

যার প্রেক্ষিতে বুধবার (২২ জানুয়ারি) মাঝরাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম লাহোরে পা রাখার পর বিমানবন্দর থেকে কঠোর নিরাপত্তায় তাদের নেওয়া হয় টিম হোটেলে। বুলেট প্রুফ বাসে করেই কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে পৌঁছান রিয়াদ-লিটনরা।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনটি টি২০ খেলবে টাইগাররা। ওই সিরিজ খেলে দেশে ফিরে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে টেস্ট খেলতে দল আবার যাবে পাকিস্তানে। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ হবে রাওয়ালপিণ্ডিতে।

বাংলাদেশের তৃতীয় দফার সফর এপ্রিলে। ৩ এপ্রিল করাচিতে একটি ওয়ানডে খেলবে দুই দল। তার পর একই শহরে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আরেকটি টেস্ট ৫ এপ্রিল থেকে।

p7-2001221908.jpg

প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পাকিস্তানে পৌঁছেছেন তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহরা। বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে বুধবার রাতে ঢাকা ছাড়ে বাংলাদেশ দল। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে টাইগাররা নিরাপদে পৌঁছান টাইগাররা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বিসিবি সূত্র।

১৫ জন ক্রিকেটার বাদে কোচিং স্টাফ, সাপোর্ট স্টাফ মিলে ২৩ সদস্যের দল পাকিস্তানে গিয়েছেন। সঙ্গে আছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান আকরাম খান, প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) দুই সদস্য ও একাধিক গণমাধ্যমকর্মী।

শোনা যাচ্ছে, বাংলাদেশের ম্যাচকে ঘিরে নিরাপত্তাবলয় গড়ে তুলেছে পাকিস্তান সরকার। ১০ হাজারের বেশি পুলিশ সদস্যকে দায়িত্ব দিয়েছে পাঞ্জাবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এছাড়াও সিরিজ চলাকালীন দায়িত্বে থাকবেন ১৭ এসপি, ৪৮ ডিএসপি, ১৩৪ ইনসপেক্টর ও ৫৯২ জন আপার সাবঅর্ডিনেট।

লাহোরে আগামী ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার বিকেলে একবেলা অনুশীলন করে শুক্রবার প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলতে নামবে মাহমুদউল্লাহর দল।

বুধবার সন্ধ্যায় দেশ ছাড়ার আগে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। দলে সিনিয়র কম, তাই জুনিয়রদের দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে বলে মনে করেন সৌম্য সরকার। তিনি বলেন, অনেক সিনিয়রই নাই, থাকলে অবশ্যই ভালো হতো। আমরা যারা জুনিয়র আছি,  সবাইকে দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে। চেষ্টা করবো ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই নিজের সেরাটা দেয়ার।

Matheesha-Pathirana-1.jpg

অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার পেসার মাথিসা পাথিরানা ভারতের বিরুদ্ধে যে গতিতে বল করেছেন, তা এখন চর্চার কেন্দ্রে। একটি সূত্র বলছে, অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে তিনি নাকি ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার বেগে বল করেছেন।

পরে অবশ্য জানা যায়, বলের গতি রেকর্ড করায় কোনও সমস্যা ছিল। এবং, আরও দাবি, ওই বল মোটেও ১৭৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে করা হয়নি। যদিও মাথিসা সে দিন আগুনে গতিতেই বল করেছিলেন।

মাথিসার ওই দ্রুতগতির ডেলিভারির সঙ্গে পাকিস্তানের পেসার শোয়েব আখতারের সঙ্গে তুলনা শুরু হলেও তা শেষ পর্যন্ত খাটছে না।

২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ডেলিভারিতে শোয়েব আখতারের বলের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার। এখনও পর্যন্ত এটিই ছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ গতির বল। পরবর্তী কালে ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতি স্পর্শ করেছিলেন ব্রেট লি, শন টেট। গত রবিবারের এই ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৯০ রানে হারায় ভারতীয় টিম। ২২ জানুয়ারি নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবে শ্রীলঙ্কা। নজর থাকবে পাথিরানার দিকে।

bd-2001211541.jpg

পাকিস্তান সফরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বুধবার ঢাকা দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। ২৪ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ব্যাট বলের লড়াই। আগের সূচি অনুযায়ী প্রতিটি ম্যাচই শুরু হওয়ার কথা ছিলো সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়। ম্যাচের দুইদিন বাকি থাকতেই সে সূচিতে পরিবর্তন এনেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। 

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় নয়, প্রতিটি ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা তিনটায়।

পিসিবির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে আজ এ কথা জানানো হয়েছে। কোনো ম্যাচ রাতে নয়, সবগুলোই হবে দিনের আলোয়। বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে বিসিবির পক্ষ থেকেও। লাহোরে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রতিটি ম্যাচ শুরু হবে স্থানীয় সময় বেলা ২টায় (বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টা)।

ঢাকা থেকে পাকিস্তানে সরাসরি কোনো ফ্লাইট না থাকায় বাংলাদেশ বিমানের চার্টার্ড ফ্লাইটে চড়ে পাকিস্তান যাবে মাহমুদউল্লাহ-তামিমরা। বিমানটি সরাসরি লাহোরে পৌঁছাবে। বুধবার রাত আটটায় পাকিস্তানের উদ্দেশে রওয়ানা দেবে বাংলাদেশ দল। স্থানীয় সময় রাত সাড়ে দশটায় বিমানটি লাহোরে পৌঁছানোর কথা।

 

gibson.jpg

বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল ওটিস গিবসন হচ্ছেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ । বাকি ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। অবশেষে সেই ঘোষণাও চলে এলো। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ফাস্ট বোলারকে জাতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি। দুই বছরের জন্য তিনি চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) রাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলে গিবসন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। এসময় তিনি বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন।

চার্লস ল্যাঙ্গাভেল্টের পর গিবসনকে পেস বোলিং কোচের দায়িত্ব দেওয়া হলো। গত ৬ জানুয়ারি বিসিবি একাডেমি মাঠে কুমিল্লার অনুশীলনের সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছিলেন গিবসন। সেসময় তিনি তার আগ্রহের কথা জানান।

বিপিএলে কোচিং করানোর সুবাদে বাংলাদেশের ক্রিকেট সম্পর্কে ভালোই ধারণা রয়েছে তার। সুযোগ পেলে নিজের সবটুকুই উজাড় করে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন সাবেক এ ক্যারিবীয় পেসার।

ওটিস গিবসনের অধীনেই ২০১২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তুলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই দফায় ইংল্যান্ড জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্বও পালন করেছিলেন এ ক্যারিবিয়ান। সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকায় পৌঁছেই রাতে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে পাকিস্তান সফরের যাবেন গিবসন।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ২২ তারিখ রাতে পাকিস্তানে যাবে বাংলাদেশ। আকাশপথে পাকিস্তানের দুরত্ব বেশি না হলেও ঘুরপথে যাওয়ায় সময় বেশি লাগবে। তাই সরাসরি পাকিস্তান যেতে ভাড়া করা বিশেষ বিমানের (চার্টার্ড ফ্লাইট) কথা ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

তিন দফা সফরের প্রথম দফায় লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। শুরু থেকেই পাকিস্তান সফরে প্রধান ইস্যু ছিল নিরাপত্তা। বাংলাদেশ দলকে নিরাপত্তা দিতে ১০ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হবে বলে জানা গেছে। তবে নিরাপত্তা নিশ্চিতের পর বিসিবি এবার বাংলাদেশ দলের পাকিস্তানে যাওয়ার পদ্ধতি নিয়ে ভাবছে।

বাংলাদেশ থেকে সরাসরি পাকিস্তানে যাওয়ার কোনো বিমান নেই। প্রথমে ট্রানজিট নিয়ে সেখান থেকে কানেকটিং ফ্লাইট ধরে পৌঁছতে হবে পাকিস্তানের লাহোরে।

এমনিতে ঢাকা থেকে লাহোরের দূরত্ব প্রায় ১৮০০ কিলোমিটার। কিন্তু আকাশপথে দোহা হয়ে লাহোর গেলে বাংলাদেশ দলকে পাড়ি দিতে হবে ৮ হাজার কিলোমিটারের বেশি পথ। সময়ও লাগবে দ্বিগুনের বেশি। সব মিলিয়ে ঢাকা থেকে লাহোরে যেতে লাগবে অন্তত ১২-১৩ ঘণ্টা।

এসব কারণে সাধারণ বিমানে না যেয়ে বিশেষ বিমানে দল নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন বিসিবি। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর কথায় এমন আভাস মিলেছে।

আগামী ২৪ তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ হবে ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি। ২৮ জানুয়ারি দেশে ফিরবেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা।

Matheesha-Pathirana.jpg

কয়েকমাস ধরেই ক্রিকেট দুনিয়ায় উত্থান ঘটেছে এই তরুণ পেসারের। অ্যাকশন আর গতিতে মিল থাকায় যাকে তুলনা করা হচ্ছে কিংবদন্তি পেসার লাসিথ মালিঙ্গার সঙ্গে। তিনি হলেন শ্রীলঙ্কার ১৭ বছর বয়সী পেসার মাথিশা পাথিরানা।

দক্ষিণ আফ্রিকায় চলতি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে তার একটি বলের গতি দেখানো হয়েছে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার, মাইলের হিসেবে যা ১০৮ মাইল! এই ঘটনার পর ক্রিকেট বিশ্বে বেশ আলোছনার কিন্তু কীভাবে এত গতি তুলেছেন মাথিশা? এটা কি আদৌ সম্ভব?

লাসিথ মালিঙ্গার এই উত্তরসূরি ভারতের বিপক্ষের ম্যাচে দেখান চমক। ইনিংসের শুরু থেকেই করছিলেন আগুন ঝোরানো বোলিং। নিজের ৪র্থ ওভারের শেষ বলে পাথিরানার একটি শর্ট বল বাউন্সার হয়ে বেরিয়ে যায় লেগসাইড দিয়ে। আম্পায়ার বিন্দুমাত্র বিলম্ব না করে বলটি ওয়াইড হিসেবে ঘোষণা দেন।

সবকিছুই ছিলো স্বাভাবিক। কিন্তু সবাই রীতিমতো চমকে যায় যখন স্পিড মিটারে তাঁর বলের গতি প্রকাশিত হয়। স্পিডোমিটারে তাঁর সেই বলের গতি আসে ঘণ্টা প্রতি ১৭৫ কিলোমিটার।

সেই হিসেব মতে ১৭ বছর বয়সী এই বোলার ছাপিয়ে গেলেন আইসিসি স্বীকৃত সর্বকালের গতিতারকা পাকিস্তানের শোয়েব আখতারকে। ২০০৩ সালে এই গতিদানবের করা ১৬১.৩ কিলোমিটার গতির সেই বল এযাবৎ কালের সবচেয়ে দ্রুতগতির বল ছিলো। মাথিশা পাথিরানা ১৭৫ কি.মি গতির বল করে টপকে গেলেন এই পাক গতি তারকাকে।

গতি দেখে সন্দেহ উঠে আইসিসির প্রযুক্তিগত বিষয়ে। তবে আইসিসির পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত তাদের প্রযুক্তিগত কোনো ভুল হয়েছে কিনা সে বিষয়ে জানানো হয়নি।

sakib-11.jpg

টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞায় পাকিস্তান সফরে টাইগারদের নেতৃত্ব দেবেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। টি-টোয়েন্টির বিশ্ব তারকা সাকিবকে ছাড়াই দীর্ঘদিন পর পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

এদিকে ব্যক্তিগত কারণে সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের নির্ভরযোগ্য এই দুই খেলোয়াড়কে মিস করবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গণমাধ্যমের সামনে এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।

সাকিবকে মিস করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা, মিস করবেন দলের প্রতিটা ক্রিকেটার। সাকিব ছাড়া বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফর; স্বাভাবিকভাবেই মিস করছেন বিসিবি সভাপতি। সাকিবের অনুপস্থিতি যে আসলেই পূরণ হবে না তাও জানেন নাজমুল হাসান পাপন।

সাকিব আল হাসান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টেস্ট খেলুড়ে কোনো দেশের বিপক্ষে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন পাকিস্তানের বিপক্ষেই। মুলতানে ১০৮ রানের দুর্দান্ত সেই ইনিংসের আগের ওয়ানডেতে লাহোরে করেছিলেন ৭৫ রান। কিন্তু সেই সুখস্মৃতিটা আর লম্বা হয়নি। ২০০৮ সালের পর পাকিস্তান সফরেই যাওয়া হয়নি আর বাংলাদেশের।

এবার ১২ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। নেই দলের নির্ভরতার প্রতীক সাকিব।

সাকিবের না থাকা নিয়ে বিসিবি সভাপতির কন্ঠে, ‘আমাদের মিডল-অর্ডার সাকিব আল হাসান নেই। আর এখন মুশফিকও নেই। এই দুজন নিঃসন্দেহে দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান। এটা দুঃখজনক যে, আমরা তাদের দুজনকেই মিস করব।’

আগামী ২৪ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এই সিরিজ খেলতে ২৩ তারিখে লাহোরে পৌঁছাবে বাংলাদেশ দল। ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলে ২৮ জানুয়ারি দেশে ফিরবেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদরা।

subah-nasir.jpg

২০১৯ জুড়ে আলোচনায় ছিলেন নাসিরের এক্স গার্লফ্রেন্ড হুমায়রা সুবাহ। নতুন বছরেও সেই রেষ কাটেনি। কখনো রঙ বেরঙের ছবি প্রকাশ করে, আবার স্ট্যাটাস দিয়ে খবরের শিরোনামে নাম লেখান তিনি।

এবারও তেমন কিছু নিয়ে আলোচনায়। সম্প্রতি নিজের ফেসবুকে যেন প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য টিপস দিলেন সুবাহ। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘পরিবারের চাপে বা পরিবারের ভয়ে কোনোদিন ভালোবাসার মানুষটিকে ছেড়ে যাবেন না। কারণ, পরিবার আজ নয়তো কাল ঠিকি আপনাদের মেনে নেবে। কিন্তু পরিবারের চাপে বা পরিবারের ভয়ে ভালোবাসার মানুষটিকে ছেড়ে চলে গেলে আর কোনোদিনও সেই মানুষটিকে ফিরে পাবেন না।

‘আপনি হয়তো ঠিকই নতুন মানুষটিকে পেয়ে গভীর রাতে অনুভূতির সুখে হারাবেন। কিন্তু যে মানুষটি আপনাকে পাগলের মতো ভালবেসেছে, সেই মানুষটি হয়তো সেই রাতের পর থেকে আর কোনোদিন কিছু অনুভব করতে পারবে না। প্রতি রাতে চোখের নোনা জলে ভাসতে থাকবে। একটা হাসিখুশি সুন্দর জীবন নষ্ট করার আগে অন্তত একটু ভেবে দেখবেন। তাই ভালবাসলে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত একসাথে থাকার প্রতিজ্ঞা নিয়ে ভালবাসুন। যেন মৃত্যু ছাড়া কেউ দুজনকে আলাদা করতে না পারে।’

প্রসঙ্গত, সুবাহ-নাসিরের বিচ্ছেদ হয়েছে অনেক দিন হলো। যদিও এ নিয়ে খুব একটা কথা বলেননি ক্রিকেটার নাসির হোসেন। তবে সুবাহ বেশ কিছুদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছিলেন সক্রিয়।

ওই পাঠ চুকিয়ে দু’জনের পথ এখন যেন পুরোই ভিন্ন। সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সুবাহ। আর নাসির জাতীয় দলের বাহিরে থাকলেও ব্যাট-বল ছাড়েননি। ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলোতে নিয়মিত পারফর্ম করছেন। খুঁজছেন আবারও জাতীয় দলে ফেরার রাস্তাও।

নাসির হোসেন আর হুমায়রা সুবাদ। এই দুই নামের মধ্যে লুকিয়ে আছে কত কথা। মাঝে ক্রিকেটপাড়ায় এ নিয়ে কম আলোচনা হয়নি। বেশ ছুটিয়ে প্রেম ছিল তাদের। ফোনালাপ, ভিডিও কিংবা রেকর্ড, স্থিরচিত্র সবই তো দেখা শেষ।

নাসির-সুবাহর শুরুটাও হয়েছিল সিনেমার ধাঁচে। সেখান থেকে মন দেওয়া-নেওয়া। ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখা। একটা সময় সেই ঘর ভেঙে যাওয়া। দুই জনের ছাড়াছাড়ি হওয়া। সব কিছুই হয়তো সিংহভাগ পাঠকের মাথায় আছে।

তবে সুবাহর সিনেমায় আসা নিয়ে সম্প্রতি তুমুল সমালোচনা। যদিও তিনি নিজ মুখেই বলেছেন ছোটবেলা থেকে বড় পর্দায় কাজ করার স্বপ্ন দেখতেন। সেই সুযোগ এতদিন পর পেয়ে লুফে নিয়েছেন। সাদরে গ্রহণ করেছেন প্রিয় অঙনকে। এখন দেখার অপেক্ষা এই অঙনে তিনি কতটা আলো ছড়াতে পারেন।