ক্রিকেট Archives - Page 4 of 73 - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

sakib-20190508110710.jpg

তাকে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। কেন এটা করলেন, কেন ওটা করলেন। কারও কারও তো এমন বলতেও মুখ আটকায় না-সাকিব আল হাসান খেলেন নিজের জন্য, দেশের জন্য নয়।

তবে পরিসংখ্যান আর পারফরম্যান্স দিয়ে বরাবরই সমালোচকদের মুখ বন্ধ রেখেছেন সাকিব। দেশের হয়ে নামলে পেছনের কিছুই যেন তার মনে থাকে না, নিজেকে উজার করে দেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এবার ত্রিদেশীয় সিরিজে আয়ারল্যান্ড খেলতে যাবার আগেও সাকিবকে নিয়ে তৈরি হলো বিতর্ক। আইপিএল খেলে দেশে ফিরলেও বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক ফটোসেশনে ছিলেন না তিনি। যেটি নিয়ে অনেক কথা হয়েছে।

তবে বিতর্ক যত বেশি, সাকিবের নিজেকে মেলে ধরার প্রত্যয় যেন তার চেয়েও কয়েকগুণ বেশি। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই সাকিব বুঝিয়ে দিলেন, দেশের জার্সিটা গায়ে চাপালে কোনো কথাই গায়ে লাগে না তার।

বল হাতে নিয়ন্ত্রিত সাকিব, ব্যাট হাতে উজ্জ্বল, ফিল্ডিংয়ে তো বাজপাখির মতো এক ক্যাচ নিলেন। সবমিলিয়ে ব্যাটে-বলে-ফিল্ডিংয়ে দুর্দান্ত এক সাকিবকেই দেখা গেল মঙ্গলবার।

একটা সময় মনে হচ্ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান তিনশো পেরিয়ে যাবে। তবে মাঝের ওভারগুলোতে ভীষণ টাইট বোলিং করেন দুই স্পিনার সাকিব আল হাসান আর মেহেদী হাসান মিরাজ। যার ফলশ্রুতিতে পরে চাপে পড়ে যায় ক্যারিবীয়রা।

ম্যাচ জেতার পর দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসা সৌম্য সরকারও বললেন, সাকিব-মিরাজের বোলিং জুটিটাই ম্যাচ বাংলাদেশের দিকে নিয়ে এসেছে।

সৌম্য বলেন, ‘শুরুতে তিনি (মাশরাফি) বেশ সুইং পেয়েছে, তবে তখন উইকেট পাননি। পরে যখন দিন কিছুটা অন্ধকার হয়ে এলো, ঠান্ডা বাড়লো, তখনও তিনি সুইং আদায় করে নেন। তারপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট নেয়াটা আমাদের দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সাকিব ভাই এবং মিরাজ জুটি গড়ে দারুণ বোলিং করেছেন, যেটা আমাদের পক্ষে নিয়ে আসে ম্যাচটা।’

১০ ওভার বল করে সাকিব ১ উইকেট পেলেও খরচা করেন মাত্র ৩৩ রান। ফিল্ডিংয়ে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে নেন দুর্দান্ত এক ক্যাচ। এরপর রান তাড়ায় নেমে ব্যাট হাতে ৬১ বলে খেলেন ৬১ রানের হার না মানা এক ইনিংস ।

ফটোসেশন বিতর্ক মাথায় নিয়ে খেলতে আসা সাকিবের কাছে এমন পারফরম্যান্স কি আশা করেছিল দল? সৌম্যর জবাব, ‘তাকে (সাকিব) নিয়ে আমরা কখনই সংশয় রাখি না। আমরা জানি না, বাইরের মানুষ কি বলে। তার উপর সবসময়ই অনেক আস্থা আমাদের এবং তিনি সেটার প্রতিদানও দিয়ে থাকেন।’

dhoni-20190508150430.jpg

ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনি যতটা জনপ্রিয়, নেট দুনিয়ায় যেন তার চেয়ে বেশি জনপ্রিয় মেয়ে জিভা। চার বছর বয়সী জিভার এক একটি হাসি-খেলার ভিডিও নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভারতে চলছে জাতীয় নির্বাচন। সম্প্রতি ছোট্ট জিভা ইনস্টাগ্রামে ধোনির কোলে বসে গোটা দেশকে বার্তা দিয়েছে, ‘মা-বাবার মতো সবাই ভোট দিন।’

আর বিখ্যাত বাবা মাঠে খেলতে নামলে গ্যালারি থেকে উৎসাহ দেয়া তো আছেই। জিভার আধো আধো কথা আর ‘কিউটনেসে’ অনেকেই তার ভক্ত হয়ে উঠেছেন।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালকিন প্রীতি জিন্তাও আছেন তাদের মধ্যে। আদুরে জিভাকে অপহরণেরই হুমকি দিয়ে বসেছেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। মজা করে করা টুইটে এমন দুষ্টুমি করেছেন তিনি।

গত রোববার মোহালিতে প্রীতির দলের কাছে হারে ধোনির চেন্নাই। ম্যাচের ঠিক পরেই বন্ধু ধোনির সঙ্গে আলাপচারিতায় মেতে উঠতে দেখা যায় প্রীতিকে।

তার পরে টুইট করে প্রীতি লেখেন, ‘ক্যাপ্টেন কুলের অসংখ্য ভক্তের মধ্যে রয়েছি আমিও। সম্প্রতি আমি জিভার ভক্ত হয়ে উঠেছি। ধোনিকে আমি সতর্ক করে দিচ্ছি, আমি জিভাকে অপহরণ করতে পারি।’

mash-20190506220231.jpg

ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরুর আগে প্রস্তুতি ম্যাচ হেরে বাংলাদেশের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি টাইগারদের। তবে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্বরূপেই ফিরলো মাশরাফির দল। দাপটের সঙ্গেই হারালো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। তামিম-সৌম্য-সাকিবের ব্যাটিংয়ের নৈপুণ্যে ক্যারিবীয়দের ৮ উইকেটে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ।

এ ম্যাচে তামিম ইকবাল ৮০, সৌম্য সরকার ৭৩, সাকিব আল হাসান ৭৩ এবং মুশফিকুর রহীমরা ৩২ রান ও বল হাতে মাশরাফি ১০ ওভারে ৪৯ রান খরচে ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন।

এমন পারফরম্যান্সেও ঠিক সন্তুষ্ট হতে রাজি নন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বরং মনোযোগ দিতে চান পরের ম্যাচের দিকে। যাতে করে ফাইনালে খেলার পথ সহজ হয় তার দলের।

ম্যাচপরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাশরাফির বলেন, ফাইনালে যেতে হলে আমাদের আরও ভালো এবং শক্তভাবে ক্রিকেট খেলতে হবে। তাই সামনের ম্যাচগুলোর দিকে চেয়ে আছি।

টাইগার অধিনায়ক আরও বলেন, যেকোনো টুর্নামেন্টের শুরুটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। প্রস্তুতি ম্যাচে হারের পর ছেলেরা আজকের শুরুটা অনেক ভালো করেছে। পরের ম্যাচের জন্য ভালো অবস্থানে থাকবে ছেলেরা।

bdr3d.jpg

দু’মাস আগে বাংলাদেশে যুক্তরাজ্যের নতুন হাইকমিশনার হিসেবে নিযুক্ত রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসন। অল্প সময়ের মধ্যেই এ দেশের পরিবেশ ও মানুষের আতিথেয়তা মুগ্ধ করেছে তাকে।

মানুষের ভালোবাসায় বিমুগ্ধ এই হাইকমিশনার আসন্ন ক্রিকেট বিশ্বকাপে নিজ দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশকে ফাইনালে দেখতে চেয়েছেন।

বেসরকারি চ্যানেল যমুনা টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে সম্প্রতি উঠে এসেছে ব্রিটিশ এই হাইকমিশনারের ক্রিকেটপ্রীতির কথা। তিনি বলেন, বিশ্বকাপে ১০টি দল অংশ নেবে। এর মধ্যে বাংলাদেশ একটি। এ নিয়ে আমি খুবই রোমাঞ্চিত। অতীতে ইংলিশ কন্ডিশনে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা সাফল্য পেয়েছে। আশা করি, এবারো পাবে; বিশ্বকাপে ফাইনাল খেলবে ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশ। টাইগারদের জন্য শুভকামনা।

তবে শিরোপা হাতছাড়া করতে চান না এই ব্রিটিশ নাগরিক। ফাইনালে নিজ দলের জয় কামনা করে তিনি বলেছেন, কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে ফাইনাল হবে। তাতে ইংল্যান্ড জিতুক, সেটা প্রত্যাশা করি।

বাংলাদেশ মিশনে যোগ দেওয়ার পর মাশরাফিদের সঙ্গে দেখা করেছেন এ রাষ্ট্রদূত। তিনি বলেন, একটি বিশেষ দিবসে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে। দলে অনেক তারকা ক্রিকেটার আছে। যোগ্যতা দিয়েই বিশ্বমঞ্চে তারা।

বিশ্বকাপের সময় এখানেই থাকবেন রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসন। তিনি আরও জানিয়েছেন, মনেপ্রাণে চাই ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ জিতুক। তবে আমাদের দল না পারলেও যেন বাংলাদেশ ট্রফি জেতে।

বিশ্বকাপে টাইগারদের সমর্থন জানাতে দেশ থেকে ইংল্যান্ড যাবেন অসংখ্য ক্রিকেটপ্রেমী। দেশটিতেও রয়েছে বহু বাংলাদেশি। নিজ দেশের সমর্থকদের সমর্থন তো আছেই, পাশাপাশি বিদেশিদেরও সমর্থন পাবেন ম্যাশ বাহিনী বলে মনে করেন ডিকসন।

bd68a.jpg

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাত্তাই দিল না বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হেসে খেলে হারালে বাংলাদেশের ছেলেরা।

২৬২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় মাশরাফি বাহিনী।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ক্যারিবীয়রা। মাশরাফি-সাইফ-ফিজের বোলিং তোপে ২৬১ রানে থামে উইন্ডিজের ইনিংস। জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত খেলে টাইগার ওপেনারা। তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের ১৪৪ রানের ওপেনিং জুটিতে জয়ের পথ মসৃণ হয়ে যায়।

শেষ দিবে সাকিব-মুশফিকের জুটিতে সহজ জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ দল। সাকিব আল হাসান ৬১ বলে ৩ চার ও ৬ ছয়ে অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংস খেলেন। সঙ্গী হিসেবে মুশফিক ছিলেন ৩২ রানে অপরাজিত।

এর আগে জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সতর্ক ভাবে শুরু করেন দুই টাইগার ওপেনার। কিছুটা ধীর গতিতে তামিম ব্যাট চালালেও প্রথম থেকে মারমুখি ছিলেন সৌম্য। ৭৩ রানে সৌম্য সাজ ঘরে ফিরলে মুশফিকের সঙ্গে কিছু সময় জুটি বাধেন তামিম। কিন্তু ২০ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস হয় তার।

গ্যাব্রিয়েলের বলে হোল্ডারের তালু বন্দি হওয়ার আগে ১১৬ বল খেলেন তামিম। ৭ চারে সাজানো ইনিংসটিতে করেন ৮০ রান। এর আগে ৭৩ রানে থামে সৌম্যের ইনিংস।

ইনিংসের ২৬ ওভারে চেইসের শেষ বলে লেগ অনে ওভার বাউন্ডারি হাঁকান সৌম্য। কিন্তু বাউন্ডারি লাইনে গিয়ে ব্রাভোর হাতে ধরা পড়েন তিনি। টাইগারদের ওপেনিং জুটিতে আসে ১৪৪ রান। ৬৮ বলে ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৭৩ রান করেন সৌম্য।

এর আগে উইন্ডিজ ওপেনার হোপের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে (১০৯) ২৬১ রানের স্কোর গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এছাড়াও চেইস ৫১, অ্যামব্রিস ৩৮ ও অ্যাশলে নার্স করেন ১৯ রান।

টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি (৩/৪৯), মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন (২/৪৭), সাকিব আল হাসান (১/৩৩) ও মেহেদী হাসান মিরাজের (১/৩৮) নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বেশিদূর যেতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২ উইকেট নিতে ৮৪ রান খরচ করা মুস্তাফিজুর রহমান বাদে বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের সব বোলারের প্রস্তুতিটা হয়েছে দারুণ।

afridi-20190507164905.jpg

নিজের আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ বইতে রীতিমতো বোমা ফাটিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি। জানিয়ছেন তার বয়স কমিয়ে খেলিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তার আসল জন্মসাল ১৯৭৫ হলেও, পাকিস্তানের ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা আফ্রিদির জন্মসাল উল্লেখ করেছিল ১৯৮০!

প্রায় ২০ বছরের ক্যারিয়ার শেষ করে অবশেষে নিজের সত্যিকারের বয়সের কথা জানিয়েছেন আফ্রিদি। এতে আবার কিছু মানুষ যেমন প্রশংসা করছেন আফ্রিদির সততার, অন্যদিকে অনেকেই আবার সমালোচনার তীর ছুড়ছেন এতদিন ধরে মিথ্যা বলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলায়।

এবার সেসব সমালোচকদের খাতায় নাম লেখালেন পাকিস্তানেরই সাবেক ক্রিকেটার ইমরান ফারহাত। রীতিমত গুরুতর অভিযোগ এনেছেন আফ্রিদির বিপক্ষে। বলেছেন আফ্রিদির কারণেই অকালে নষ্ট হয়েছে অনেক পাকিস্তানি ক্রিকেটারের ক্যারিয়ার।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফারহাত বলে, ‘আফ্রিদির নতুন বইয়ে আমি যা পড়েছি বা দেখেছি, তারপর আমি নিজেই লজ্জ্বিত। প্রায় বিশ বছর ধরে নিজের বয়স সম্পর্কে মিথ্যা বলে বেড়ালো এবং এতদিন পরে এসে সে সাধু সেজে আমাদের ক্রিকেটের কিংবদন্তিদের ব্যাপারে মিথ্যাচার শুরু করলো। যে সে নিজেই ক্রিকেটের শেষ কথা।’

রাগে ফুঁসতে থাকা ফারহাতের পর সংলাপ, ‘আমাদের তথাকথিত সাধুবাবার (আফ্রিদি) সম্পর্কে আমার নিজেরই অনেক গল্প বলার আছে। সে নিশ্চিতভাবেই অনেক প্রতিভাবান, তবে সেটা শুধুমাত্র রাজনীতিবিদ হওয়ার ক্ষেত্রে।’

পাকিস্তানের হয়ে ২০০১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ৪০ টেস্ট, ৫৮ ওয়ানডে এবং ৭ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ফারহাত। তিনি আফ্রিদির বিপক্ষে অভিযোগ আনার পাশাপাশি, যেসব ক্রিকেটার-কোচকে অপমান করেছেন আফ্রিদি- তাদেরকে আহ্বান করেছেন আফ্রিদির বিপক্ষে মুখ খোলার।

৩৬ বছর বয়সী ফারহাত বলেন, ‘আফ্রিদির ব্যাপারে আমার নিজেরই অনেক গল্প বলার আছে। এছাড়াও আমি আহ্বান করবো আফ্রিদির বইয়ে যেসব খেলোয়াড়-কোচদের অপমান করা হয়েছে তারাও যেনো এ লোকের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন। সে তার নিজের সুবিধার জন অনেক খেলোয়াড়ের ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিয়েছে।’

russel5.jpg

মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচটি ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) বাঁচামরার লড়াই। এতে জিতলেই আইপিএলের দ্বাদশ আসরের প্লে-অফে চলে যেত কেকেআর। কিন্তু বিধিবাম! ৯ উইকেটে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেছে বলিউড কিং শাহরুখ খানের দল।

তবে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে নিজেদের চাঙ্গা রাখতে কম কিছুই করেননি কলকাতার খেলোয়াড়েরা। যেমন গান গাইতে মাতেন দলটির সবচেয়ে বড় তারকা আন্দ্রে রাসেল। তবে সেটি কোনো ক্যারিবিয়ান বা ইংলিশ গান ছিল না। তার কণ্ঠে শোনা যায় ডিরেক্ট হিন্দি গান।

জনপ্রিয় বলিউড সিনেমা ‘দেশি বয়েজ’-এর হিট গান ‘শুবা হোনে না দে’ গেয়ে ফুরফুরা থাকার চেষ্টা করেন তিনি। এসময় তার সঙ্গে মজা করেন সতীর্থরা।

আনন্দঘন মুহূর্তটি ভিডিও করে রাখে কর্তৃপক্ষ। ১ মিনিটের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, টিম হোটেলে পার্টি করছেন কেকেআর খেলোয়াড়েরা। বাজছে ‘দেশি বয়েজ’ সিনেমার গান। এক পর্যায়ে মাইক্রোফোন হাতে নেন রাসেল। কণ্ঠ মেলান তালে তালে। আর তা শুনে হাসতে হাসতে গড়াগড়ি খান দীনেশ কার্তিকরা।

ইতিমধ্যে তা ভাইরাল হয়ে গেছে। ভিডিওটি প্রকাশ পেতেই ছড়িয়ে পড়েছে নেট দুনিয়ায়। নেটিজেনদের মতে, ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ের পাশাপাশি গানও দুর্দান্ত গান রাসেল। হিন্দি গানটিতেই প্রমাণ পাওয়া গেছে।

namazriyad.jpg

ত্রিদেশীয় সিরিজের একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৮৮ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ।

আয়ারল্যান্ড উলভসের দেয়া ৩০৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বাংলাদেশের ইনিংস গুটিয়ে গেছে ২১৯ রানে।

গতকালের ম্যাচের আগে কোন এক সময়ের প্রাকটিসের সময় সবুজ মাঠে মাহমুদুল্লাহর নামাজের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সম্প্রতি।

৩৩ বছর বয়সী তারকা এই ক্রিকেটারের নামাজ আদায়ের ভিডিওটি মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়েছে নেট দুনিয়ায়। এতে সমর্থকদের প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। কেউ কেউ বলছেন, ‘অনুশীলনের ব্যস্ততার মাঝেই নামাজের কথা ভুলে যাননি মাহমুদুল্লাহ।’

আবার অনেকে বলছেন, ‘মাহমুদুল্লাহ বাংলাদেশের গর্ব।’

কদিন আগেই, জাতীয় হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মঞ্চে দাঁড়িয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছিলেন, ‘আমাদের ক্রিকেট টিমে যারা আছে (মুসলিম), সবাই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি এবং সবাই প্রায় ওমরাহ করে ফেলেছি। শুধু তাই নয়। আমরা যখন বিদেশে থাকি তখন আমাদের ইমাম সাহেব থাকে মুশফিক কিংবা মাহমুদুল্লাহ।

আমরা সবাই সেখানে জামাতে নামাজ আদায় করি। আমাদের বোর্ড থেকে একটি রুম আলাদা করে দেওয়া থাকে যাতে আমরা নামাজ পড়তে পারি।’

Afridi-with-daughters.jpg

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি এই মুহূর্তে বিতর্কে আছেন তার আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ এর কারণে। নিজের আসল বয়স ফাঁস, ম্যাচ ফিক্সিং নিয়ে বোমা ফাটানো, ভারতের গৌতম গম্ভীরকে তীব্র আক্রমণ, মেয়ে ভেবে ছেলের সঙ্গে প্রেম- সব আলোচনার সব রসদই মজুদ রয়েছে তার এই বইয়ে। তিনি নিজের পারিবারিক জীবন নিয়েও লিখেছেন। আফ্রিদি জানিয়েছেন, তার চার মেয়েকে ভবিষ্যতে কী বানাতে চান।

মেয়ে ভেবে এক ছেলের সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রেম করেছেন আফ্রিদি। আসল ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর তিনি মুষড়ে পড়েন এবং দ্রুত বিয়ে করে ফেলেন। একে একে তাদের ঘরে আসে চার কন্যা সন্তান- আকসা, আসমারা, আনশা এবং আজওয়া। তার বই থেকে জানা গেছে, তিনি তাঁর চার মেয়েকে খেলোয়াড় বানাতে চান। তবে ক্রিকেটার বানানোর ব্যাপারে একেবারেই আগ্রহী নন। শুধু ক্রিকেট নয়; বাইরে গিয়ে খেলতে হয় এমন কোনো খেলাতেই তার মেয়েদের তিনি দিতে চান না। তাহলে কী চান আফ্রিদি?

আত্মজীবনীতে তিনি লিখেছেন, ‘গত কয়েক বছরে চার মেয়ের বাবা হওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে আমার। সত্যি বলতে কী, একেকজনের জন্মের পর আমার ভাগ্যের চাকা আরও বেশি করে ঘুরেছে। বাবার কাছে মেয়েরা আশীর্বাদ। আমার কাছে ওদের সবাই আশীর্বাদের মতো। আকসা এখন ক্লাস টেনে পড়ছে। আনশা পড়ছে ক্লাস নাইনে। খেলাধুলায় তারা বেশ ভালো। লেখাপড়ায় আরও ভালো। লেখাপড়া শেষ করার পর আনশা শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনে কাজ করতে চায়। আজওয়া আর আসমারা সবচেয়ে ছোট। তারা যেমন খুশি তেমন সাজো খেলে সময় কাটায়।’

মেয়েদের খেলোয়াড় বানানোর বিষয়ে আফ্রিদি লিখেছেন, ‘আমি চাইব না তারা আমার মতো ক্রিকেট খেলাকে তারা পেশা হিসেবে গ্রহণ করুক। শুধু ক্রিকেট নয়, যেসব খেলা ঘরের বাইরে গিয়ে খেলতে হয়, আমি চাই না আমার মেয়েরা সেসব খেলা খেলুক। তবে যে কোনো ইনডোর গেমসে তারা চাইলে ক্যারিয়ার গড়তে পারে। কিন্তু ঘরের বাইরে নয়। ওদের মায়ের সঙ্গেও আমি এ নিয়ে কথা বলেছি। সেও আমার সঙ্গে একমত। সামাজিক ও ধর্মীয় অনুশাসনের কথা বিবেচনায় রেখেই আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নারীবাদীরা আমাকে যা খুশি বলতে পারেন, আমার তাতে কিচ্ছু যায় আসে না। আমি আমার সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছি।’

যেখানে সারাবিশ্বে মেয়েরা ঘর থেকে বাইরে বের হয়ে আসছে; চ্যালেঞ্জিং সব পেশায় কাজ করছে, ক্রিকেট-ফুটবলসহ প্রায় সব খেলা খেলছে; সেখানে আফ্রিদির এই মানসিকতা সেকেলে। ক্রিকেটাঙ্গনকে উস্কে দিয়ে ‘গেম চেঞ্জার’ এখন নারী অঙ্গনেও ঝড় তুলতে যাচ্ছে।

mash-20190506220231.jpg

বিদেশে খেলতে গেলে উইকেট সবসময়ই বড় একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে। সারাবছর মিরপুর বা চট্টগ্রামের স্লো-লো ট্র্যাকে খেলে, বাইরে গিয়ে মুখোমুখি হতে হয় ফাস্ট এবং বাউন্সি উইকেটের। যে বাঁধা পেরুনো বেশ কঠিনই হয়ে পড়ে টাইগারদের জন্য।

আর এবার আয়ারল্যান্ড সফরে উইকেটের এ বাঁধার সঙ্গে যোগ হয়েছে হিম বাতাস ও কনকনে ঠান্ডা। দেশে অনুশীলন ক্যাম্পে মুশফিক-তামিমরা অতিষ্ঠ হয়েছেন তীব্র গরমে, অথচ আয়ারল্যান্ডে গিয়ে গায়ে দিয়ে রাখতে হচ্ছে ভারি জ্যাকেট, গ্লাভস ও কানটুপি। ফলে উইকেটের সঙ্গে ঠান্ডার বিরুদ্ধেও লড়াইয়ে নামতে হচ্ছে বাংলাদেশ দলকে।

তবে এ ঠান্ডাকে অজুহাত হিসেবে মানতে রাজি নন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি জানেন এ ঠান্ডার সঙ্গে মানিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। তাই এটিকে একপ্রকার চ্যালেঞ্জ হিসেবে মেনে নিয়েই নিজেদের কাজ সঠিকভাবে করার পক্ষেই মত দিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক।

আজ (সোমবার) ম্যাচের আগেরদিন সংবাদমাধ্যমে মাশরাফি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় না এই ঠাণ্ডা আমাদের এডজাস্ট হবে। এখানে যারা থাকে তারাও স্ট্রাগল করে ঠান্ডার সঙ্গে। এর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই আসলে। ফলে মানসিকভাবে শক্ত হতে হবে। দিনশেষে খেলতে নেমে ঠান্ডা কেমন, এটা কোন অজুহাত হতে পারে না।’

এদিকে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দল তথা ওলভসের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ৮৮ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ দল। অন্যদিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়ে ১৯৬ রানের বড় ব্যবধানে জয় দিয়েই ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু করেছে ক্যারিবীয়রা।

ফলে মঙ্গলবারের লড়াইটি যে সহজ হবে না তা মেনে নিয়েছেন মাশরাফি। তিনি বারবার জোর দিচ্ছেন নিজেদের কাজ সঠিকভাবে করার দিকেই। অধিনায়কের ভাষ্যে, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিছু খেলোয়াড় আছে যারা, আমরা জানি একা হাতে ম্যাচ শেষ করতে পারে। শাই হোপের বিপক্ষে দেশের মাঠেও আমাদের ভুগতে হয়েছে, ড্যারেন ব্রাভো আছে। আরও কিছু খেলোয়াড় আছে ভালো। ওদের পেস আক্রমণও ভালো। কাল (রোববার) ওরা ভাল একটা ম্যাচ খেলেছে। আমরাও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। কাল (মঙ্গলবার) আমাদের কাজগুলো ঠিকভাবে প্রয়োগ করছি কি না সেটা দেখাতে হবে।’