ফুটবল Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

ronalddo.jpg

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দ্বিতীয় পরীক্ষাতে করোনা পজিটিভ ফলাফল এসেছে।

এতে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসির বিপরীতে রোনালদোর খেলা দেখা হচ্ছে না ফুটবলপ্রেমীদের।

সেলফ আইসোলেশনে থাকার পর বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ ফলাফল আসে।

এর আগে সুইডেনের বিপক্ষে নেশনস কাপে ৩-০ গোলে জয়ের পরপরই পর্তুগিজ উইঙ্গারের কোভিড-১৯ পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

উয়েফার করোনা প্রটোকল অনুযায়ী, একজন খেলোয়াড়কে মাঠে নামার এক সপ্তাহ আগেই করোনা নেগেটিভ হতে হবে।

কিন্তু রোনালদো তা পারলেন না। যদিও করোনা পজিটিভ হওয়ার পর নিজ দেশে সিআর সেভেনের আইসোলেশনে থাকার কথা।

তবে নিয়মের তোয়াক্কা না করে ইতালিতে ফিরেছেন জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড।

নিয়ম ভেঙে তুরিনে ফিরে আসায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন রোনালদো।

আগামী ২৮ অক্টোবর চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে বার্সেলোনার মুখোমুখি হবে জুভেন্টাস।

ধারণা করা হচ্ছিল, এই ম্যাচে দীর্ঘদিন পর মেসি বনাম রোনালদো দ্বৈরথ দেখা যাবে।

কিন্তু দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও করোনা পজিটিভ হওয়ায় সে আশা ভেস্তে গেল। তবে সুযোগ এখনও শেষ হয়নি। গ্রুপের ষষ্ঠ ম্যাচে আবারও দুই দল মুখোমুখি হবে।

মেসি ও রোনালদো এর আগে কখনোই চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে মুখোমুখি হননি। তবে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন মৌসুমের নকআউট পর্বে দেখা হয়েছে তাদের।

laliga334.jpg

বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ এ দুই চিরশত্রুর মধ্যকার বহুল প্রত্যাশিত দ্বৈরথ এল ক্লাসিকো অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামী ২৪ অক্টোবর।

এটিই নতুন মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকো। ম্যাচটি দেখার অপেক্ষায় পুরো বিশ্বের ফুটবল ভক্তরা।

আকর্ষণীয় এ ম্যাচ উপভোগ করার সেরা অভিজ্ঞতা দিতে অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য লা লিগা চালু করেছে লা লিগা ই-স্পেস অ্যাপ।

এ অ্যাপে থাকছে মজার সব সাম্প্রতিক ও ব্যতিক্রমধর্মী ঘটনা এবং খেলার শেষ মুহূর্তের সব চাঞ্চল্যকর তথ্য।

এ অ্যাপে ভক্তরা পাচ্ছেন আগের সব এল ক্লাসিকো ম্যাচ, ম্যাচগুলোর মধ্যে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনা, লা লিগা অ্যাম্বাসেডরদের বক্তব্য, বিভিন্ন গেম।

রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার দ্বৈরথ বিশ্বের সেরা ফুটবল ম্যাচগুলোর একটি হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

নতুন অ্যাপের মাধ্যমে দর্শকরা এল ক্লাসিকো সম্পর্কে তাঁদের ধারণা আরো ঝালিয়ে নিয়ে কোনো দল শীর্ষে থাকবে তা নিয়ে জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় মেতে উঠতে পারবেন।

অ্যাপটির মাধ্যমে ভক্তরা শুধু আগের এল ক্লাসিকো ম্যাচগুলোই দেখতে পারবেন তা নয়, তাঁরা ভার্চুয়ালি স্টেডিয়াম এবং লা লিগার ২০টি ক্লাব সম্পর্কেই সব মজার তথ্যও জেনে নিতে পারবেন।

আগামী ২৪ অক্টোবর রাত ৮টায় লা লিগার অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে বাংলাদেশি ভক্তরা ইউরোপের সবচেয়ে অভিজাত দুটি ক্লাবের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ দেখতে পারবেন একদম বিনামূল্যে।

এ সম্পর্কে লা লিগার ইন্ডিয়ান সাব-কন্টিনেন্টের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসে আন্তোনিও চাচাজা বলেন, ‘বাংলাদেশ ফুটবলপ্রেমীর দেশ।

আমরা দেখেছি এ দেশে লা লিগার ভক্ত অনেক। লা লিগার ফেসবুক পেজে প্রায় ৫০ লাখ ভক্তের সঙ্গে সংযুক্ত হওয়া এবং তাদের ম্যাচ উপভোগ করার সুযোগ করে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত।

এল ক্লাসিকো বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফুটবল ম্যাচগুলোর মধ্যে অন্যতম এবং আমরা মনে করি ভক্তদের ফুটবল ম্যাচ উপভোগ করার পরিপূর্ণ অভিজ্ঞতা এবং মানসম্পন্ন ফুটবল কন্টেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য লালিগা ই-স্পেস অ্যাপটি চালু করার এখনই সঠিক সময়।’

ভক্তরা লা লিগা ই-স্পেস অ্যাপটি ১৯ অক্টোবর থেকে ব্যবহার করতে পারবেন। গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে।

যদি কেউ লিংকের মাধ্যমে সর্বপ্রথম রেজিস্ট্রেশন করে অ্যাপ ব্যবহার করেন, তাহলে ব্যবহারকারী তাঁর পছন্দের ক্লাব অনুযায়ী রিয়াল মাদ্রিদ এবং বার্সেলোনার অফিশিয়াল জার্সি জেতার সুবর্ণ সুযোগ পাবেন।

jamal-bhuyan-lead.png

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ বন্ধ দেশের ফুটবল। এই সময়টা ইউরোপেই কাটাচ্ছেন জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া।

অলস সময় না কাটিয়ে লা লিগায় নিয়মিত ম্যাচ বিশ্লেষক হিসেবে কথা বলছেন তিনি।

সেখানে কথা বলে প্রতি ম্যাচ থেকে প্রায় পৌনে দুই লাখ টাকা করে আয় করছেন দেশের ফুটবলের পোস্টার বয়।

সম্প্রতি দেশের এক গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এই তথ্য জানান জামাল ভুঁইয়া।

সেখানে তিনি বলেন, এবার ২৩-২৪ দিন স্পেনের বার্সেলোনায় ছিলাম। সব মিলিয়ে সাত-আটটি ম্যাচে বিশ্লেষণ করেছি।

ম্যাচপ্রতি ২ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা) সম্মানীও পাই।

মধ্যমাঠের এই তারকা লা লিগায় ম্যাচ বিশ্লেষণের অভিজ্ঞতা জানিয়ে আরো বলেন, সেখানে উন্নত মানের হোটেলে থাকার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে যাতায়াত ও খাওয়াদাওয়া সব ব্যবস্থাই আয়োজকেরা করে থাকেন।

বলা যায় সব মিলিয়ে অভিজ্ঞতাটা ভালো। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে আমি বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হিসেবেই লা লিগায় ম্যাচ বিশ্লেষণ করছি।

সম্প্রতি ফুটবলারদের গত মৌসুমের পারিশ্রমিক ৩৫ শতাংশ দেয়ার ব্যাপারে কথা বলেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

সে সম্পর্কে জামাল বলেন, আপনাকে যদি জিজ্ঞাসা করি কেমন পারিশ্রমিক আশা করেন তখন আপনি কিন্তু ১০০ ভাগের কথাই বলবেন।

যেকোনো পেশার মানুষই হোন না কেন, সবাই ১০০ ভাগই আশা করেন। পরিস্থিতির বিচারে ৪০ ভাগ হলেও ঠিক ছিল।

আমাদের পারিশ্রমিকটা কম হয়ে গেল। সভাপতি তো ৪০ ভাগের কথাই বলেছিলেন।

Madrid22.jpg

লা লিগায় হোঁচট খেলো রিয়াল মাদ্রিদ। অখ্যাত কাদিজের বিপক্ষে লস ব্লাঙ্কোরা হারলো ১-০ গোলে।

ফলে টানা তিন ম্যাচ জয়ের পর লিগে হারের তিক্ততা পেলো লস ব্লাঙ্কোস।

নিজেদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে চলছে সংস্কার কাজ। তাই নতুন মৌসুমের হোম ম্যাচগুলো এস্তাদিও আলফ্রেদো দি স্টেফানোতেই খেলতে হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদকে। এদিন এই স্টেডিয়ামেই রিয়াল আতিথ্য দেয় কাদিজকে।

২০০৪-০৫ মৌসুমের পর এবার লা লিগায় উত্তীর্ণ হওয়া কাদিজ শক্তিমত্তা কিংবা পরিসংখ্যান সব দিক থেকেই পিছিয়ে মাদ্রিদিস্তানদের চেয়ে।

যা ম্যাচের শুরু থেকে কিছুটা হলেও বোঝা গেছে। এদিন সেরা একাদশ নিয়েই মাঠে নামে জিদান দল। তাইতো বল দখল, আক্রমণ সব দিক থেকে এগিয়ে থাকে তারাই।

কিন্তু ম্যাচের ১৬ মিনিটেই থমকে যায় রিয়াল শিবির। স্বগতিকদের চমকে দিয়ে নেগ্রেদোর অ্যাসিস্টে কাদিজকে লিড এনে দেন লোজানো।

গোল খেয়ে নড়েচড়ে ওঠে রিয়াল। একের পর আক্রমণ চালায় অতিথি শিবিরে। কিন্তু আফসোস, ভালো কোন সুযোগই তৈরি করতে পারেননি ভিনিসিয়াস, বেনজেমারা। ফলে এক গোলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় বর্তমান লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

বিরতির পর ফিরে দলে চার-চারটি পরিবর্তন আনেন রিয়াল বস। ভ্যাজকুয়েসের পরিবর্তে অ্যাসেনসিও, রামোসের পরিবর্তে মিলিতাও, মদ্রিচের পরিবর্তে ক্যাসেমিরো আর ইসকোর পরিবর্তে ভালভার্দেকে মাঠে নামান জিদান।

৬৮ মিনিটে দারুণ এক গোলের সুযোগ পেয়েছিলো রিয়াল।

টনি ক্রুসের বাড়ানো বল হেড দিয়ে গোলে রূপ দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন ভিনিসিয়াস। কিন্তু শেষপর্যন্ত তা আর গোলে রূপ নেয়নি।

৮০ মিনিটে বেনজেমা আশা জাগিয়েও অফসাইডের খাড়ায় পড়ে শেষপর্যন্ত গোলবঞ্চিত হন।

শেষদিকে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠা রিয়াল এলোমেলো খেলায় বেশি মেতে থাকে।

কিন্তু শেষপর্যন্ত আর গোলের মুখ দেখেনি লস ব্লাঙ্কোস। ফলে লিগে টানা তিন ম্যাচ জয়ের পর হারের তিক্ততা পেলো জিদানের দল।

neymar-ronaldo_1.jpg

বুধবার (১৪ অক্টোবর) ২০২২ কাতার বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বাছাইপর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে পেরুর মুখোমুখি হয় ব্রাজিল।

পিছিয়ে পড়েও স্বাগতিকদের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত ৪-২ ব্যবধানের জয় পায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

এদিন হ্যাট্রিক করে গোলের দিক দিয়ে রোনালদোকে (৬২ গোল) পেছনে ফেলেন নেইমার।

তাই তাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবেগী বার্তা দিলেন ২০০২ বিশ্বকাপের টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড়।

ব্রাজিলের হয়ে নেইমারের বর্তমান গোল সংখ্যা ৬৪। তার উপরে আছেন কেবল পেলে।

দেশের হয়ে এই কিংবদন্তি ফুটবলার ৭৭ বার প্রতিপক্ষের জাল কাঁপান।

প্যারিস সেন্ট জার্মেইন (পিএসজি) তারকার এমন অর্জনে দারুণ খুশি রোনালদো। নিজস্ব বার্তায় তিনি লেখেন, ‘নেইমার, তোমাকে অনেক সম্মান।

তুমি মাঠের সবচেয়ে বেশি পরিশ্রমী খেলোয়াড়। এ্যাসিস্ট, ড্রিবল, আক্রমণ থেকে শুরু করে সবকিছুতেই এগিয়ে আছো। উড়তে থাকো। একদিন আকাশ ছোঁবে।

সেটা হোক দলের সুসময় কিংবা পিছিয়ে থাকার মুহূর্ত, বরাবরই দুর্দান্ত নেইমার। নেতৃত্ব দেন সামনে থেকে।

নিজে গোল করেন, অন্যদের দিয়েও করান। সবমিলিয়ে অসাধারণভাবে ছুটে চলেছেন এই স্ট্রাইকার।

তার প্রশংসা করে সাবেক ফুটবলার বলেন, ‘দারুণ গল্প তৈরী করছো তুমি। ক্রমাগত উন্নতি হচ্ছে তোমার।

মাঠের মধ্যে চাপ সামাল দেওয়ার সামর্থ্যটাও অনেক।’

নেইমারের প্রতি বিশ্বকাপজয়ী দলের এই সদস্য বেশকিছু পরামর্শ দিয়েছেন।

সেই সাথে বলছেন, আরও সাফল্য অপেক্ষা করছে তরুণ ফুটবলারের জন্য, ‘আমার খুব জানতে ইচ্ছা হয়, কোথা থেকে এসেছো তুমি? বলো তো তোমার জন্য কোনটা অসম্ভব? নিজের প্রতি পূর্ণ বিশ্বাস রেখো।

প্রতিভা শুধুই তোমার। কেউ এর ভাগিদার হতে পারবে না। সামনে আরও অনেক রেকর্ড এবং সাফল্য অর্জন অপেক্ষা করছে।’

salauddin-image-1602601121.jpg

নতুন মেয়াদে ফের কাজ শুরু করে দিলেন কাজী সালাউদ্দিন। চতুর্থ মেয়াদের শুরুতেই ফুটবলারদের সঙ্গে বসেছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি।

শুরুতেই ফুটবলাররা মন খুলে নিজেদের সমস্যার কথা জানিয়েছেন। আবার তিনিও আশ্বাস দিয়ে তাদের কাছে ট্রফি চাইলেন।

আসছে নতুন মৌসুমে পারিশ্রমিক কিছুটা বাড়ানোর দাবি তুলেছেন ফুটবলাররা।

ঠিক তখনই ফুটবলারদের কাছেও কাজী সালাউদ্দিন নিজের চাওয়াটা জানালেন। বললেন দেশকে-ট্রফি এনে দাও।

কিছুদিন আগে টানা চতুর্থবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি নির্বাচিত হন কাজী সালাউদ্দিন।

যদিও আগের তিন মেয়াদে দেশকে তেমন কোনো সাফল্য এনে দিতে পারেননি তিনি। এজন্য সমালোচনার শিকারও হতে হয়েছে।

সাবেক এই ফুটবলারের নিজের আক্ষেপও আছে অনেক। যে কারণে মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) জাতীয় দল ও প্রিমিয়ার লিগের ফুটবলাররা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা দেওয়ার সময় তাদের কাছে ট্রফিই চেয়ে বসলেন বাফুফে সভাপতি!

সালাউদ্দিনের আগের তিন মেয়াদে বাংলাদেশ শুধু ২০১০ সালের এসএ গেমস ফুটবলের সোনা জিতেছে।

এছাড়া ২০০৯ সালের সাফ ফুটবলের পর আর কোনোবারই সেমিফাইনালে যেতে পারেনি।

মাঝে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলে একবার খেলেছে ফাইনাল।

চতুর্থবারের মতো সালাউদ্দিন সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর আজই প্রথম তার সঙ্গে দেখা করেছেন আশরাফুল ইসলাম রানা, তপু বর্মণ, সোহেল রানারা।

এই সাক্ষাতে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি ফুটবলাররা নিজেদের দাবিও জানিয়েছেন।

তবে তার আগে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর সময় কাজী সালাউদ্দিন তাদের কাছে ট্রফি চেয়েছেন।

‘‘সামনের সময়টাতে উনি (সালাউদ্দিন) কাজ করতে চাইছেন। ফুটবল উন্নয়নে যত রকম কঠোর হতে হয় সব কাজই করবেন বলে জানিয়েছেন।

আর ফুল দেওয়ার সময় সভাপতি আমাদের বলেছেন, ‘তোমরা আমাকে একটা ট্রফি এনে দাও। ফুল নয় ট্রফি দিতে পারলে খুশি হবো।

তখন এর চেয়ে বেশি খুশি হবো।’’- সভা শেষে কথাটা জানিয়েছেন জাতীয় দলের গোলকিপার আশরাফুল ইসলাম রানা।

আগামী বছর রয়েছে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও সাফ ফুটবল। বাফুফে সভাপতি ট্রফি চাওয়ায় রানা-তপুদের চ্যালেঞ্জ আরও বেড়ে গেল তাতে!

Brazil-peru-1280x854.jpg

২০১৯ কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ ছিল পেরু। ওই ম্যাচে ৩-১ গোলে জয় তুলে শিরোপা জিতেছিল তিতের শিষ্যরা।

বছর ঘুরে আবারও দুই দল মাঠে নামছে। যদিও এটি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব।

বুধবার পেরুর রাজধানী লিমায় বাংলাদেশ সময় ভোর ছয়টায় মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল।

কোপার গেল আসর অনুযায়ী, দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের সেরা দুই দলের ম্যাচকে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক গণমাধ্যম সিবিএস স্পোর্টস আরেকটি ‘ফাইনাল’ বলেই গণ্য করেছে।

২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বলিভিয়ার বিরুদ্ধে ৫-০ গোলে জয় তুলে নেয় সেলেকাওরা।

ঘরের মাঠ সাউপাউলোতে জোড়া গোল করেন লিভারপুল তারকা রাবার্তো ফিরমিনো।

পিএসজির মার্কুইনহোস ও বার্সেলোনার ফিলিপে কুতিনহো একটি করে গোল করেন। আরেকটি গোল প্রতিপক্ষের ভুলে হয়েছিল।

স্তাডিও ন্যাসিওনাল ডি লিমায় নেইমার-কাসেমিরোরা এই ম্যাচে অবশ্যই জয় তুলেই ফিরতে চাইবে।

অন্যদিকে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করে কাতার বিশ্বকাপে যাওয়ার মিশন শুরু করেছে পেরু।

প্রতিপক্ষের মাঠে পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত ড্র তুলে ঘরে ফিরেছে পেরু।

দুটি গোলই করেছেন সৌদি আরবের ক্লাব আল হিলালের হয়ে খেলা মিডফিল্ডার আন্দ্রে কারিলো।

অভিজ্ঞ আর্জেন্টাইন কোচ রিকার্ডো গারেকার অধীনে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের রুখে দেয়াই লক্ষ্য পেরুর।

ronalddo.jpg

করোনার হাত থেকে রেহাই মিলছে না কারোই। ক্রীড়াঙ্গনেও একের পর এক আসছে দুঃসংবাদ।

নেইমার, দিবালা, ডি মারিয়ার মতো তারকা ফুটবলাররা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এবার এই তালিকায় নাম এলো বিশ্বসেরা ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) এ খবর নিশ্চিত করেছে পর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশন। অফিসিয়াল এক বার্তায় রোনালদোর করোনা আক্রান্তের খবর জানান তারা।

তারা জানায়, ‘৩৫ বছর বয়সী এই তারকা ফুটবলার ভালো আছেন। তার মধ্যে লক্ষণ নেই, তবে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।’

এর আগে তার সতীর্থ পর্তুগালের গোলরক্ষক অ্যান্থনি লোপেজের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

এদিকে, করোনা মহামারির শুরু থেকেই আক্রান্তদের পাশে ছিলেন রোনালদো।

আর্থিক সহায়তা ছাড়াও বিভিন্নভাবে করোনা আক্রান্তদের পাশে ছিলেন এই পর্তুগিজ তারকা।

মেসি এবং রোনালদো মিলে ১০ লাখ করে ইউরো দান করেছিলেন।

তাদের সহায়তায় পর্তুগালের দুটি হাসপাতালে তিনটি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র বা ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) তৈরির কাজ করা হয়েছে।

france-portugal-172812.jpg

বিগ ম্যাচে ফ্রান্সের মুখোমুখি হচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। ২০১৬ ইউরো ফাইনালের পর এবারই প্রথম দেখা হচ্ছে দু’দলের।

স্তাদি দি ফ্রান্সে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে ১ টায়। আরেক ম্যাচে ইতালির বিপক্ষে লড়বে পোল্যান্ড।

পোল্যান্ডের স্টাডিও এনেরগায় এই ম্যাচটি মাঠে গড়াবে রাত পৌনে একটায়।

স্তাদি দি ফ্রান্স স্টেডিয়ামে আজ যখন খেলতে নামবেন, নিশ্চয়ই পুরনো স্মৃতি ছুঁয়ে যাবে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে।

এ মাঠেই যে খেলোয়াড়ি জীবনের সবচেয়ে বড় সাফল্যটি পেয়েছিলেন তিনি।

২০১৬’র ১০ জুলাই বদলি নামা স্ট্রাইকার এডারের একমাত্র গোলে স্বাগতিক ফ্রান্সকে হারিয়ে প্রথমবার ইউরোর শিরোপা জিতেছিল পর্তুগাল।

চার বছরেরও বেশি সময় পর স্মৃতি বিজড়িত মাঠে উয়েফা নেশন্স লীগের ম্যাচে ফ্রান্সের মুখোমুখি হচ্ছে পর্তুগাল।আর ওই ফাইনালের পর এটাই দুদলের প্রথম সাক্ষাত।

নেশন্স লিগে ‘লিগ-এ’ এর ৩ নম্বর গ্রুপে দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল।

শুধু গোল ব্যবধানে পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। ২০১৬’র ইউরো জয়ী পর্তুগিজ দলের অনেককেই আজ দেখা যাবে না মাঠে।

বিশেষ করে এডার। অলিভিয়ের জিরু, আঁতোয়ান গ্রিজম্যান, পল পগবা, গোলরক্ষক হুগো লরিসরা এখনো আছেন ফ্রান্স দলে।

তাদের সঙ্গে আছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে, এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গা। ১৭ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার ইউক্রেনের বিপক্ষে গত ম্যাচে গোল পেয়েছেন।

১০৬ বছরের মধ্যে ফ্রান্সের সবচেয়ে কমবয়সী গোলদাতা তিনি।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজেদের শেষ ৫ ম্যাচে তিন জয় পেয়েছে পর্তুগাল। টানা ৫ ম্যাচ জিতে ফর্ম দেখাচ্ছে ফ্রান্স।

পর্তুগালের বিপক্ষে ফ্রান্সের হেড টু হেড রেকর্ডও ভালো। ২৫ ম্যাচে ১৮ জয়। পর্তুগালের জয় মাত্র ৬টি।

ইউরোর ফাইনাল জেতার আগে টানা ১০ ম্যাচেই হার দেখেছিল পর্তুগিজরা।

গত ম্যাচে পল পগবা ও কিলিয়ান এমবাপ্পে শুরুর একাদশে ছিলেন না। আজ শুরুতেই দেখা যেতে পারে তাদের।

স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচে হোয়াও ফেলিক্স ও বারনার্দো সিলভা নামেন বদলি হিসেবে। আজ দু’জনেরই শুরুর একাদশে থাকার সম্ভাবনা বেশি।

Suarez-1.jpg

অনেক মনোকষ্ট নিয়ে বার্সেলোনা ছেড়েছেন লুইস সুয়ারেস। ছেড়েছেন বললে ভুল হবে, বার্সা তাকে ছাড়তে বাধ্য করেছে।

এত বছরের অবদান ভুলে গিয়ে তাকে অনেকটা ঘাড়ধাক্কা দিয়ে বের করেছে জোসেফ মারিয়া বার্তামেউয়ের বোর্ড।

চলতি মৌসুমের শুরুতে বার্সেলোনা ছেড়ে স্পেনের আরেক ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে নাম লিখিয়েছেন উরুগুইয়ান তারকা।

লা লিগার দলটির হয়ে তার শুরুটাও দারুণ হয়েছে। সেইসঙ্গে তিনি মুখ খুলেছেন মিডিয়ায়।

সুয়ারেস যেহেতু লা লিগাতেই আছেন, তাই নিয়মিতই খেলার মাঠে দেখা হবে বার্সেলোনার সঙ্গে।

যে দলে খেলেন তার প্রিয় বন্ধু মেসিসহ অনেকে। কিন্তু সুয়ারেসের রাগ সতীর্থদের ওপর নয়, সেই বার্তামেউ এবং তার সাঙ্গপাঙ্গদের ওপর।

বার্সার বিপক্ষে ম্যাচে গোল করার পর কীভাবে উদযাপন করবেন তিনি? জবাবে সুয়ারেস বলেন, ‘আমি যদি বার্সেলোনার বিপক্ষে গোল করি, তাহলে হয়তো উন্মত্ত হয়ে যাব না। তবে নিশ্চিতভাবেই কোনো না কোনোভাবে তাদের ঠিকই বুঝিয়ে দেব।’

সদ্য সমাপ্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সার ভরাডুবির পর নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান দায়িত্ব নিয়ে শুরুতেই মিডিয়ায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, তার পরিকল্পনায় সুয়ারেসের নাম নেই। কিন্তু এ কথাটি তিনি সুয়ারেসকেই বলেননি।

এছাড়া তাকে বিক্রি করে দেয়ার যে পরিকল্পনা চলছে, এটিও ক্লাব ম্যানেজম্যান্টের বদলে মিডিয়ার মাধ্যমেই জানতে পেরেছেন সুয়ারেস।

তাই ক্লাব থেকে বিদায়ের সময় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেও তার ভেতরে একটা চাপা ক্ষোভ ও অভিমান থেকেই গেছে।

তবু বার্সেলোনার হয়ে খেলা ছয় বছরের সুখস্মৃতিটাই বেশি মনে রাখতে চাইছেন সুয়ারেস।