ফুটবল Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

full_29.jpg

আর্জেন্টিনা এবং কলম্বিয়ার যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে আগামী কোপা আমেরিকার আসর। সেই লক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশিত হলো আগামী বছরে অনুষ্ঠিতব্য কোপা আমেরিকা ২০২০ এর অফিসিয়াল লোগো।

দুই আয়োজক দেশ আর্জেন্টিনা এবং কলম্বিয়ার পতাকার রংয়ের সংমিশ্রনে তৈরি করা হয়েছে এবারের আসরের লোগো।

২০১৭ সালে কনমেবল সুপারিশ করে যেন কোপা আমেরিকা এবং ইউরো একই বছরে অনুষ্ঠিত হয় সেইরকম একটা ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। মূলত সেই সিদ্ধান্তের বাস্তবায়ন করার জন্যই এবার আগামী বছর অনুষ্ঠিত হবে কোপা আমেরিকার পরবর্তী আসর।

সেই লক্ষেই আগামী বছর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া কোপা আমেরিকার পরবর্তী আসরের লোগো উন্মোচন করেছে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল।

আগামী বছরের ১২ জুন আর্জেন্টিনায় মাঠে গড়াবে কোপা আমেরিকার পরবর্তী আসরের খেলা এবং পরবর্তী মাসের ১২ তারিখ কলম্বিয়ায় ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে এই আসরের।

FiFa-Pre.jpg

বাংলাদেশে যে পরিমাণ ফুটবলের জনপ্রিয়তা তা ক্রিকেটকে হার মানাবে বলে মন্তব্য করেছেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোকে। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁ হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের জার্সি পরে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মাত্র ১৫ ঘণ্টার সফরে ঢাকায় এসেছিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থার (ফিফা) সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) ভোরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করেন। এ দিন সকালে সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি। এরপর মতিঝিলের বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ভবন পরিদর্শন করেন ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার সভাপতি।

তারপরই দুপুরে প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁ হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত হন ইনফান্তিনো। ক্রিকেট বাংলাদেশে জনপ্রিয় হলেও তিনি ফুটবলকেই এগিয়ে রেখেছেন। ফিফা সভাপতি বলেন, ‘ফুটবল খেলে বিশ্বের ২১১টি দেশ। ক্রিকেট খুব বেশি দেশ খেলে না। ১০-১১টি দেশ যে খেলা খেলে, তাতে ভালো করার সম্ভাবনা এমনিতেই বেড়ে যাবে। হ্যাঁ, বুঝতে পারছি ক্রিকেটে বাংলাদেশের অনেক সাফল্য আছে। কিন্তু ক্রিকেট তো সারা দুনিয়ায় হাতে গোনা কিছু দেশ খেলে।’

তার মতে ক্রিকেট খুব কঠিন খেলা। আর খুব কম মানুষই এই খেলা বুঝে। ‘ক্রিকেট খেলে এমন দেশের সংখ্যা কত, ১০-১১! কিন্তু আপনি কি বলতে পারবেন ক্রিকেট খেলাটা সবাই বোঝে? ফুটবল সবাই বোঝে, এটি সহজেই খেলা যায়। বল নিয়ে আপনি খেলাটা খেলছেন, উল্লাস করছেন। ফুটবল হৃদয় দিয়ে খেলা যায়।’ যুক্ত করেন ইনফান্তিনো।

ফুটবল একসময় খুব জনপ্রিয় ছিল বাংলাদেশে। আবারও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। বাংলাদেশের দর্শকদের উন্মাদনা দেখে ফিফা সভাপতি বলেন, ‘বাংলাদেশে আমি ফুটবল নিয়ে যে উন্মাদনা দেখলাম বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের পর, তাতে আমি নিশ্চিত বাংলাদেশ অনেক ওপরে যাবে। এমন চলতে থাকলে নিশ্চিত হয়েই বলছি, বাংলাদেশে ক্রিকেট পাত্তাই পাবে না।’

infantino.jpg

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো বলেছেন, এক সময় লাল-সুবজের দলটি আরও এগিয়ে যাবে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ফুটবলের বেশ সম্ভাবনা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলন একথা বলেন বিশ্ব ফুটবল সংস্থার শীর্ষ এই কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের ফুটবল অনেক উন্নতি করেছে। ফিফায় বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে মাহফুজা আক্তার কিরণ থাকায় এদেশের নারীরা ফুটবলে ভালো করছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে শুভেচ্ছা সফরে আজ (বৃহস্পতিবার) ভোর ৪টা ৫০ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছান ফিফার সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। পরে সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ইনফান্তিনো।

bra-arg.jpg

শিগগির ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথ উপভোগ করতে পারবেন বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীরা। আবারও সৌদি আরবের মাটিতে মুখোমুখি হচ্ছে তারা। এ নিয়ে এক বছরে দ্বিতীয়বারের মতো আরব সাম্রাজ্যে হতে যাচ্ছে ল্যাতিন আমেরিকার দুই পরাশক্তির লড়াই।

ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ) এ খবর দিয়েছে। তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, আগামী ১৫ নভেম্বর রিয়াদের কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা।

গত বছর জেদ্দায় একে অপরের মোকাবেলা করে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল। তাতে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারান সেলেকাওরা। আর চলতি বছরের জুলাইয়ে ঘরের মাঠে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে আলবিসেলেস্তেদের ২-০ গোলে পরাজিত করে ব্রাজিল। তবে ম্যাচটি ছিল বিতর্কিত।

ওই ম্যাচ শেষে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি অভিযোগ করেন, স্বাগতিক হিসেবে বাড়তি সুবিধা নিয়ে ফাইনালে উঠেছে ব্রাজিল। তাদের শিরোপা জেতাতে সব বন্দোবস্ত করে রেখেছে দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল ফেডারেশন (কনমেবল) ।

শেষ পর্যন্ত খুদে জাদুকরের কথায় ফলে। ফাইনালি লড়াইয়ে পেরুকে ৩-১ গোলে হারিয়ে নবমবারের মতো শিরোপা জেতেন ব্রাজিলিয়ানরা। আর অভিযোগ করায় আন্তর্জাতিক ফুটবলে ৩ মাস নিষিদ্ধ হতে হয় মেসিকে।

brazil-20191013204159.jpg

হঠাৎ কি হলো ফুটবলের সুপার পাওয়ার ব্রাজিলের! জয়ের দেখাই মিলছে না ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। পেরুর কাছে হারের পর গত সপ্তাহেই তারা ১-১ গোলে ড্র করেছিল সেনেগালের সঙ্গে। এবার ড্র করলো তারা আফ্রিকার আরেক দেশ নাইজেরিয়ার সঙ্গে। এবারও ব্যবধান ১-১।

সিঙ্গাপুর জাতীয় স্টেডিয়ামে সেনেগালের মুখোমুখি হয়েছিল নেইমাররা। এবারও একই স্টেডিয়ামে নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হয়ে জয় বঞ্চিত থাকতে হলো তাদের।

পেরুর কাছে হারের আগের ম্যাচেও ড্র করেছিল ব্রাজিল। কলম্বিয়ার সঙ্গে ওই ম্যাচ শেষ হয়েছিল ২-২ গোলে। অর্থ্যাৎ, কোপা আমেরিকার ফাইনালের পর টানা চারটি ম্যাচ জয় বঞ্চিত সেলেসাওরা।

সিঙ্গাপুর জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়া আজকের আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে নাইজেরিয়ার কাছে প্রথমেই গোল হজম করতে হয়েছিল ব্রাজিলিয়ানদের। ৩৫ মিনিটে নাইজেরিয়ার তারকা ফুটবলার হোয়ে আরিবো গোল করে এগিয়ে দেন নিজের দেশকে। মোসেস সিমোনের কাছ থেকে বল পেয়ে গোল করেন আরিবো।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে (৪৮ মিনিটে) গোল করে ব্রাজিলকে সমতায় ফেরান মিডফিল্ডার ক্যাসেমিরো। কর্নার থেকে ভেসে আসা বল বক্সের মধ্যে নিয়ন্ত্রণে নেন ক্যাসেমিরো। এরপর ৬ গজ দুর থেকে ডান পায়ের শট নেন তিনি।

তবে ম্যাচের শুরুতেই ধাক্কা খায় ব্রাজিল। খেলার মাত্র ১২ মিনিটের মাথায় ইনজুরির শিকার হন নেইমার। যে কারনে তাকে মাঠ থেকে তুলে নিতে বাধ্য হন কোচ তিতে। তার পরিবর্তে মাঠে নামেন কৌতিনহো।

bff-20191012200005.jpg

কয়েকদিন ধরেই বাতাসে ভাসছিল ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফ্যান্তিনো প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ সফরে আসবেন; কিন্তু বাফুফে তা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়নি তার আগমনের দিনক্ষণ নিশ্চিত না হওয়ায়।

দু’দিন আগেও বাফুফে সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগ ও ফিফার কাউন্সিল মেম্বার মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেছিলেন, ‘ফিফা প্রেসিডেন্ট এশিয়ার কয়েকটি দেশ সফরে আসছেন; কিন্তু বাংলাদেশে আসার বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়।’

শুক্রবার রাতে বাফুফে নিশ্চিত হয়েছে, ১৬ অক্টোবর মঙ্গোলিয়া থেকে ঢাকায় আসবেন বিশ্ব ফুটবলের এই অভিভাবক ব্যক্তিটি। পরেরদিন বিকেলে তিনি চলে যাবেন লাওস।

সূচি নিশ্চিত হওয়ার পরই আজ (শনিবার) বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফিফা প্রেসিডেন্টের সাক্ষাতের সময় পাওয়ার পরই দুপুরে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করে ইনফ্যান্তিনোর ঢাকা সফরের সূচি ঘোষণা করেন বাফুফে সভাপতি। এ সময় বাফুফের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ, সদস্য হারুনুর রশিদ, শওকত আলী খান জাহাঙ্গীর, মাহফুজা আক্তার কিরণ ও ইকবাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ব ফুটবলের বস আসছেন। স্বাভাবিকভাবেই সবার জানার ইচ্ছে থাকে, ফিফা সভাপতির এই সফরে কি পাবে বাংলাদেশ? সংবাদ সম্মেলনে এ প্রশ্নটাও উঠলো; কিন্তু বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন বরাবরের মতোই বললেন, ‘তার কাছে তো আমরা আগ বাড়িয়ে চাইতে পারি না। ফিফা প্রেসিডেন্ট সব দেশের কার্যক্রম নিয়ে ওয়াকিবহাল। ক্লাবের খবর পর্যন্ত আছে তার কাছে।’

বাফুফের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ ফিফা প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফরের বিস্তারিত জানাতে গিয়ে বলেন, ‘তিনি শুভেচ্ছা সফরে এশিয়ার কয়েকটি দেশ ভ্রমণ করছেন। আমাদের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের জন্যই তিনি আসবেন। আমাদের কার্যক্রমগুলো সম্পর্কে ধারণা নেবেন।’

ফিফা প্রেসিডেন্ট বুধবার বিকেলে আসলেও বিমান বন্দরে অভ্যার্থনা ছাড়া ওইদিন তাকে নিয়ে আর কোনো কর্মসূচি নেই বাফুফের। পরেরদিন সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের মধ্য দিয়েই শুরু হবে ফিফা প্রেসিডেন্টের ঢাকার কর্মসূচি।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পরই ফিফা প্রেসিডেন্ট আসবেন মতিঝিলস্থ বাফুফে ভবনে। সেখানে বাফুফের নির্বাহী কমিটির সঙ্গে বাংলাদেশের ফুটবল উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করবেন ইনফ্যান্তিনো। ‘তিনি আমাদের সঙ্গে বাংলাদেশের ফুটবল উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করবেন। গাইডলাইন দেবেন। তিনি আমাদের অভিভাবক, আমাদের মেহমান। আমরা ফিফা প্রেসিডেন্টের সামনে আমাদের কার্যক্রম উপস্থাপন করবো। তখন তিনি বুঝতে পারবেন আমাদের প্রয়োজনগুলো। মেহমানের কাছে আমরা তো কিছু আবদার করতে পারি না’- বলেছেন বাফুফের সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ।

দুই দিনের সফরে ফিফা প্রেসিডেন্টকে নিয়ে বাফুফের কি কি কর্মসূচি থাকবে তা অবশ্য বিস্তারিত জানাতে পারেনি বাফুফের কর্মকর্তারা। কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইনফ্যান্তিনোর সাক্ষাতের সময় ঠিক করেছি প্রথম। এখন আমরা সেভাবে তার কর্মসূচিগুলো ঠিক করবো। করলেই তা জানিয়ে দেয়া হবে।’

ifant.jpg

বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার সভাপতি জিয়ানো ইনফান্তিনো বাংলাদেশে আসছেন আগামী ১৬ অক্টোবর। ১৬ অক্টোবর বিকেলের ঢাকায় পা রাখবেন ফিফা সভাপতি। ১৭ অক্টোবর রাতে বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন তিনি।

শুক্রবার বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘বাফুফের বিশেষ আমন্ত্রণে সৌজন্য সফরে আসছেন তিনি। এখনও তার সফরসূচির সব কিছু বিষয় চূড়ান্ত হয়নি। শুধু আসা ও যাওয়ার বিষয়টি ঠিক হয়েছে। খুব সম্ভবত তিনি মঙ্গোলিয়া থেকে বাংলাদেশে আসবেন।’ বাংলাদেশে এ নিয়ে কোনো ফিফা সভাপতির চতুর্থবার আগমন। ১৯৮০-৮১ সালের দিকে প্রথম হোয়াও হ্যাভেলেঞ্জ এসেছিলেন। এরপর সেপ ব্লাটার দুইবার এসেছিলেন। ২০০৬ ও ২০১২ সালে।

ইনফান্তিনো আসছেন তৃতীয় ফিফা সভাপতি হিসেবে।

messi-20190615170118.jpg

আলোচনা অনেক দূর এগিয়েছে। মেসিদের আর্জেন্টিনাকে ঢাকায় আনার উদ্যোক্তা ইউরোপভিত্তিক এজেন্টটি কয়েক দফা সভাও করেছে বাফুফের সঙ্গে। তারপরই আগামী ১৮ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে মেসিদের ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচটির তারিখ নির্ধারণ হয়েছে। দ্বিতীয়বার মেসিদের ঢাকা সফরের খবরটি এখন ক্রীড়াঙ্গনে সবচেয়ে আলোচিত।

মেসিদের ঢাকা সফরের সম্ভাবনাটা কোথায় দাঁড়িয়ে? বাফুফের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগ বলেছেন ফিফটি-ফিফটি। তবে আর্জেন্টিনার অক্টোবর ও নভেম্বরে যে চারটি ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলবে সে সিডিউলে ঢুকে গেছে ১৮ নভেম্বরের ঢাকার ম্যাচটি।

এ ধরনের ম্যাচ আয়োজন মানেই নানা দেন-দরবার। অংশগ্রহণকারী দল, এজেন্ট এবং আয়োজক দেশের মধ্যে এ আলোচনা হয়ে থাকে দফায় দফায়। হচ্ছে বাংলাদেশেও। আগামী দুই একদিনের মধ্যেই এজেন্টের সঙ্গে আরেক দফা আলোচনায় বসবে বাফুফে। এ আলোচনার জন্য ঢাকায় আসতে পারেন এজেন্ট প্রতিষ্ঠানের ভারতীয় প্রতিনিধিরাও।

এ ম্যাচ নিয়ে তিন পক্ষেরই আছে বেশ কিছু শর্ত। এর মধ্যে বাংলাদেশের প্রধান শর্ত দলে মেসির নিশ্চয়তা। আর আর্জেন্টিনার প্রধান শর্ত নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার বিষয়টি। বাফুফেই নয়, সরকারের পক্ষ থেকে এ ম্যাচের অনুমতি দেয়ার সময়ও ‘মেসি থাকতে হবে’- এমন শর্ত দেয়া হয়েছে।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, ‘যে প্রতিষ্ঠান ঢাকায় এই ম্যাচ আয়োজন করবে তারা আমাদের কাছে অনুমতি ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তার বিষয়ে একটি চিঠি চেয়েছিল। আমরা দিয়েছি। সেখানে বলেছি, আর্জেন্টিনা দলে মেসি থাকতে হবে। আসতে হবে আর্জেন্টিনার পূর্ণাঙ্গ দল। কারণ, অপূর্ণাঙ্গ আর্জেন্টিনা দল আনার মানেই হয় না।’

২০১১ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আর্জেন্টিনা ও নাইজেরিয়ার ম্যাচ আয়োজনে খরচ হয়েছিল ৩০ কোটি টাকার বেশি। আট বছর পর আর্জেন্টিাকে আবার আনতে খরচটা আরো বড় হবে সেটাই স্বাভাবিক। বাফুফের একটি সূত্র মতে এবার খরচ চলে যাবে চল্লিশ কোটির ওপরে।

এ টাকার উৎস খুঁজবে এজেন্ট। তবে তাদের পৃষ্ঠপোষক খুঁজে দেয়ার বড় একটা দায় থাকবে বাফুফেরও। এটাও একটা শর্ত। বাফুফে সাধারণ সম্পাদক এ জন্যই এখনো ম্যাচটির বিষয়ে শতভাগ নিশ্চয়তা না দিয়ে বলছেন ফিফটি-ফিফটি।

দুটি ফিফা ফ্রেন্ডলি হবে ঢাকায়; প্যারাগুয়ে-ভেনেজুয়েলা এবং আর্জেন্টিনা-প্যারাগুয়ে। তবে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক ১৫ নভেম্বরের প্যারাগুয়ে-ভেনেজুয়েলার ম্যাচটি নিয়ে তেমন আশার কথা শোনালেন না। কারণ, আর্জেন্টিনা ম্যাচ নিয়ে পৃষ্ঠপোষকদের যে আগ্রহ থাকবে তেমন থাকবে না অন্য ম্যাচটি নিয়ে। এখন আর্জেন্টিনা-প্যারাগুয়ের মধ্যেকার ১৮ নভেম্বরের ম্যাচ নিয়ে বেশি আলোচনা।

argentina-20191008104912.jpg

মাঝে গুঞ্জন ছড়িয়েছিল, বাংলাদেশে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলতে আসবে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। সেই গুঞ্জন ও সম্ভাবনা মিলিয়ে গেছে বাতাসে। নিকট ভবিষ্যতে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার বাংলাদেশে প্রীতি ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা প্রায় শুন্যের কোটায়।

তবে ব্রাজিল না এলেও, আর্জেন্টিনা ঠিকই খেলতে আসছে বাংলাদেশে। আগামী নভেম্বরে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলতে ঢাকায় আসবেন লিওনেল মেসি, সার্জিও আগুয়েরোরা। এছাড়া ঢাকায় প্যারাগুয়ের বিপক্ষে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে ভেনেজুয়েলাও।

এসব তথ্য জানা হয়েছে প্যারাগুয়ে ফুটবল ফেডারেশনের পক্ষ থেকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্যারাগুয়ের আনুষ্ঠানিক পেজ থেকে ঘোষণা দেয়া হয়েছে এ দুই দলের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের সূচি।

আগামী ১৫ নভেম্বর ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে প্রথম প্রীতি ম্যাচ খেলবে প্যারাগুয়ে। দিন তিনেক পর দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী দল আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে তারা।

প্যারাগুয়ের পক্ষ থেকে এই খবর নিশ্চিত করা হলেও, এখনও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দেয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এসে প্রীতি ম্যাচ খেলে গিয়েছে আর্জেন্টিনা। সেবার মেসি, হিগুয়াইনরা খেলেছিলেন নাইজেরিয়ার বিপক্ষে। জিতেছিলেন ৩-১ গোলের ব্যবধানে।

hamja12.jpg

লিভারপুল তারকা মোহামেদ সালাহকে বাজে ট্যাকল করে বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন লেস্টার সিটির বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফুটবলার হামজা চৌধুরী। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে উঠেছে আলোচনার ঝড়। অনেকে পক্ষে তো কেউ বিপক্ষে মন্তব্য করছেন।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে উড়ছে লিভারপুল। শনিবার রাতে অ্যানফিল্ডে লেস্টারকে ২-১ গোলে হারিয়ে জয়ের ধারা ধরে রাখে তারা। ওই ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে সালাহকে কড়া ট্যাকল করেন হামজা। সঙ্গে সঙ্গে মাঠে লুটিয়ে পড়েন মিসরীয় ফরোয়ার্ড। বাঁ পায়ের গোড়ালিতে আঘাত পান তিনি। এ ঘটনায় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফুটবলারকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি।

হামজাকে উদ্দেশ করে তখনই বর্ণবাদী মন্তব্য করেন স্টেডিয়ামে উপস্থিত অলরেড সমর্থকরা। এরপর টুইটার, ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বর্ণবাদের আক্রমণ হচ্ছেন তিনি। তার উদ্দেশে অনেকে বানর, এশিয়ান ব্ল্যাক, নোংরা জানোয়ার, গুহায় ফিরে যাও-সব বর্ণবাদী শব্দ ব্যবহার করছেন।

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে সমর্থকদের বর্ণবাদী আচরণ অবশ্য এবারই প্রথম নয়। হামজা ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে মার্কাস রাশফোর্ড, পল পগবাকে বর্ণবাদের গ্লানি সহ্য করতে হয়েছে। অবশ্য এ পরিস্থিতিতে ক্লাবকে পাশে পাচ্ছেন হামজা। বাংলাদেশি-গ্রানাডিয়ান বংশোদ্ভুত মিডফিল্ডারকে বিরূপ মন্তব্যের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিচ্ছে লেস্টার।


About us

DHAKA TODAY is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and 7 days in week. It focuses most on Dhaka (the capital of Bangladesh) but it reflects the views of the people of Bangladesh. DHAKA TODAY is committed to the people of Bangladesh; it also serves for millions of people around the world and meets their news thirst. DHAKA TODAY put its special focus to Bangladeshi Diaspora around the Globe.


CONTACT US

Newsletter