খেলাধুলা Archives - Page 2 of 320 - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

sakib-20190304130519.jpg

চলতি বছরের জন্য বিসিবির সঙ্গে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা এখনও ঘোষণা করা হয়নি। আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে গত বছর কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন না সাকিব আল হাসান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে হোম সিরিজের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন হওয়া সাকিবের নতুন বছরের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের টেস্ট খেলতে না চাওয়া এ অলরাউন্ডারকে লাল বলের ক্রিকেটে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এবার নাও রাখা হতে পারে। টেস্টের সময় আইপিএলে খেলার জন্য ছুটি চেয়েছেন সাকিব। বিসিবিও ছুটি মঞ্জুর করেছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, আজই বিসিবি কার্যালয়ে আকরাম খান, বিসিবির প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে নির্বাচকদের মিটিং হবে। সেখানেই কেন্দ্রীয় চুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। এবং সাকিবকে টেস্টের জন্য চুক্তিতে না রাখার সম্ভাবনাই বেশি।

নিউজিল্যান্ডগামী দলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বোর্ড সভাপতির মিটিং হবে কয়েকদিনের মধ্যে। সেখানেও সাকিবের বিষয়টি তোলা হবে। ইতোমধ্যে নির্বাচকরা কেন্দ্রীয় চুক্তির একটি তালিকা প্রস্তুত করেছেন।

সূত্র জানায়, সেই তালিকায় সাকিবের নাম সুপারিশ করা হয়নি। তবে এ বিষয়ে ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগ আজ সিদ্ধান্ত নিবে। পরে তা বোর্ড সভাপতির কাছে উত্থাপন করা হবে।

upul-tharanga.jpg

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায়ই বলে দিলেন শ্রীলঙ্কার বাঁহাতি ওপেনার উপুল থারাঙ্গা। একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে এ ঘোষণা দিয়েছেন ৩৬ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার।

২০০৫ সালের ২ আগস্ট ডাম্বুলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু হয়েছিলো থারাঙ্গার। যা থামলো ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে।

উপুল থারাঙ্গার বিদায়ী বার্তাটি তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য-

‘আমার বন্ধুরা, প্রাচীন প্রবাদে যেমন বলা হয়, সব ভালো জিনিসেরই একটা সমাপ্তি আছে। আমি বিশ্বাস করি, এখন আমার সময় হয়েছে ১৫ বছর খেলাটিকে আমার সব দেয়ার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলার।

আমি পেছনে রেখে যাচ্ছি অনেক মধুর স্মৃতি ও দারুণ সব বন্ধুদের। আমি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের কাছে কৃতজ্ঞ যে তারা আমার ওপর আস্থা রেখেছে, আমার ওপর বিনিয়োগ করেছে।

আমি ক্রিকেট ভক্ত, আমার বন্ধু ও পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞ। তারা আমার ভালো কিংবা খারাপ সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছে। আপনাদের অনুপ্রেরণামূলক বার্তা আমাকে লক্ষ্য পানে ছুটে যাওয়ার সাহস দিয়েছে। এ কারণে আমি আপনাদের ধন্যবাদ দিতে চাই এবং সবার জন্য শুভকামনা জানাতে চাই।

আমি ভবিষ্যতের জন্য শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে শুভকামনা জানাই। আমি আশাবাদী আমাদের দল শিগগিরই শক্তিশালী হয়ে ঘুরে দাঁড়াবে।

সবাইকে ধন্যবাদ।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৯২টি ম্যাচ খেলেছেন থারাঙ্গা। রান করেছেন ৯ হাজারের বেশি। একদিনের ফরম্যাটে ২৩৫ ম্যাচে ১৫ সেঞ্চুরির সাহায্যে ৬৯৫১ রান করেছেন তিনি। সর্বোচ্চ স্কোর ১৭৪ রানের। এছাড়া সাদা পোশাকের টেস্ট ক্রিকেটে ৩১ ম্যাচে ৩ সেঞ্চুরিতে ১৭৫৪ এবং ২৬ টি-টোয়েন্টিতে করেছেন ৪০৭ রান।

mustaffs.jpg

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)’র ১৪তম আসরে খেলতে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র কাছে এখনো ছুটির আবেদন করেননি রাজস্থান রয়্যালসে সুযোগ পাওয়া মুস্তাফিজুর রহমান। তবে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে দেখা করতে গেছেন কাটার মাস্টার। জানতে চেয়েছেন আইপিএল খেলতে যাবেন কি-না।

মুস্তাফিজ চাইলে বোর্ড তাকেও আটকাবে না বলে জানিয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন। একটা চিঠি দিলেই সাকিবের মতো তার ছুটিও মঞ্জুর করা হবে বলে জানান তিনি। তবে মুস্তাফিজ সাফ বলে দিয়েছেন, সবার আগে দেশের খেলা।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিসিবি একাডেমিতে সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, সবার আগে আমার দেশের খেলা। শ্রীলঙ্কা (সফরের) টেস্টে যদি থাকি, তাহলে আমি টেস্ট খেলবো। যদি না থাকি তাহলে বিসিবি তো আমাকে বলবে যে, আমি নাই। তখন আমি বিসিবিকে বলবো (আইপিএল খেলার কথা), বিসিবি যদি আমাকে ছাড়ে, তাহলে আমি আইপিএলে খেলবো। দেশ প্রেম আগে।

মোস্তাফিজের ভাষ্য, যদি টেস্টে আমাকে রাখে, আমি টেস্ট খেলবো। যদি না রাখে তাহলে বিসিবি জানে। বিসিবি যেটা বলবে আমি সেটা করবো। বিসিবি চাইলে (শ্রীলঙ্কা যেতে) রাজি না হওয়ার তো কিছু নাই। দেশের খেলা বা আইপিএলে খেলা- এ বিষয়ে অন্য কোনো চাপ নেই।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) হওয়া আইপিএলের নিলামে বাংলাদেশ থেকে সুযোগ পেয়েছেন সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমান। সাকিবকে ৩ কোটি ২০ লাখ রুপিতে কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং মোস্তাফিজকে ১ কোটি রুপিতে কিনে নিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস।

সাকিব আল হাসান এরই মধ্যে আইপিএলের জন্য জাতীয় দল থেকে ছুটি চেয়ে নিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, সে সময় শ্রীলঙ্কা সফরের টেস্ট সিরিজ থাকলে খেলতে পারবেন না।

Nasir-Tamima.jpg

তামিমা তাম্মি নামের এক নারীকে বিয়ে করে তুমুল বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটে ‘ব্যাড বয়’ খ্যাত নাসির হোসেন।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের দিনে গাঁটছড়া বাঁধেন নাসির-তামিমা। শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে আলোচিত নাসির-তামিমা জুটির বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

কিন্তু এই বিয়ে নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন সমস্যা। নাসিরের স্ত্রী তামিমা তাম্মির এর আগেও বিয়ে হয়েছিল।

সেই স্বামীকে ডিভোর্স না দিয়েই তিনি নাসিরকে বিয়ে করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে নাসির-তামিমার বিয়ে ইসলামি শরীয়ত মতে বৈধ হয়েছে কি-না সেটা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

এদিকে এ বিতর্কের মধ্যই ফের ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়েছেন তামিমা তাম্মি।

তিনি লেখেন, ‘প্রথম যেদিন নাসিরের সাথে আমার দেখা হয়-সেদিন নাসির আমাকে একটা গোলাপ দিয়েছিলো। আমি কিছুটা অবাক হয়েছিলাম।

ফ্রেন্ডশিপে গোলাপ?

তারপর রাতে তার কাছে ফোন করে জানতে চাইলাম আমাকে গোলাপ কেনো দিয়েছিলে? আমাকে বললো সে নাকি আমাকে ভালোবেসে দিয়েছে-সে আমার হতে চায়।

অবাক হয়ে গেলাম তখন-যে ছেলের ৩০-৩২ গার্লফ্রেন্ড থাকার পরেও আমাকে ভালোবেসে আমার হতে চায়; ৩০-৩২টা মেয়েকে ছেড়ে আমাকে আপন করতে চায়।

সেই আমি একটা স্বামীকে ছাড়তে পারবো না তার জন্যে? আমি তাকে খালি হাতে ফিরিয়ে দিতে পারিনি। আমি আমার ভালোবাসাকে নিজের করে নিয়েছি।

স্বার্থপরের মতো তাকে দূরে ঠেলে দিতে পারিনি।

তামিমা সুলতানা তাম্মি (নাসিরের স্ত্রী)।’

mustafiz1.jpg

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)’র ১৪তম আসরে খেলতে আবেদন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র কাছ থেকে ছুটি পেয়েছেন দেশ সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে বোর্ডের কাছে এখনো ছুটির আবেদন করেননি রাজস্থান রয়্যালসে সুযোগ পাওয়া মুস্তাফিজুর রহমান।

আইপিএলের ওই সময়টায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ আছে বাংলাদেশের। বিসিবি তাই অনুমতি দিলেও ভেতরে ভেতরে অসন্তুষ্টি আছেই। মোস্তাফিজও ব্যাপারটা আঁচ করতে পারছেন সম্ভবত। তাই সাকিবের মতো সরাসরি ছুটি চাননি, সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে দেখা করতে গেছেন কাটার মাস্টার। জানতে চেয়েছেন আইপিএল খেলতে যাবেন কি-না।

মুস্তাফিজ চাইলে বোর্ড তাকেও আটকাবে না বলে জানিয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন। একটা চিঠি দিলেই সাকিবের মতো তার ছুটিও মঞ্জুর করা হবে বলে জানান তিনি।

বিসিবি সভাপতি বলেন, মুস্তাফিজ আজকে এসেছিলো আমার কাছে। আমাকে বলেছে আইপিএলে যাবে কিনা জানতে চায়। আমি বলেছি দেখো এখানে আমার কিছু বলার নাই। তুমি যেতে চাইলে আমাদের কাছে একটা চিঠি দাও।

কেবল সাকিব কিংবা মুস্তাফিজ নয় যেকোনো ক্রিকেটারের ক্ষেত্রেই এই নীতি অনুসরণ করা হবে বলে জানান পাপন, এটা কোনো ব্যক্তির জন্য প্রযোজ্য না। আমরা কাউকেই আটকাবো না। কেবল সাকিব আল হাসান কেন, যেকোনো ক্রিকেটারই যেতে চাইলে যাবে।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ভারতের চেন্নাইয়ে অনুষ্ঠিত হয় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৪তম আসরের নিলাম। নিলামে নিলামে মুস্তাফিজুর রহমানকে কিনে নেয় রাজস্থান রয়্যালস। ভিত্তিমূল্য এক কোটি রুপিতেই এই পেসারকে কিনে নিয়েছে দলটি।

sujon-cric-265601.jpg

জাতীয় দলের সাবেক দুই অধিনায়কের ঘটেছে বাকবিতণ্ডা। আর তা গড়াচ্ছিলো মারামারির পর্যায়ে। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসান ও খালেদ মাহমুদ সুজনের মধ্যে। দুজনের মধ্যের এই ঝগড়ার এক পর্যায়ে রকিবুল হাসানকে মারতে তেড়ে যান খালেদ মাহমুদ সুজন।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দেশের সাবেক কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের নিয়ে আয়োজিত লিজেন্ডস চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অপ্রত্যাশিত একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিনিয়র ক্রিকেটার রকিবুল হাসানের দিকে মারার উদ্দেশে তেড়ে যান ক্যাসিনো কাণ্ডে সমালোচিত খালেদ মাহমুদ সুজন।

সুজনের এমন ঘটনায় হতবাক সাবেকদের অনেকেই। অনেকে এগিয়ে গিয়ে সুজনকে আটকানোর চেষ্টা করেন। তবে সুজনকে সামলাতে বেশ বেগই পেতে হয়েছে তাদের। এর মধ্যেই এই বোর্ড পরিচালক রাগ আটকাতে না পেরে উপড়ে ফেলেন মাঠের পাশে থাকা স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের ছোট্ট ছাউনি।

কী এমন ঘটল যে এই বয়সে সিনিয়র রকিবুল হাসানের দিকে তেড়ে গেলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রভাবশালী পরিচালক খালেদ মাহমুদ!

এ ব্যাপারে রকিবুল হাসান বলেছেন, আমি যেহেতু টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান তাই বলেছি অন্য জায়গায় খেলা আয়োজনের জন্য। আইনের মধ্যে যা আছে তা-ই বলেছি। কিন্তু আমি হতাশ সুজনের এমন মারমুখী আচরণে। এটা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই।

প্রকাশ্যে কক্সবাজারের মাঠে ম্যাচরেফারি রকিবুল হাসানকে মারতে উদ্যত হওয়া প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমকে কিছুই বলবেন না রাজি হননি সুজন। ‘নো কমেন্টস’ এর দুই শব্দেই এড়িয়ে যান গণমাধ্যমকে।

cric744.jpg

নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর হয়েছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি। আজ (সোমবার) মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের কনফারেন্স রুমে স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সিরিজে বিসিবিকে দুই কোটি টাকা দিচ্ছে ইভ্যালি।

চুক্তি প্রসঙ্গে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য অফিসিয়িল টিম স্পন্সর হিসেবে আমরা ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। টিম স্পন্সরের পাশাপাশি জার্সির স্পন্সরও তারা। ভবিষ্যতে আশা করবো, ইভ্যালি বড় পরিসরে আমাদের সঙ্গে থাকবে। আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় ইভ্যালিকে ধন্যবাদ।

২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকে স্থায়ী কোন স্পন্সর নেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। গত বিশ্বকাপ পর্যন্ত জাতীয় দলের স্পন্সর ছিল মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি ইউনিলিভার। এর পর থেকেই অস্থায়ী ভিত্তিতে বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করা হচ্ছে।

তবে খুব দ্রুতই বিসিবি স্থায়ী চুক্তির ব্যবস্থা করবে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে বিসিবির প্রধান নির্বাহী বলেছেন, করোনার কারণে আমরা স্থায়ী চুক্তি করতে পারছি না। এছাড়া আমাদের সূচিগুলোও নিশ্চিত নয়। আমরা ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত নতুন চুক্তিতে যাবো। আশা করি সেটি ২/৩ মাসের মধ্যেই হয়ে যাবে।

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডে ২০, ২৩ ও ২৬ মার্চ হবে তিনটি ওয়ানডে; ভেন্যু যথাক্রমে ডানেডিন, ক্রাইস্টচার্চ ও ওয়েলিংটন। ক্রাইস্টচার্চের ম্যাচটি দিবা-রাত্রির হবে।

ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে দুই দল। ম্যাচ তিনটি ২৮, ৩০ মার্চ ও ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। নেপিয়ার, অকল্যান্ড ও হ্যামিল্টনে কুড়ি ওভারের সিরিজে লড়বে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড।

আগামী মঙ্গলবার সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে নিউজিল্যান্ড সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দল।

sakib5321.jpg

সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে মাকে সঙ্গে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র গেলেন বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যাওয়ার আগে কোনোভাবেই বলতে চাইলেন না দেশে ফেরার সম্ভাব্য সময়ের কথা।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ভোরে সাকিবকে বহনকারী কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়। দেশ ছাড়ার আগে জাতীয় দলের আসন্ন সিরিজগুলোতে খেলতে না পারলেও, সতীর্থদের শুভকামনা জানিয়েছেন সাকিব। তবে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে নাম না থাকা আর আইপিএলের জন্য টেস্ট সিরিজ থেকে নাম প্রত্যাহারের ইস্যু নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

ঠিক ৫০ দিন আগে, সাকিব দেশে ফিরেছিলেন হাসিমুখে। তবে এবার দেশ ছাড়ছেন বিতর্ক সঙ্গী করে আর গোমড়ামুখে। গেলো ক’দিন সাকিব ইস্যুতে মুখর দেশের ক্রীড়াঙ্গন। আইপিএলে দল পাওয়ার পর ভক্ত-সমর্থকদের খুশি সমালোচনায় রূপ নেয় শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট খেলতে না চেয়ে ছুটি চাওয়ায়।

প্রশ্ন ওঠে সাকিবের দেশের প্রতি নিবেদন নিয়েও। এ কারণেই কি না বিমানবন্দরে কিছুটা এড়িয়েই গেলেন সংবাদমাধ্যমকে। বিতর্কিত ইস্যু নিয়ে মুখ না খুললেও, আসন্ন সিরিজগুলোর জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন দলকে।

সাকিব আল হাসান বলেন, বাংলাদেশের হয়ে খেলা মিস করবো। আসন্ন সিরিজগুলোতে খেলতে পারলে ভালো হতো। তবে কিছুই করার নাই। বাংলাদেশ দলের জন্য শুভকামনা থাকবে।

দেশ ছাড়ার আগে আরো একটা দুঃসংবাদ হয়তো সাকিব পেয়েই গেছেন। বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকছেন না দেশসেরা অলরাউন্ডার।

চলতি বছর কয়েকটি সিরিজে ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স পর্যবেক্ষণ করে, বিসিবির সঙ্গে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা ঘোষণা করার কথা আছে। আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে গত বছর কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন না সাকিব আল হাসান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন হওয়া সাকিবের নতুন বছরের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফেরার সম্ভাবনা ছিলো।

তবে নিউজিল্যান্ড সিরিজের পর এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্টেও খেলতে না চাওয়া এই অলরাউন্ডারকে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এবার নাও রাখা হতে পারে এমন আভাস পাওয়া গেছে।

nasir3.jpg

১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের দিনে তামিমা সুলতানা নামে এক এক কেবিন ক্রুকে বিয়ে করেছেন দেশের আলোচিত ও সমালোচিত ক্রিকেটার নাসির হোসেন। এরপর ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে হয় তাদের বিবাহত্তোর সংবর্ধনা। নাসিরে ওই বিয়ে নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আলোচনা-সমালোচনা তুঙ্গে। কারণ তিনি যাকে বিয়ে করেছেন ওই নারী পূর্ব বিবাহিতা এবং তার ৮ বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। এমনকি আগের স্বামীকে তিনি তালাকও দেননি।

এমন বিতর্কের মধ্যেই যুক্ত হয়েছে আরও একটি নতুন বিতর্ক। তা হলো ক্রিকেটার নাসির হোসেনের সঙ্গে অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানের সাবেক স্ত্রী তথা মডেল মারিয়া মিমের সম্পর্ক। নাসিরের বিবাহ অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন মিম। সেখানে তারা একসঙ্গে ছবি তোলেন। সেই ছবি আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেন। ব্যাস, ওই ছবি প্রকাশ হতেই নাসির ও মিমের সম্পর্ক নিয়ে নতুন আলোচনা শুরু হয়েছে। মিম নাকি নাসিরের সাবেক প্রেমিকা।

আসলেই কি তাই? এ ব্যাপারে মিম কী বলছেন? অনেকেই তাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় মেসেজ দিয়ে এবং ফোন করে জানতে চাচ্ছেন যে, নাসিরের সঙ্গে তার সম্পর্ক কী। এর উত্তরে ক্ষোভ প্রকাশ করে মিম তার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘নাসির নাসির করে আমাকে মেসেজ দেওয়া বন্ধ করেন। আমি কারো পারসোনাল লাইফ নিয়ে পড়ে থাকি না। ওর ওয়াইফের কাহিনি সত্য না মিথ্যা নিউজ, এটা তো জানতে পারছেন। আমার কাছে জানার কী আছে?’

মিম কথা বলেছেন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গেও। জানান, ‘বিভিন্নজন ফোন দিয়ে মেসেজ দিয়ে নাসির সম্পর্কে নানা কথা জিজ্ঞেস করছে। আমি অবাক হয়ে যাচ্ছি, আমাকে এসব জিজ্ঞেস করছে কেন? নাসিরের বিয়ের দাওয়াতে গিয়েছিলাম।ওর সঙ্গে বেশ কয়েকটি ছবিও তুলেছিলাম। সেগুলো ফেসবুকে পোস্ট করার পর থেকেই যন্ত্রণায় আছি। মানুষ অতিষ্ঠ করে তুলেছে। নাসিরের বিয়ের খবর প্রকাশ হওয়ার পর এখন শুরু হয়েছে, আমি নাকি ওর প্রেমিকা ছিলাম।’

তাহলে নাসিরের সঙ্গে মিমের সম্পর্ক কী? আলোচিত এই মডেল দাবি করেন, ‘স্রেফ বন্ধুত্ব। নাসির আমার বন্ধু। সেই হিসেবে আমাকে ওর বিয়েতে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। এর বাইরে কিছু না। বন্ধুর সঙ্গে কিছু ছবি তুলেছি, এই যা। তাছাড়া বিয়ের দাওয়াতে গেলে প্রত্যেকেই বরের সঙ্গে ছবি তোলে। এটা তো নতুন কিছু না।’

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মডেল মারিয়া মিম হচ্ছেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানের সাবেক স্ত্রী। ২০১২ সালের ২৪ মে তাদের বিয়ে হয়েছিল। পরের বছরের ২৫ জুন সাবেক এই দম্পতির সংসার আলো করে আসে পুত্রসন্তান আরশ হোসেন। কিন্তু ২০১৯ সালে ভেঙে যায় তাদের সম্পর্ক। ওই বছরের ২৩ অক্টোবর ডিভোর্স পেপারে সই করে আলাদা হয়ে যান সিদ্দিক ও মিম।

amir4x.jpg

মোহাম্মদ আমির, পাকিস্তান ক্রিকেট দলের তারকা পেসার। খেলোয়াড়ি জীবনে একাধিকবার এই দেশে এসেছেন আমির। বাংলাদেশে তার অনেক বন্ধু-বান্ধবও আছে। এদেশে তার সবচেয়ে প্রিয় খাবার ডাল-ভাত।

সম্প্রতি ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোর নতুন আয়োজন ‘ক্রাঞ্চ টাইম’তে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের খাদ্যাভ্যাস নিয়ে কথা বলেছেন আমির। সেখানে বাংলাদেশের প্রিয় খাবারের কথা জানিয়েছেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে এক পর্যায়ে বার্নি রিড জিজ্ঞেস করেন, লিগ আসরে যেদিন ম্যাচ থাকে ওদিন কোন ধরনের খাবার খান? আমিরের উত্তর, আমি টার্কিশ ও লেবানিজ খাবার এবং যখন দুবাই আসি তখন এসব খাবার খেতে খুব পছন্দ করি। এসব খাবারে কোনো চর্বি নেই। তাই এসব খাবার থেকে আমি কার্বোহাইড্রেট ও প্রোটিন পাই।

বিপিএলের (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ) মতো কোথাও গেলে, আমি সাদা ভাত এবং ডাল মাখানি খেতে পছন্দ করি। আমি এসব বাংলাদেশে খেতে পছন্দ করি। তবে অধিকাংশ সময় আমি বাংলাদেশের সবজি জাতীয় খাবার খেতে পছন্দ করি। যখন পাকিস্তানে ফিরি, আমি পাস্তা, আলু ভর্তা সঙ্গে চিকেন স্টেক খেতে ভালোবাসি। আমার স্ত্রী খুবই ভালো রাঁধুনি।

রাঁধুনি হিসেবে স্ত্রীর পাশাপাশি আরেকজন খুব পছন্দের পাঁচক আছেন আমিরের। তিনি আর কেউ নন, তারই সাবেক সতীর্থ সাঈদ আজমল।

পাকিস্তানি স্পিনার দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে। তবে সাবেক সতীর্থকে এখনো ভুলেননি আমির। কারণ সফরে গেলে আজমলের বানানো খাবার খেতে খুব পছন্দ করতেন তিনি। পাকিস্তানি স্পিনারের বানানো ডাল এখনো মুখে লেগে আছে তার।

বোলিং ছাড়াও আজমল যে কতো উঁচু মাপের পাঁচক তা এক বাক্যেই জানিয়ে দিলেন আমির, ‘আজমল খুব ভালো রান্না করে’।

অন্যের বানানো খাবার খেতে পছন্দ করলেও আমির কিন্তু নিজে থেকে কোনো রান্নাই পারেন না। তার এতোই আমিরী স্বভাব যে, এক কাপ চা-ও বানিয়ে পান করতে পারেন না তিনি। অলসতা যেন আমিরের হাড্ডি-মজ্জায়।