প্রচ্ছদ Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

PHILIP7.jpg

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রশংসনীয় আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন দেখতে বাংলাদেশ সফরে আসতে চান বেলজিয়ামের রাজা ফিলিপ।তিনি নিজেই বাংলাদেশ সফরের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

দেশটিতে নবনিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাহবুব হাসান সালেহ্ রাজপ্রাসাদে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাজার কাছে তার পরিচয়পত্র পেশকালে তিনি এ আগ্রহ প্রকাশ করেনে।এসময় রাজা ফিলিপ ১৯৯০ এর দশকের শুরুর দিকে বাংলাদেশে তার ব্যক্তিগত সফরের বিষয়টি স্মরণ করেন।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রদূত সালেহ্ বেলজিয়ামের রাজার কাছে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা পৌঁছে দেন।

তিনি বলেন, রাজা দম্পতি তাদের সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফর করলে বাংলাদেশ সরকার এবং জনগণ অত্যন্ত আনন্দিত হবে।

রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, ২০২১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনকালে রাজ দম্পতির সফর বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ হবে এবং দুই বন্ধুপ্রতিম দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় করবে।

রাজা ফিলিপ বাংলাদেশ ও বেলজিয়ামের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

রাষ্ট্রদূত সালেহ্ এসময় দু’দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান বাণিজ্যিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিদ্যমান অত্যন্ত আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধার বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং বাংলাদেশের কয়েকটি সম্ভাবনাময় খাত যেমন- ওষুধশিল্প, তথ্য-প্রযুক্তি ও প্রকৌশল শিল্পে বেলজিয়ামের বিনিয়োগকারীদের সম্ভাব্য বিনিয়োগের কথা তুলে ধরে বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রদূত সালেহ্ রাজা ফিলিপকে রোহিঙ্গা সংকট সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে অবহিত করেন এবং ২০১৯-২০ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে এ বিষয়ে বেলজিয়ামের সহযোগিতামূলক ভূমিকার প্রশংসা করেন।

বেলজিয়ামের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূতকে একটি আনুষ্ঠানিক গাড়ি বহরযোগে রাজপ্রাসাদে নিয়ে যাওয়া হয়। বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশন উপ-প্রধান ফাইয়াজ মুরশিদ কাজী এবং প্রথম সচিব ফখরুদ্দিন আহামেদ রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

kader33-1280x853.jpg

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দ্বিতীয় ধাপের পৌরসভা নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে সরকার কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ করবে না।

অতীতের ধারাবাহিকতায় নির্বাচন কমিশনকে সরকার এ বিষয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে। এটা সরকারের দায়িত্ব।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ভোটাররা যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সে লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

ইভিএম পদ্ধতি অত্যন্ত ইতিবাচক জানিয়ে তিনি বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটার টার্ন আউট ৬০ শতাংশের বেশি, যা অত্যন্ত ইতিবাচক।

চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে নরসিংদী পৌরসভার ঘোষিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে আইনগত অভিযোগ থাকায় ইতোমধ্যেই প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে এবং সেখানে নতুন প্রার্থী দেওয়া হয়েছে বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

এখানে আওয়ামী লীগ বিতর্কিত আশরাফ হোসেন সরকারকে বাদ দিয়ে বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছে আমজাদ হোসেন বাচ্চুকে।

corona24.jpg

করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে দেশে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ১৩ হাজার ৬৭৮টি নমুনা পরীক্ষা করে এ সময়ে নতুন করে ৭৬২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

দেশে গত মার্চের শুরুর দিকে কভিড-১৯ এর সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর শুক্রবার সকাল পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৭ হাজার ৮৬২ জনে। আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ২৬ হাজার ৪৮৫ জনে।

গত এক দিনে আরও ৮৪১ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন । তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ হওয়া রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ৭১ হাজার ১২৩ জন হয়েছে।

দেশের সবশেষ করোনা পরিস্থিতি নিয়ে শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর খবর আসে।

kader32.jpg

শনিবার দ্বিতীয় ধাপের পৌরসভা নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, অতীতের ধারাবাহিকতায় নির্বাচন কমিশনকে সরকার এ বিষয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে। এটা সরকারের দায়িত্ব।

শুক্রবার সকালে নিজের সরকারি বাসভবনে আয়োজিত নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান সেতুমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণ ক্ষমা করবে না- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রকৃতপক্ষে সরকার জনগণের কল্যাণে কাজ করছে বলেই বারবার শেখ হাসিনাকে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব দিচ্ছে জনগণ। বিএনপির সকল কর্মসূচি রাষ্ট্র ও জনগণের বিপক্ষে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, হ্যাঁ-না ভোটের মাধ্যমে যারা ভোট ডাকাতি শুরু করেছিল, রাতের বেলায় কারফিউ গণতন্ত্রের মাধ্যমে গণতন্ত্র শিখিয়েছিল, তাদেরকে জনগণ এখনো ক্ষমা করেনি। আর ক্ষমা করেনি বলেই বিএনপি ক্রমশ জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

তিনি বলেন, বিএনপি জনগণ দ্বারা আন্দোলন ও নির্বাচনে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে প্রতিশোধ নিচ্ছে জীবন্ত মানুষ আর সম্পদ পুড়িয়ে। জনগণ তাদের ক্ষমা করেনি বলেই এখনো অতীতের অপরাধের প্রায়শ্চিত্ত করছে।

এ সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইতোমধ্যে কেন্দ্রসহ অন্যান্য পর্যায়ে বিভিন্ন কমিটি, উপ-কমিটি গঠন করেছে, অনুমোদনও দিয়েছে। এ সকল ঘোষিত কমিটির বিষয়ে কেউ কেউ সংক্ষুব্ধ হলে কিংবা কারও অভিযোগ থাকলে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আপিলের সুযোগ থাকবে।

তিনি বলেন, আবার কারও কমিটির বিষয়ে যে কোনো অভিযোগ ধানমন্ডি ৩/এ-তে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে জমা দেওয়া যাবে।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দলকে আরও পরিচ্ছন্ন, আধুনিক গণতান্ত্রিক এবং স্মার্টার দলে রূপান্তর করতে চান উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র চর্চার ভীতকে আরও মজবুত করতে আওয়ামী লীগ সচেষ্ট।

তিনি বলেন, দেশের রাজনৈতিক দলসমূহের মধ্যে আওয়ামী লীগেই অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র চর্চার সুযোগ সবচেয়ে বেশি।

চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে নরসিংদী পৌরসভার ঘোষিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে আইনগত অভিযোগ থাকায় ইতোমধ্যেই প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে এবং সেখানে নতুন প্রার্থী দেওয়া হয়েছে বলেও জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

earth332.jpg

ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪ জন হয়েছে। আহতের সংখ্যা ৬০০ এরও বেশি।

দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার বরাতে কাতারভিত্তিক আলজাজিরা এ খবর দিয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোরে এ ভূমিকম্প আঘাত হানে। ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৬.২ রিখটার স্কেলের। সাত সেকেন্ড ধরে এটির কম্পন অনুভূত হয়।

মাজেনে শহরে ছয় কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে ১০ কিলোমিটার গভীরে এ ভূকম্পনের উৎপত্তি। ভূমিকম্পে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে দ্বীপটিতে। গুঁড়িয়ে গেছে অনেক ঘরবাড়ি।

মামুজু শহর থেকে আরিয়ানতো নামে এক উদ্ধারকর্মী জানান, সেখানে একটি হাসপাতাল ধসে পড়েছে। রোগী এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছেন। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

শহরটিতে মারা গেছেন অন্তত ২৬ জন। বাকি আটজন মারা গেছেন পশ্চিম সুলাওয়েসির অন্যান্য এলাকায়। অন্তত ১৫ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছেন।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে মামুজুর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার প্রধান আলী রহমান বলেন, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। এখনো অনেক মানুষ ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছে আছে।

ভূমিকম্পের পর সুনামির সতর্কতা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এমন পরিস্থিতিতে কয়েক হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে গেছেন।

ছবি ও ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বিভিন্ন এলাকায় অনেক ভবন পুরোপুরি ধসে পড়েছে। ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছে অনেক মানুষ।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা জানায়, পশ্চিম সুলাওয়েসি প্রশাসনের একটি অফিসও মারাত্মকভাবে ক্ষতির শিকার হয়েছে।

সড়কে ফাটল দেখা দেওয়ায় উদ্ধারকর্মীদের কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। বন্ধ হয়ে গেছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।

কয়েক ঘণ্টা আগে একই এলাকায় ৫.৯ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল। তখনও বেশ কিছু ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

pm-shekh-hasina-14-01-21.jpg

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথমবার শপথ নেয়ার দিন দেশের সেবক হয়ে কাজ করার কথা বলেছিলেন জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রধানমন্ত্রিত্ব আমার কাছে কেবল কাজের সুযোগ। কাজের ক্ষমতার প্রাপ্তি ছাড়া আর কিছু না।

বৃহস্পতিবার সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। সরকারি ভাতা ভোগীদের কাছে সরাসরি টাকা প্রেরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে এর আয়োজন করা হয়।

এ সময় ভোট দিয়ে বার বার নির্বাচিত করায় জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার সরকার হলো মানুষের সেবক। সেবক হিসেবে কাজ করতে চাই। মানুষের জন্য কাজ করব, সেবা করব।

দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানো খুব কঠিন কাজ মন্তব্য করে তিনি বলেন, জীবনের সব সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য না দেখে এই কাজটি জাতির পিতা করতে চেয়েছিলেন। দেশকে এভাবে ভালোবাসার শিক্ষা তার কাছ থেকে পেয়েছি।

১৯৮১ সালে দেশে ফেরার সময়ের বর্ণনা দিতে গিয়ে আওয়ামী লীগ প্রধান বলেন, দুর্ভিক্ষ চলেছে, মানুষকে জীবন্ত কঙ্কাল মনে হতো। এই দৃশ্য আমার চোখে দেখা।

মাইলকে মাইল হেঁটে গ্রাম-গঞ্জের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্ষমতায় গেলে কী করব, সেই চিন্তা তখন থেকেই ছিল।

তাই ১৯৯৬ সালে প্রথমবার ক্ষমতায় গিয়ে বয়োবৃদ্ধ, স্বামী পরিত্যক্তা, প্রতিবন্ধী ও মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতার দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছি।

একটানা ক্ষমতায় থাকার কারণেই মানুষের জন্য উন্নয়ন করতে পারছি মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের বার বার ভোট দিয়েছে দেশের মানুষ। তারা আমারদের ওপর আস্থা রেখেছে, বিশ্বাস রেখেছে। তারা আস্থা রাখার কারণেই সেবা করার সুযোগ পেয়েছি।

ডিজিটাল পদ্ধতির প্রযুক্তির কল্যাণে দেশ এগিয়ে চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তির টাকা নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে পৌঁছে যাবে। দেশে একটি মানুষও ভূমিহীন ও গৃহহীন থাকবে না। প্রত্যেককে একটি ঠিকানা দেয়া হবে, ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে আলো।

এ সময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। এ বছর দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার সঙ্গে জড়িতদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানান তিনি।

এ অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনি কর্মসূচির আওতায় প্রতিবন্ধী ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি, বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা অস্বচ্ছলদের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ এবং বিকাশের মাধ্যমে গভর্নমেন্ট টু পারসন পদ্ধতিতে টাকা প্রেরণের এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস। এতে আরো বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান ও মন্ত্রণালয়ের সচিব জয়নাল বারি।

jahed5.jpg

বিভিন্ন রোগে গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তি এবং ১৮ বছরের কম বয়সীদের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে আসন্ন টিকাদান কর্মসূচির বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে উচ্চপর্যায়ের কমিটির বৈঠক শেষে তিনি এ তথ্য জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট (এসআইআই) উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের প্রথম চালান আগামী ২৫ বা ২৬ জানুয়ারি দেশে আসবে বলে বেক্সিমকোর পক্ষ থেকে সরকারকে জানানো হয়েছে।

সেই অনুযায়ী সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রতিটি জেলায় সাত লাখ ও উপজেলায় দুই লাখেরও বেশি ভ্যাকসিনের ডোজ সংরক্ষণ করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে সরকার সারাদেশে প্রায় ৪২ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। যেন তারা ফ্রেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে ভ্যাকসিন দিতে পারে।

এ ছাড়া সাড়ে ৭ হাজার টিম গঠন করা হয়েছে। দেশে ভ্যাকসিন আসার পর পরই যেন সেগুলো সরবরাহ করা যায়, সে জন্য পরিবহনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে, যোগ করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, বিভিন্ন রোগে গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তি এবং ১৮ বছরের কম বয়সীদের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দেয়া হবে না। আগামী ২৬ জানুয়ারি থেকে টিকা প্রত্যাশীদের নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হবে। আর যেসব বিদেশি বাংলাদেশে অবস্থান করছেন, তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

এ সময় বেসরকারি খাতকে ভ্যাকসিন ব্যবহার করতে দেয়ার জন্য সরকার নীতিমালা ঠিক করছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, এক্ষেত্রে সরকার একটি মূল্য নির্ধারণ করে দেবে। পাশাপাশি কোথায় ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে হবে, সেটাও জানিয়ে দেবে।

sheikh-hasina-258441.jpg

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের মানুষ কেউ যাতে নিজেকে অপাংক্তেয় মনে না করে। প্রত্যেকের প্রতি রাষ্ট্রের যে একটা কর্তব্য আছে, সেই কর্তব্য পালন করতে চায় আওয়ামী লীগ সরকার। মানুষ সমর্থন দিয়েছে বলেই টানা ক্ষমতায় থেকে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে পারছি।

তিনি বলেন, ‘আমার সরকার মানে মানুষের সেবক।’

বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীত ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তির টাকা মোবাইল আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র (বিআইসিসি) মিলনায়তনে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেন সরকার প্রধান শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠান থেকে দেশের প্রায় এক কোটি অসহায় মানুষের কাছে ডিজিটাল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে দেয়া হয় টাকা। এ সময়, বিকাশ ও নগদ একাউন্টের মাধ্যমে সুবিধাভোগীরা সরাসরি নিজেদের ভাতার টাকা পেয়েছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সামাজিক নিরাপত্তার আওতায় সরকারের নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন, ‘মানুষের দুঃখ-দুর্দশা মোচন করে মুখে হাসি ফোটানো খুব কঠিন কাজ। তারপরও সরকার সবরকম চেষ্টা করে যাচ্ছে।

তিনি জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন শুধু নগরকেন্দ্রিক ছিলো না। সমগ্র বাংলাদেশের জন্য কাজ করেছিলেন তিনি।

সেই চেতনা থেকেই সমাজের তৃণমূলের মানুষের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে সরকার।

আওয়ামী লীগ সরকার স্বামী পরিত্যক্তা ও বিধবা নারীদের সামাজিক অবিচার থেকে রক্ষার জন্য প্রথম ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা করেছিলো উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, শুধু তাই নয়; এই ধরনের জনগোষ্ঠীকে কর্মক্ষম করার চেষ্টা করে যাচ্ছে সরকার।

এর ফলে, বিধবাদের যে সামাজিক অবিচারের শিকার হতে হতো, এখন তাদেরকে অর্থ দিয়ে সহায়তার বন্দোবস্ত করে যাচ্ছে সরকার।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যে সমস্ত ভাতাগুলো সরকারের তরফ থেকে দেয়া হচ্ছে, তা যেন ঠিকমতো সুবিধাভোগীর কাছে পৌঁছায়; মাঝে যেন কেউ না থাকে। এটা নিশ্চিত করতেই ডিজিটাল ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এই পদ্ধতিতে টাকা পৌঁছানোর ব্যবস্থা স্বচ্ছতা নিয়ে এসেছে বলেও জানান সরকার প্রধান। তিনি বলেন, পল্লী অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে বদ্ধপরিকর সরকার।

তিনি জানান, মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে দেশের প্রতিটি ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষকে আবাস গড়ে দিতে চায় সরকার।

দেশের কোনো মানুষ যাতে অধিকারহীনতায় না ভোগে, তা নিশ্চিত করতে কাজ করা হচ্ছে।

rail-cox.jpg

রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই কক্সবাজার পর্যন্ত রেল লাইনের কাজ সম্পন্ন হবে এবং ঢাকা থেকে সরাসরি কক্সবাজার ট্রেন চালু হবে। বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) কক্সবাজারে আইকনিক রেলওয়ে স্টেশন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে গিয়ে এ ঘোষণা দেন রেলমন্ত্রী।

তিনি বলেন, প্রকল্পের মেয়াদ ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত ধরা হলেও বাকি ছয় মাস হাতে রেখেই ঘোষণা করছি আগামী বছরেই মানুষ কক্সবাজারে ট্রেনে করে আসতে পারবে।

রেলপথমন্ত্রী এ সময় বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবহেলিত রেলখাতকে গুরুত্ব দিয়ে এর ব্যাপক উন্নয়ন করছেন। তিনি আলাদা মন্ত্রণালয় করে দিয়েছেন। রেলওয়েতে এখন অনেক প্রকল্প চলমান আছে। মূলত ২০১১ সালের পর থেকেই রেলওয়েকে পুনর্গঠিত করার কাজ শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারের ১০টি মেগা প্রকল্পের মধ্যে দুটি হচ্ছে বাংলাদেশ রেলওয়ের। যার একটি হচ্ছে দোহাজারী থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত নতুন রেললাইন নির্মাণ প্রকল্প।

এ প্রকল্প সম্পর্কে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে কক্সবাজার থেকে রামু হয়ে মিয়ানমারের কাছে গুনদুম পর্যন্ত নেওয়া হবে এবং যা চীন পর্যন্ত সম্প্রসারিত হবে। মন্ত্রী উল্লেখ করেন কক্সবাজার রেললাইন চালু হলে পর্যটনের ব্যাপক প্রসার ঘটবে। দেশের অগ্রগতিতে পর্যটন খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, এই প্রকল্পটি পরিকল্পনা মাফিক করা হচ্ছে। আইকনিক স্টেশন ভবনটি আন্তর্জাতিক মানে তৈরি হবে এর মাধ্যমে দেশি-বিদেশি প্রচুর পর্যটক আসবে। এ আইকনিক ভবনটিতে আন্তর্জাতিক মানের সকল সুবিধা  রাখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে কক্সবাজারে ঝিনুকের আদলে একটি আইকনিক রেলওয়ে স্টেশন ভবন নির্মিত হচ্ছে। ৬ তলা বিশিষ্ট এ ভবনে সকল সুবিধা রাখা হবে।

ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য জাফর আলম, সাইমুম সরওয়ার কমল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা আহমেদ, রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলি, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ সেলিম রেজা বক্তব্য রাখেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশে রেলওয়ের মহাপরিচালক শামসুজ্জামান।

mike-pompei.jpg

সম্প্রতি বাংলাদেশ নিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর মন্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ।

বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, পম্পেও বলেছেন বাংলাদেশ এমন একটি জায়গা যেখানে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আল-কায়দা হামলা চালিয়েছিল, ভবিষ্যতে এমন হামলার আশঙ্কা রয়েছে। একজন সিনিয়র নেতার এমন দায়িত্বহীন মন্তব্য দুঃখজনক ও অগ্রহণযোগ্য।

বাংলাদেশ দৃঢ়ভাবে এমন ভিত্তিহীন মন্তব্য ও মিথ্যাচার প্রত্যাখ্যান করছে। বাংলাদেশে আল-কায়দার উপস্থিতির কোনো প্রমাণ নেই।

বাংলাদেশ শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে যে কোনো সন্ত্রাসবাদ ও হিংস্র উগ্রবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ এবং এই বিপর্যয় মোকাবিলায় সম্ভাব্য সব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

সন্ত্রাস মোকাবিলায় আমাদের ট্রাক রেকর্ড বিশ্বজুড়ে প্রশংসা কুড়িয়েছে। সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় আমাদের প্রতিশ্রুতি অনুসারে আমরা ১৪টি আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ বিরোধী সম্মেলনের একটি পক্ষ হয়েছি। সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে আন্তর্জাতিক ‘প্রতিরোধমূলক’ উদ্যোগের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত রয়েছি।