বিনোদন Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

sabnam.jpg

সাম্প্রতিক সময়ের আলোচিত ছবি ‘দেবী’ খ্যাত অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার আকদ হয় গত বছর। এখন তিনি সংসার সাজানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এশিয়াটিক জে ডব্লিউটি’র ম্যানেজার হারুনুর রশীদ অপুর সঙ্গে দুই বছরের সম্পর্কের পরিনতি টানেন ফারিয়া পরিবারের সম্মতি নিয়েই। আগামী মাসের প্রথম দিন তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। এরপরই শুরু করবেন টোনাটুনির সংসার।

বিয়ের দিনক্ষণ যতই ঘনিয়ে আসছে, ততোই ফারিয়ার মনে পড়ছে তার প্রয়াত বাবাকে। সেই কথা উল্লেখ করে নিজের ফেসবুক পেজে রোববার এক হৃদয়ছোঁয়া স্ট্যাটাস দেন তিনি। তার দেওয়া স্ট্যাটাসটি অনেকের মন ভিজিয়েছে।

শবনম ফারিয়ার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘যে দিনটি দেখার জন্য তুমিই সবচেয়ে বেশি অপেক্ষা করেছ, সেই দিনটি এগিয়ে আসছে; কিন্তু অদ্ভুতভাবে তুমিই নেই। প্রতিটা ঘটনা ঘটে, আর আমি কল্পনা করার চেষ্টা করি- তুমি থাকলে কী কী হতো! তুমি আমার হাতে মেহেদি দেখলে কী বলতে কিংবা বিয়ের শাড়ি কেনার সময় তোমার অবজারভেশন কী থাকত, তুমি মেহমানদের কী খাওয়াতে চাইতে, তুমিও কি সবুজ পাঞ্জাবি পরতে? কিংবা সব সময়ের মতো তুমি চাইতে মান্না দের কিছু গান বাজুক অথবা সবার অনুরোধে তুমিও কি দুলাইন কবিতা শোনাতে? বাবা, মা গল্প বলে- ছোটবেলা তুমি অফিসের কাজে বাসার বাইরে থাকলে আমি খুব বিরক্ত করতাম, খেতে চাইতাম না, তোমার আবৃত্তি শুনিয়ে খাওয়াতে হতো! আমার না ভীষণ তোমার কণ্ঠ শুনতে মন চায়। কী আজব দুনিয়ার নিয়ম। যে ঘটনায় যার সবচেয়ে বেশি খুশি হওয়ার কথা, তাকে ছাড়াই সব আনন্দ, সব আয়োজন! কী নিষ্ঠুর পৃথিবীর নিয়ম।’

imrank8.jpg

পাঁচ সদস্য নিয়ে সংগীতশিল্পী ইমরান মাহমুদুল নতুন ব্যান্ড দল গড়লেন। তিন বছর ধরে একসঙ্গেই পথচলা তাঁদের। নিজেরা দেশ–বিদেশে অসংখ্য শো করে সফলও হয়েছেন। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে সদস্যদের নিয়ে ব্যান্ড দলের নাম ঘোষণা দিলেন এই সংগীতশিল্পী। নাম ‘আই–কিংস’। গত শনিবার রাতে এই ব্যান্ডের নাম ঘোষণা দেন ইমরান। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতে নতুন আরেকটি ব্যান্ড দলের নাম যুক্ত হলো। ব্যান্ডটির সদস্যরা হলেন ভোকাল ও দলপ্রধান ইমরান, লিড গিটার জিতু, বেজ গিটার জনি, কি–বোর্ড কাইয়ূম ও ড্রাম মিঠু।

অনেক দিন ধরেই গান করেন ইমরান। তরুণদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়ও তিনি। ব্যান্ড গড়া প্রসঙ্গে ইমরান বলেন, ‘আমরা তিন থেকে চার বছর ধরে একসঙ্গে কাজ করছি। দেশ-বিদেশে প্রচুর শো করেছি। সফলও হয়েছি। এত দিন একসঙ্গে কাজ করার পর মনে হয়েছে আরও সংগঠিতভাবে গান নিয়ে আমাদের কাজ করা উচিত। ব্যান্ড দল গড়ার মধ্য দিয়ে কাজ করা গেলে আরও পরিকল্পনা করে গানকে এগিয়ে নেওয়া যাবে। নিজেদের একটা বড় পরিচয়ও হবে। এখন আমরা আই-কিংস নিয়ে একসঙ্গে পথ চলতে চাই। ব্যান্ড দলের পরিচয়ে দেশ-বিদেশে আরও শো করতে চাই।’

ব্যান্ড দল থেকে এই মুহূর্তে কোনো অ্যালবাম করার পরিকল্পনা আছে কি না—জানতে চাইলে ইমরান বলেন, ‘অবশ্যই অ্যালবাম করার পরিকল্পনা আছে। সবেমাত্র ব্যান্ড দলের নাম ঘোষণা করা হলো। এখন পরিকল্পনা করে কাজ করব। ভালো কাজ দিয়ে প্রথম অ্যালবামটি শ্রোতাদের উপহার দিতে চাই। এ জন্য একটু সময় নিয়ে, পরিকল্পনা করে প্রথম অ্যালবামের কাজ শুরু করব।’

Karina-kapur.jpg

ভারতে সেলিব্রেটিদের রাজনীতিতে আসা ও জনপ্রতিনিধিত্ব করার রেওয়াজ বহু দিনের।ক্রিকেট ও চলচ্চিত্রাঙ্গনের অনেকেই এই পথ মাড়িয়েছেন।তাদের অনেকে ভোট করে জিতেছেনও।

এবার সেই তালিকায় যুক্ত হচ্ছেন বলিউড সেনসেশন কারিনা কাপুর। শোনা যাচ্ছে কংগ্রেসের টিকিটে লোকসভা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন এই সুদর্শনী।কংগ্রেস চাইছে মধ্যপ্রদেশ থেকে তাদের মনোনয়ন নিয়ে ভোট করুক কারিনা। পতৌদি পরিবারের এই পূত্রবধূকে নির্বাচন করার প্রস্তাব দিয়ে রেখেছে কংগ্রেস।মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা গুড্ডু চৌহান এবং আনিস খান দলের কাছে এই প্রস্তাব রেখেছেন। তাঁদের প্রস্তাব, কারিনা ভোপাল থেকে নির্বাচন করুক। কংগ্রেস চাইছে কারিনার সেলিব্রেটি ইমেজ ভোটে কাজে লাগুক। তরুণ ও যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে কারিনাকে নিয়ে একটা ক্রেজ রয়েছে। প্রচুর অনুরাগীও রয়েছে তাঁর। ভোটে দাঁড়াতে তরুণ সম্প্রদায় কংগ্রেসের পক্ষ থাকবে।

কিংবদন্তি ক্রিকেটার মনসুর আলি খান পতৌদির পুত্রবধূ করিনা, বলিউড নায়ক সাইফ আলী খানের স্ত্রী। এই ভোপালেই পতৌদির জন্ম। তাঁর ঠাকুরদা ছিলেন ভোপালের নবাব। তাই পতৌদি পরিবারের প্রতি ভোপালের মানুষের আলাদা শ্রদ্ধা রয়েছে।

এই সুযোগটাও কাজে লাগাতে চাচ্ছে কংগ্রেস।রাজ্যর মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের সায় আছে কারিনার প্রতি।

জানা গেছে, পতৌদি পরিবারও কংগ্রেস ঘেষা।মনসুর আলী খান পতৌদি ১৯৯১ সালে ভোপাল থেকেই লোকসভা নির্বাচনে লড়েছিলেন কংগ্রেসের টিকিটে। যদিও তিনি হেরে যান। বিজেপির সুশীলচন্দ্র বর্মার কাছে এক লাখ ভোটের ব্যবধানে হেরে যান।সেই আক্ষেপ মেটাতে চাইবে পতৌদি পরিবারও।

fagunhawa.jpg

নির্মাতা তৌকীর আহমেদ জানান, ছবির গল্প ১৯৫২ সাল আর ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে ওই সময় বাংলাদেশের এক মফস্বল শহরের গল্প তুলে ধরা হয়েছে এ ছবিতে। খুলনার পাইকগাছা ও এর আশেপাশের এলাকায় ও সেখানকার বিশাল খোলা প্রান্তরের জনপদেই ‘ফাগুন হাওয়ায়’ সিনেমার শুটিং হয়।

ছবিতে অভিনয় করেছেন তিশা, সিয়াম আহমেদ, বলিউড অভিনেতা যশপাল শর্মা, ফজলুর রহমান বাবু, আবুল হায়াৎ, আফরোজা বানু, ফারুক হোসেন, সাজু খাদেম, রওনক হোসেন আজাদ সেতু, আবদুর রহিম, হাসান আহমেদ প্রমুখ।

paoli-20190121115121.jpg

এক বছরের বেশি হয়ে গেল বিয়ে করেছেন মনের মানুষ খ্যাত কলকাতার বাঙালি নায়িকা পাওলি দাম। ব্যক্তিগত জীবন এবং ক্যারিয়ার দু’টোই ব্যালেন্স করে চলছেন নায়িকা। ঘর সামলানো আর পেশার পাশাপাশি মাঝেমধ্যে সময় বের করে নেন পাওলি। তাইতো এবার শাশুড়ি মায়ের সঙ্গে তাকে দেখা গেল মন্দিরে পূজা দিতে। শ্বশুরবাড়ির সকলের সঙ্গেই তার সম্পর্ক খুবই ভালো বলে জানে সকলে।

পাওলির শ্বশুরবাড়ি গুয়াহাটিতে। তার স্বামী অর্জুন পেশায় ব্যবসায়ী। সম্প্রতি গুয়াহাটি থেকে কামাক্ষ্যা মন্দিরে পূজা দিতে গিয়েছিলেন পাওলি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় কামাক্ষ্যা মন্দিরের সিঁড়িতে শাশুড়ির সঙ্গে বসে একটি ছবি শেয়ার করেছেন নায়িকা। তিনি লিখেছেন, ‘জীবনের ধাপ। মা কামাক্ষ্যার আশীর্বাদ নিলাম। আধ্যাত্মিক এক মুহূর্তে সঙ্গী শাশুড়ি মা।’

মনোজ মিশিগান পরিচালিত পাওলি অভিনীত ‘তৃতীয় অধ্যায়’ রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। ‘বেডরুম’-এর পর ফের এই ছবিতে আবির চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন তিনি। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী মাসেই মুক্তি পাবে এই ছবি।

shakib-bipasa-20190120120250.jpg

‘এর আগেও সুপারস্টার শাকিব খানের সঙ্গে দুটি আইটেম গানে কাজ করা হয়েছে। অনেক দিন পর শাকিব ভাইয়ার সঙ্গে  ফের কাজ করছি। এবারের গানটির কথা দারুণ। আশা করছি, দর্শকদের আইটেম গানটি ভালো লাগবে।’ বলছিলেন লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার বিপাশা কবির।

বিপাশা কবির

নির্মাতা শাহিন সুমন পরিচালিত ‘ভালোবাসার রং’ ছবিতে আইটেম গান দিয়ে চলচ্চিত্রে পা রাখেন তিনি। এরপর প্রায় ৫০টির বেশি ছবির আইটেম গানে পারফর্ম করেছেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় শাকিব খানের ‘একটু প্রেম দরকার’ ছবির আইটেম গানে পারফর্ম করলেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের বিপাশা কবির। শনিবার এফডিসির ৩নং ফ্লোরে আইটেম গানটির শুটিং চলছিল। ছবিটি পরিচালনা করছেন নির্মাতা শাহিন সুমন। ‘একটু প্রেম দরকার’ সিনেমায় বিপাশা ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন শবনম বুবলী ও রোদেলা জান্নাত প্রমূখ।

13-11.jpg

অভিনেতা ও নাট্য নির্দেশক তারিক আনাম খান এবং অভিনেত্রী নিমা রহমানের ছেলের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে। বরেণ্য এ জুটির একমাত্র ছেলে আরিক আনাম খান (দীপ্র) বিয়ে করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এগনেস র‌্যাচেল প্যারিস প্রিয়াংকাকে।

দুই ধর্মমতে বিশ্বাসী এই দুজনের বিয়ে হয়েছে মুসলিম ও খ্রিষ্টান রীতিতে। গত বৃহস্পতিবার সকালে তাঁদের আক্দ হয়েছে বনানীর একটি রেস্তোরাঁয়। আর রমনা চার্চে খ্রিষ্টান রীতিতে বিয়ে হয়েছে শনিবার।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা সেনানিবাসের সেনাকুঞ্জে তাঁদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।ওই অনুষ্ঠানে তারার মেলা বসে।সিনেমা, নাটক, নৃত্যপাড়ায় এক ঝাঁক অভিনেতা-অভিনেত্রীর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানস্থল হয়ে উঠে আন্দনঘন।

পূর্ব পরিচিত এই দুজনের বিয়ে হয়েছে পারিবারিক সম্মতিতেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা অনুষদের প্রভাষক প্রিয়াংকার সঙ্গে আরিক আনাম খানের পরিচয় ২০১৫ সালে। এরপর দুই পরিবার তাঁদের বিয়েতে সম্মতি দেয়।

তারিক-নিমা দম্পতির একমাত্র ছেলে আরিক আনাম লন্ডন ফিল্ম স্কুল থেকে ডিরেকশনের ওপর স্নাতকোত্তর করেছেন। তিনি নিজেও মঞ্চ ও টিভি নাটকে অভিনয় করছেন।

আরিক আনাম জানান, তাঁর স্ত্রী প্রিয়াংকা নৃত্যশিল্পী। তিনি এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগের প্রভাষক। নাচের ওপর পড়াশোনা করেছেন কলকাতার রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেথে। সেখান থেকে তিনি স্নাতকোত্তর ও এমফিল করেছেন। একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

meh-apu.jpg

সময়ের জনপ্রিয় জুটি অপূর্ব ও মেহজাবীন চৌধুরীকে ফের এক ফ্রেমে দেখতে পাবেন দর্শক। ভালোবাসা দিবসের একটি টেলিফিল্মে এ দুজনকে দেখা যাবে।

টেলিফিল্মটির নাম ‘মনে প্রাণে’। জাফরীন সাদিয়ার রচনা ও প্রযোজনায় এটি নির্মাণ করেছেন রুবেল হাসান।
নির্মাতা জানান, টেলিফিল্মটিতে দর্শক দেখতে পাবেন এক অনুপ্রেরণার অকৃত্রিম গল্প। অনুপ্রেরণা ও ভালোবাসার গল্পের মিশ্রনে নাটকটি হয়ে উঠবে অনন্য। সঙ্গে থাকবে জীবনযুদ্ধের গল্প। সব মিলিয়ে টেলিফিল্মটির গল্প হবে বাস্তবধর্মী। দর্শক জীবনের গল্প খুঁজে পাবেন এতে।
অপূর্ব ও মেহজাবীনের পাশাপাশি টেলিফিল্মটিতে আরও অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ।

রাজধানীর বিভিন্ন লোকেশনে টেলিফিল্মটির শুটিং হয়েছে। শুটিং শেষ পর্যায়ে। ১৪ ফেরুয়ারি ভালোবাসা দিবসে দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে টেলিফিল্মটি সম্প্রচার হবে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে গল্পকার জাফরীন সাদিয়া গণমাধ্যমে জানান, দর্শকরা জীবনের সঙ্গে টেলিফিল্মের চরিত্র মিল খুঁজে পাবেন। গল্পে কোনোরকম দুর্বল দিক নেই। আশা করি দর্শকপ্রিয়তা পাবে টেলিফিল্মটি।

এর আগে মেহজাবীন ও অপূর্ব জুটির বড় ছেলে নাটকটি সব শ্রেণীর দর্শকদের প্রশংসা কুড়িয়েছিল।

toimur-20190119175913.jpg

বলিউডের নায়ক-নায়িকা দম্পতি সাইফ আলি খান-কারিনা কাপুরের ছেলে তৈমুর নানা বিষয় নিয়ে সব সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় থাকে। বাবা-মা তাকে সঙ্গে নিয়ে কোথায় যাচ্ছেন? কি করছেন? পাপারাজ্জিদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছে সব। সেই সব ছবি প্রকাশের পরপরই ভাইরাল হয়।

জন্ম হওয়া থেকে আজ পর্যন্ত, তৈমুর কী করছে, কোথায় যাচ্ছে, কী পরছে, কী খাচ্ছে সবই প্রকাশ হয়েছে সংবাদমাধ্যম বা সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যা বড় বড় তারকাকেও হার মানিয়েছে। এক কথায় সবার চোখের মণি ছোট্ট তৈমুর। এই জনপ্রিয়তা নিয়ে রিতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন সাইফ-কারিনা দম্পতি।

তাই ছোট্ট নবাবের নিরাপত্তায় এবার একজন বডিগার্ড রাখলেন সাইফ-করিনা। সম্প্রতি একজন বডিগার্ডকে তৈমুরের আশপাশে দেখা যায়। এমনকী, গাড়ি থেকে নেমে খেলতে গেলেও, তার আশপাশে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায় তাকে। ছেলের নিরাপত্তার জন্য তারা যে একেবারেই আপোষ করতে রাজি নন, তা এবার ইঙ্গিতে বুঝিয়েই দিলেন নবাব এবং তার বেগম সাহেবা।

সাম্প্রতিক এক ছবিতে তৈমুরের পাশে নিরাপত্তারক্ষী দেখে বেশ গুঞ্জন শুরু হয়েছে। কিন্তু, সাইফ-কারিনা এখনও এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। বলিউডে কোনো তারকার সন্তানের জন্য বডিগার্ড রাখার নজির এই প্রথম।

তবে, বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান খানের সঙ্গে শেরা নামের একজন বডিগার্ডকে দেখা যায়। প্রত্যেক মাসে কয়েক লক্ষ টাকা বেতন পান তিনি। বলিউড ‘ভাইজান’-কে রক্ষা করতে, সব সময় হাজির শেরা। সালমান খানের নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েনের এই গল্প প্রায় সবারই জানা। কিন্তু, বলিউডে এবার তৈমুরের জন্য নিরাপত্তারক্ষী রাখার খবরে চমকেছেন অনেকেই।

salman6.jpg

সম্প্রতি অভিনয়শিল্পী সালমান মুক্তাদিরের বাসার সামনে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলামের ভাঙচুর করার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। এ বিষয়ে ফেসবুকে ভিডিও বার্তায় কথা বলেন জেসিয়া ইসলাম।

শনিবার (১৯ জানুয়ারি) বিষয়টি নিয়ে ভিডিও বার্তা দিয়েছেন সালমান মুক্তাদিরও। সালমান মুক্তির বলেন, ‘আমি কোন ব্যাখ্যা দিবো না। আমি শুধু একটা কথাই বলতে চাই, আমি কোন প্রতারণা করিনি। এটার জন্য আমার কোন প্রমাণ দিতে হবে না।

কারণ, গত এক বছরে এই সম্পর্কের জন্য আমি যে পরিমাণ নিজেকে পরিবর্তন করেছি, যে পরিমাণ সময় অপচয় করেছি সেটা আমি জানি, আপনারাও জানেন। গত এক দেড় বছরে আপনারাও পরিবর্তনটা দেখেছেন।’

তিনি বলেন, ‘মানুষকে নিয়ে যতটুকু আমরা টানাটানি করতে পারি আমাদের তাতে মজা লাগে। আমাদের লাইভে কাজকর্ম অনেক কম, আশা অনেক কম। ট্রাফিকে বসে থাকার চেয়ে বেশি আমাদের কিছু করার নেই। তাই ইন্টারনেটে যতটুকু খুত বের করে ভালো অনুভব করার যায় সেটাই আমরা করি।’

জেসিয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জেসিয়া তার কাজের জন্য ক্ষমা চেয়েছে। সে যেটা করেছে সেটা কিছু সহিংস, এজন্য সে ক্ষমা চেয়েছে। আম্মুকে ফোন দিয়েছে, সে সবাইকে ফোন দিয়েছে, ভিডিওতে সে ক্ষমা চেয়েছে। এছাড়া সে আর কী করতে পারে যাতে আপনাদের কাছ থেকে সে ক্ষমা পেতে পারে। সে এবং আমি দু’জনই জানি না কীভাবে সে ক্ষমা পেতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘বিষয়টা এখানেই থামানো উচিৎ। আমি মানসিকভাবে অনেক শক্ত। আমি অনেক কিছু নিতে পারি, অনেক ঘৃণা নিতে পারি কিন্তু সবাই এটা নিতে পারে না। আমি সবার কাছে অনুরোধ করবো তাকে নিয়ে ট্রল করা বন্ধ করুন।’

জেসিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের অবনতির বিষয়ে ব্যাখ্যা না দেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ব্যাখ্যা করতে গেলে কেন ওইদিন আমার আব্বু-আম্মু কান্নাকাটি করছিলেন, কেন আমি কথা বলছিলাম না, কেন সে আমার বাসায় আসলো, কেন আমি কয়েকদিন আগে ব্রেকআপ করেছি সবকিছু টেনে এখানে একটা ড্রামা তৈরি করা খুবই অপ্রয়োজনীয়। এটা ব্যক্তিগত বিষয়। আর এটা করতে গেলে আমি আমাকে সেভ করে জেসিয়াকে সমস্যায় ফেলতে পারি না। আমি তাকে আমার নিজের জন্য বিব্রত করতে পারবো না।’

‘তবে হ্যাঁ, যারা আমাকে বিশ্বাস করে আমি তাদের বলবো, আমি কোন প্রতারণা করিনি। আমার অতীতের বিষয়ে আমি সৎ ছিলাম। আমি এত বাজেভাবে সৎ ছিলাম যে, আমার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুলগুলো আমি বলে দেই। কারণ আমি ভেবেছিলাম, অনেস্টি ইজ দ্যা বেস্ট পলিসি। আমি সরি, এটার ব্যাপারে আমি ভুল ছিলাম। অনেস্টি ইজ নট দ্যা বেস্ট পলিসি।’

যে মেয়েই তার জীবনে আসুক না কেন তার অতীতের কথা জেনে তাকে কোনভাবেই আর বিশ্বাস করবেন না বলেও স্বীকার করেন সালমান মুক্তাদির। জেসিয়ার পক্ষে সুর দেয়ার পাশাপাশি পুরো বিষয়টির জন্য সামলান দায়ী করেন ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি যিনি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছেন তাকে।

এর আগে শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) ফেসবুকে দেয়া ভিডিও বার্তায় জেসিয়া বলেন, ‘সেদিন আমি ওভার রিয়্যাক্ট করেছি, এটা করা ঠিক হয়নি। প্রতিটা সম্পর্কে ভুল বোঝাবুঝি কিংবা ঝগড়া হয়ে থাকে। যা হোক, যে সেদিন ভিডিওটা রেকর্ড করে ফেসবুকে ছেড়েছে, তাকে অনুরোধ করব পরবর্তী সময়ে কোনো ভিডিও যেন সে না ছাড়ে। আপনার জীবনে কিংবা পরিবারে যদি সমস্যা হয়, সেটা আপনি রেকর্ড করতে পারেন না।’

জেসিয়া আরও বলেন, ‘দয়া করে পুরো ঘটনা না জেনে ফেসবুকে কিছু শেয়ার করবেন না। সেদিন আমার রাগ নিয়ন্ত্রণ করার দরকার ছিল, যেটা আমি করিনি। শুরু থেকে আমি আমার ভালো ভাবমূর্তি ধরে রাখতে পারিনি। ভবিষ্যতে আমি ভালো কিছু করতে চাই, যেটা দেখে সবাই গর্ববোধ করবে।’

প্রসঙ্গত, এর আগে জেসিয়া ইসলাম মাঝরাতে প্রেমিক সালমান মুক্তাদিরের বাড়িতে যান। এসময় নিরাপত্তারক্ষীদের দরজা খুলতে বললে তারা সেটি খুলেন না। এরপরই জোরে জোরে দরজা পেটাতে শুরু করেন জেসিয়া। এক পর্যায়ে নিচে নেমে আসে সালমানের মা। তাকে দরজা খুলতে বলা হলে তিনিও সেটি খুলেন না। এরপর ইট দিয়ে ভাঙচুর শুরু করেন জেসিয়া। এমনকী অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করেন তিনি।

২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিজয়ী হয়ে তারকাখ্যাতি লাভ করেছেন জেসিয়া। অপরদিকে ইউটিউবার হিসেবে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেন সালমান মুক্তাদির।