top5 Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

amitshah5.jpg

শীতলকুচিতে ভারতের কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলি চালনার পিছনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অমিত শাহের চক্রান্ত রয়েছে বলে দাবি করে শনিবার তার পদত্যাগ দাবি করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রোববার মমতার ওই দাবির জাবাবে অমিত শাহ বলেন, ‘জনগণ চাইলে আমি পদত্যাগ করব।’

অমিত শাহের এই বক্তব্য ইঙ্গিতবহ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

রোববার রাজ্যে ভোটপ্রচারে এসে বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে এক জনসভায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘মানুষ যখন চাইবে তখন আমি ইস্তফা দেব। তবে ২ মে আপনি ইস্তফা দেওয়ার জন্য তৈরি থাকুন।’

অমিত শাহ বলেন, ‘মমতা দিদির প্ররোচনামূলক বক্তব্যের জন্যই শীতলকুচিতে গুলি চালানোর মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।’

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, ভোট–চতুর্থীর সকালে রক্তাক্ত হয়েছে কোচবিহার। তার জেরে মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের। তাঁদের মধ্যে ৪ মুসলমানের নিহত হয়েছেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে।

রমজান উপলক্ষ্যে সরকারি চিনির দাম কেজিপ্রতি ৩ টাকা বাড়ানো হয়েছে। ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া প্যাকেটজাত চিনি ৬৮ টাকায় বিক্রি করবে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি)। পাশাপাশি মিল এলাকায় খোলা চিনি কেজিপ্রতি ৬০ টাকা থেকে থেকে বাড়িয়ে ৬৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে বিএসএফআইসির চিনি বিক্রয় কার্যক্রম নিয়ে রোববার ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন।

সূত্র জানায় ৬ এপ্রিল চিনির দাম প্রতিকেজি তিন টাকা বৃদ্ধি করে বিএসএফআইসি। দুমাস ধরে রাজধানীর খোলা বাজারে আমদানি করা চিনিও বেশি দরেই বিক্রি হচ্ছে। সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) সূত্র বলছে, সর্বশেষ গত এক মাসের ব্যবধানে প্রতিকেজি চিনি ২ দশমিক ২২ শতাংশ দাম বৃদ্ধি পেয়ে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলেন, দেশে চিনির বার্ষিক চাহিদা ১৮ লাখ টন। এর মধ্যে রমজান মাসে চাহিদা তিন লাখ টন। আর এই তিন লাখ টন চিনি নিয়ে একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী প্রতিবছর রমজান সামনে রেখে নানা অজুহাতে দাম বাড়িয়ে দেয়। এমন পরিস্থিতিতে সরকারি চিনির দাম বৃদ্ধিতে বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

সূত্র জানায়, রমজান মাসে অসাধুদের কারসাজি রোধে চাহিদা বিবেচনায় রেখে প্রতিবছর এক থেকে এক লাখ ২০ হাজার টনের মতো চিনি সরকার মজুত রাখে। তবে এ বছর মজুত বেশ কম। তা ছাড়া সরকারি ছয়টি চিনিকল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাকিগুলোর উৎপাদনও সন্তোষজনক নয়। ফলে এবার রমজান সামনে রেখে সরকারি পর্যায়ে চিনির মজুত নেমে এসেছে ৫০ হাজার টনে।

প্রথমবারের মত দেশে এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। সোমবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন মূল্য ঘোষণা হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জলিল। দাম ঘোষণার বিষয়ে রোববার বিইআরসির ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, দেশে এলপিজির মূল্য নির্ধারণে গত জানুয়ারিতে প্রথম গণশুনানি করে জ্বালানি খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এর তিন মাসের মধ্যে মূল্য ঘোষণা করা হচ্ছে। নতুন মূল্য আইপিপির (ইমপোর্ট প্যারিটি প্রাইস) ভিত্তিতে নির্ধারণ করা হচ্ছে বলে জানান চেয়ারম্যান। এলপিজির ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো বিশ্বের বৃহত্তম তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর দরকে ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করে।

এলপিজির দাম কত হতে পারে, এমন প্রশ্নের জবাবে বিইআরসির চেয়ারম্যান বলেন, আমরা ন্যায়বিচার দেয়ার চেষ্টা করেছি। মূল্য সকলের কাছে গ্রহণীয় ও সহনীয় যেন হয় সেই চেষ্টাও করেছি। যে সকল বিষয়াদি বিবেচনায় নেয়া দরকার, আইন ও বিধিবিধান অনুযায়ী সবই নেয়া হয়েছে। মূল্যহার নির্ধারণের প্রস্তাবে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এলপিজিএল সাড়ে ১২ কেজি দাম ৬০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭০০ টাকা প্রস্তাব করে।

গণশুনানিতে বিইআরসির কারিগরি কমিটি সারাদেশে একই মূল্যে বিক্রির সুবিধায় এর সঙ্গে ‘ক্রস সাবসিডি ফান্ডের’ অর্থ যোগ করে ৯০২ টাকা করার প্রস্তাব করে। ভর্তুকি বাবদ ৩৩৩ টাকা যোগ করা না হলে দাম দাঁড়ায় ৫৬৯ টাকা। তবে শুনানিতে ক্যাবের প্রশ্নের জবাবে ভর্তুকি বাবদ ওই অর্থ যোগ করার প্রয়োজন নেই বলে জানান সরকারি কোম্পানি এলপিজিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান খান। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো এখন সম্মিলিত সিদ্ধান্তে প্রতি কেজি ১০৪ টাকা ৯৩ পয়সা হিসেবে বিক্রি করছে বলে প্রস্তাবে উল্লেখ করে। বিইআরসি এই মূল্য ৭২ টাকা ২৪ পয়সা সুপারিশ করে।

এছাড়া ১২ কেজি এলপিজি সিলিন্ডার খুচরা পর্যায়ে এক হাজার ২৫৯ টাকা করার প্রস্তাব করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো, যা কারিগরি কমিটির বিবেচনায় ৮৬৬ টাকা হতে পারে বলে মত দিয়েছে।

এছাড়া ৩৫ কেজির সিলিন্ডারের দাম ২ হাজার ৫২৫ টাকা, ৪৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৩ হাজার ২৪৬ টাকা করার প্রস্তাব করে কারিগরি কমিটি। কমিটির ভাষ্য, সৌদি আরামকো কোম্পানির সিপি প্রতি টন ৫৩৮ ডলার বিবেচনায় নিলে ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম দাঁড়ায় ৯৫৪ টাকা। বর্তমান ৩৫৬ ডলার বিবেচনায় নিলে দাম হয় ৭৫৮ টাকা।

ramadan-24220180519112933.jpg

মহামারির মধ্যেই দেশে দেশে চলছে পবিত্র মাহে রমজানের প্রস্তুতি। রোজার আগেই বিভিন্ন দেশে আরোপ করা হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ। তাই পবিত্র মাস শুরুর আগেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনাকাটায় ব্যস্ত মুসলিম সম্প্রদায়। তারা এই পবিত্র মাসে শান্তির আহ্বান জানিয়েছেন।

করোনার নতুন ঢেউয়ে টালমাটাল বিশ্ব। এর মধ্যেই উঁকি দিচ্ছে পবিত্র মাহে রমজান। সংক্রমণ বাড়ায় এবার মার্কেট, শপিংমল সব জায়গায়ই আরোপ করা হয়েছে বিধিনিষেধ। এরমধ্যেই মাহে রমজানের প্রস্তুতি হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের শপিংমলগুলোতে লোকজনকে দেখা গেছে ব্যস্ত কেনাকাটায়। রমজান উপলক্ষে নিত্যপণ্যের দাম কমে যাওয়ায় খুশি ক্রেতারা।

ক্রেতারা বলেন, আমরা দীর্ঘ এক বছর এই পবিত্র মাসের জন্য অপেক্ষা করি। তাই রমজান শুরু হওয়ার আগেই প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে এসেছি।

করোনায় আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক অবস্থা ধ্বংসের পথে। এ অবস্থায় রমজানে আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার আশা করছেন ব্যবসায়ীরা। পবিত্র মাসে সহিংসতা বন্ধেরও প্রার্থনা আফগানদের।

আফগান ব্যবসায়ীরা বলেন, রমজান আমাদের জীবনে শান্তি ও সমৃদ্ধি বয়ে আনুক। এই পবিত্র মাসে সরকার ও তালেবান সমঝোতা করলে শান্তি ফিরে আসবে আফগানিস্তানে।

এদিকে, রোজা শুরুর আগের সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ভিড় ছিলো ইন্দোনেশিয়ার মার্কেটগুলোতে। রজমানের আগেই স্বজনদের কবর জিয়ারত করেছেন পরিবারের সদস্যরা। অন্যান্য বারের মতো এবারও দেশটিতে সর্ব প্রথম মাহে রমজানের চাঁদ দেখা যাবে বলে আশাবাদী স্থানীয়রা।

করোনার ভয়াবহতায় সীমিত আকারে মাহে রমজানের প্রস্তুতি চলছে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ ইরাকে। এদিকে, অর্থনৈতিক মন্দার পরও ফিলিস্তিনের মার্কেটগুলোতেও মানুষের আনাগোনা ছিলো লক্ষণীয়।

এদিকে, কোভিড উনিশে বিপর্যস্ত পাকিস্তানে রোজা শুরুর আগে নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে।

hijab-indian-women.jpg

ফ্রান্সের সিনেটে ১৮ বছরের কম বয়সী মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে হিজাব পরা নিষিদ্ধের প্রস্তাব পাস হয়েছে। বিতর্কিত এই বিল পাসের পর সেটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে।

সম্প্রতি পাস হওয়া বিলটির বিরুদ্ধে হ্যান্ডসঅফমাইহিজাব হ্যাশট্যাগে প্রতিবাদে শামিল হচ্ছেন অনেকে। খবর আলজাজিরার

প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোন এর আগেই মুসলিম মেয়েদের হিজাব নিষিদ্ধের কথা জানিয়েছিলেন। এরপরই বিলটির পক্ষে ভোট দিয়েছে সিনেট। বিলটি আইনে পরিণত হলে ১৮ বছরের কম বয়সী ফ্রান্সের মুসলিম মেয়েদের জনসমক্ষে হিজাব পরা নিষিদ্ধ হবে।

এ ছাড়া যেসব অভিভাবক ধর্মীয় পোশাক পরেন তাদের ওপর কোনো স্কুলে ভ্রমণ, পাবলিক সুইমিং পুলে যাওয়া বা এ জাতীয় আরও কিছু কাজে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

এই আইনকে ‘বিচ্ছিন্নতাবাদবিরোধী’ বিল হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়ে ধর্মনিরপেক্ষ ব্যবস্থা সমাজে চালু করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই আইনের কঠোর বিরোধিতা করেছেন বহু মানুষ। অনেকে এই আইনকে ‘ইসলামবিরোধী আইন’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। এর মাধ্যমে মুসলিম সংখ্যালঘুদের একপেশে করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করছেন তারা।

Dhaka-city-2.jpg

দেশে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। এরইমধ্যে শনাক্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। শনিবার দুপুরেও ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যুর খবর প্রকাশ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫ হাজার ৩৪৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। হঠাৎ করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত বেড়ে যাওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে সরকার।

এদিকে শনিবার (১০ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) তথ্য মতে, রাজধানীর দুটি এলাকায় সর্বাধিক সংক্রমণের তথ্য পাওয়া গেছে। এলাকা দুটি হলো মিরপুরের রূপনগর এবং মোহাম্মদপুরের আদাবর।

আইইডিসিআর বলছে, ওই দুই থানা এলাকা এখন সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। এ ছাড়া আরও ১৭টি থানা এলাকায় করোনা শনাক্তের হার ৩০ শতাংশের উপরে।

আইইডিসিআর জানায়, গত ২৭ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ১৪ হাজার ৩৩২টি পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ১০৩ জন। শনাক্তের হার ৩৬ শতাংশ। অন্যদিকে উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় ৩৬ হাজার ৭৭১টি পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৮৪৩ জন। শনাক্তের হার ২৯ শতাংশ।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ঢাকায় রূপনগর থানা এবং আদাবর থানা সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ থানা। রূপনগরে শনাক্তের হার ৪৬ শতাংশ এবং আদাবরে ৪৪ শতাংশ।

আইইডিসিআর’র কর্মকর্তারা জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম (এমআইএস) থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে আরও জানা যায়, ঢাকার আরও ১৭টি থানার করোনা শনাক্তের হার ৩০ শতাংশের ওপর অবস্থান করছে। ২৩টি থানায় ২০ শতাংশের ওপরে এবং ৭টি থানায় ১১ শতাংশের ওপরে শনাক্তের হার আছে।

১১ থেকে ২০ শতাংশের মধ্যে আছে তেজগাঁও, উত্তরা পশ্চিম থানা, ভাসানটেক, গুলশান, ক্যান্টনমেন্ট, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এবং বিমানবন্দর থানা এলাকা।

২১ থেকে ৩০ শতাংশের মধ্যে আছে শাহবাগ, বংশাল, লালবাগ, শাহজাহানপুর, রমনা, কামরাঙ্গীরচর, শ্যামপুর, বাড্ডা, বনানী, উত্তরখান, শেরে বাংলা নগর, সূত্রাপুর, যাত্রাবাড়ী, পল্লবী, কাফরুল, ডেমরা, ওয়ারী, ভাটারা, দক্ষিণ খান, খিলক্ষেত, কদমতলি, উত্তরা পূর্ব থানা, পল্টন থানা এলাকা।

৩০ শতাংশের ওপরে আছে রূপনগর, আদাবর, শাহ আলী, রামপুরা, তুরাগ, মিরপুর, কলাবাগান, মোহাম্মদপুর, মুগদা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, হাজারীবাগ, নিউমার্কেট, চকবাজার, সবুজবাগ, মতিঝিল, দারুসসালাম, খিলগাঁও।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী মিতা হক। রোববার (১১ এপ্রিল) সকাল ৬টা ২০ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৯ বছর।

মিতা হকের জামাতা অভিনেতা মোস্তাফিজ শাহীন গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তিনি লিখেছেন- ‘মিতা হক সকাল ৬.২০ এ চলে গেলেন। সবাই ভালোবাসা আর প্রার্থনায় রাখবেন।’

জানা গেছে, গত ২৫ মার্চ মিতা হকের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর থেকে বাসাতেই আইসোলেশনে ছিলেন তিনি। পরে অবস্থার অবনতি হলে গত ৩১ মার্চ তাকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠলে গত শুক্রবার (৯ এপ্রিল) তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরদিন শনিবার (১০ এপ্রিল) সকালের দিকে হার্ট অ্যাটাক করেন তিনি। এরপর তাকে আবারও হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থাতে রোববার সকালে তিনি মারা যান। মিতা হক প্রায় পাঁচ বছর ধরে কিডনি রোগেও ভুগছিলেন।

মিতা হকের জন্ম ১৯৬২ সালে ঢাকায়। তিনি বাংলাদেশ বেতারের সর্বোচ্চ গ্রেডের তালিকাভুক্ত শিল্পী। এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে প্রায় ২০০টি রবীন্দ্রসংগীতে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। তার এককভাবে মুক্তি পাওয়া মোট ২৪টি অ্যালবাম আছে। এর মধ্যে ১৪টি ভারত থেকে ও ১০টি বাংলাদেশ থেকে। তিনি ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক লাভ করেন। সঙ্গীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে ২০২০ সালে একুশে পদক প্রদান করে।

মিতা হক প্রয়াত অভিনেতা খালেদ খানের স্ত্রী। মেয়ে জয়িতাও রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী। তার চাচা দেশের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অগ্রপথিক ও রবীন্দ্র গবেষক ওয়াহিদুল হক।

মিতা হক প্রথমে তার চাচা ওয়াহিদুল হক এবং পরে ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খান ও সনজীদা খাতুনের কাছে গান শেখেন। ১৯৭৬ সাল থেকে তিনি তবলাবাদক মোহাম্মদ হোসেন খানের কাছে গান শেখা শুরু করেন। ১৯৯০ সালে বিউটি কর্নার থেকে প্রকাশিত হয় মিতা হকের প্রথম রবীন্দ্রসঙ্গীতের অ্যালবাম ‘আমার মন মানে না’।

‘সুরতীর্থ’ নামে একটি গানের স্কুলও রয়েছে তার। একসময় ছায়ানটের রবীন্দ্রসঙ্গীত বিভাগের প্রধান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মেলন পরিষদের সহ-সভাপতিও ছিলেন।

iran-210535.jpg

নতুন ও আরও উন্নত একাধিক সেন্ট্রিফিউজ চালু করেছে ইরান। সেন্ট্রিফিউজগুলোতে পরবর্তী ধাপের তেজস্ক্রিয় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে তেহরান।

সেইসঙ্গে পরমাণু কর্মসূচির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের প্রচেষ্টা হিসাবে বেশকিছু প্রযুক্তিগত আবিষ্কার ও অর্জন প্রদর্শন করেছে দেশটি।

ইরান পরমাণু চুক্তি নিয়ে সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার মধ্যে শনিবার আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে এগুলোর উদ্বোধন করেন প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

আলজাজিরা জানায়, শনিবার তেহরান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নাতাঞ্জ পারমাণবিক কেন্দ্রে ১৬৪ আইআর-৬ সেন্ট্রিফিউজসহ দেশজুড়ে বেশ কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন করেন প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। সঙ্গে সঙ্গে বেসামরিক ও মেডিকেল চিকিৎসায় ব্যবহারযোগ্য প্রায় ১৫৫টি নতুন প্রযুক্তি পণ্যের প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তিনি।

শুক্রবার ছিল ইরানের জাতীয় পরমাণু প্রযুক্তি দিবস। এ উপলক্ষ্যে এদিন থেকেই নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

ইরানের পরমাণু শক্তি সংস্থার মুখপাত্র বেহরুজ কামালভান্দি এর আগে জানিয়েছেন, ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ খাতে সবচেয়ে বড় সাফল্য হচ্ছে আইআর-৯ সেন্ট্রিফিউজের মেকানিক্যাল পরীক্ষা। এটি ইরানের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেন্ট্রিফিজউজ। এটি ইরানিরা নিজস্ব পদ্ধতিতে তৈরি করেছেন এবং তা ভালো কাজ করছে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক মঞ্চের সঙ্গে আণবিক চুক্তি নিয়ে আলোচনায় বসে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশটি। আমেরিকাকে ফের চুক্তিতে ফেরানো নিয়ে আলোচনা হয়।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান এবং পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবিত করার বিষয়ে যে আলোচনা চলছে তাতে এ পর্যন্ত ইতিবাচক কোনো ফলাফল আসেনি। এ নিয়ে আগামী বুধবার থেকে নতুন করে আলোচনা শুরু হবে বলে জানানো হয়েছে।

২০১৫ সালে নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য- আমেরিকা, চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া, ব্রিটেন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে ইরান। সেটির শর্ত মতে আণবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত থাকবে দেশটি। পাল্টা তেহরানের উপর থেকে বেশকিছু আর্থিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে আমেরিকাসহ চুক্তি স্বাক্ষরকারী দেশগুলো।

কিন্তু ২০১৮ সালে ইরানের বিরুদ্ধে আণবিক অস্ত্র তৈরির চেষ্টার অভিযোগ এনে চুক্তি থেকে একতরফাভাবে বেরিয়ে যায় আমেরিকা। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে সমালোচনায় সরব হয় ইরান।

তবে গত বছর মার্কিন মসনদ জো বাইডেনের দখলের যাওয়ায় ফের চুক্তিটিতে আমেরিকার শামিল হওয়া নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল। কিন্তু এবার ইরানের এহেন পদক্ষেপে সেই সম্ভাবনা আপাতত ঠান্ডা ঘরে চলে গিয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

চলতি মাসের শুরুতেই ইরানের এক শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা বলেন, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলেই ইরান ২০ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ বন্ধ করবে।

প্রেস টিভিকে এক সাক্ষাৎকারে ওই কর্মকর্তা বলেন, পরমাণু সমঝোতার ৩৬তম অনুচ্ছেদ অনুসারে ২০ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ চলছে এবং এই কর্মসূচি শুধু বন্ধ হতে পারে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার পর।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, ইরানের ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার আগ পর্যন্ত ইরান তার বর্তমান পারমাণবিক কর্মকাণ্ড বন্ধ করবে না।

ইরানের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘বাইডেন প্রশাসন সময় নষ্ট করছে। যদি শিগগিরই তারা ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করে তাহলে তেহরান পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে যার ফলে পরমাণু সমঝোতায় দেওয়া প্রতিশ্র“তি বাস্তবায়ন আরও কমে যাবে।’

 

 

buet98.jpg

আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) স্নাতক ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন প্রক্রিয়া। ওইদিন সকাল ১০ টা থেকে শুরু করে আবেদন প্রক্রিয়া চলবে ২৪ এপ্রিল বিকেল ৩টা পর্যন্ত। অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (১০ এপ্রিল) এ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বুয়েট কর্তৃপক্ষ।  বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এবার ভর্তি কার্যক্রম কোভিড ১৯ মহামারির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হবে।

আবেদনকারীকে দেশের যে কোনও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ- ৪.০০ এবং এইচএসসিতে জিপিএ-৫.০০ পেতে হবে। মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ ও রসায়নে ৩০০ নম্বরের মধ্যে পেতে হবে ২৭০ নম্বর। ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেও পেতে হবে সমমানের গ্রেড/নম্বর।

প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি বাবদ ‘ক’ গ্রুপের (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পন বিভাগ) জন্য ১ হাজার টাকা এবং ‘খ’ গ্রুপের (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পন বিভাগ ও স্থাপত্য বিভাগে) জন্য ১ হাজার ২০০ টাকা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ফি দিয়ে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে শিক্ষার্থীদের।

চার শিফটে ১০০ নম্বরের ঘণ্টাব্যাপী এমসিকিউ টাইপ প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩১ মে ও ১ জুন।পরবর্তীতে ৫ জুন মূল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রকাশ করা হবে যোগ্য আবেদনকারীদের নামের তালিকা। মূল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১০ জুন। এরপর আগামী ১ জুলাই নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করবে বুয়েট কর্তৃপক্ষ।

দেশে কেউ অরাজকতা, জনগণের সম্পদ বা জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করলে সরকার তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবার দুপরে রাজধানীর কুর্মিটোলায় আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজে করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী এই কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘হেফাজতকে প্রতিরোধ করার জন্য কার্যকর আইন আছে। কেউ যদি দেশে অরাজকতা, জনগণের সম্পদ বা জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করেন, এই সরকার তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে।’

আনিসুল হক বলেন, ‘জনগণ তাদের সেবা করার দায়িত্ব পালনের জন্য শেখ হাসিনার সরকারকে ভোট দিয়েছে। সেখানে কেউ ব্যাঘাত ঘটানোর চেষ্টা করলে সরকার অবশ্যই আইনগতভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।’

টিকা নেয়ার প্রতিক্রিয়ায় আইনমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজের মধ্যে আমি কোনো পার্থক্য দেখিনি। আমি ধন্যবাদ জানাই যারা আমাকে ইনজেকশনটা দিয়েছেন। কারণ আমি কোনো ব্যথা বোধ করিনি। আগেও আপনাদের একথা বলেছি যে, ইনজেকশন নেয়ার ব্যাপারে আমার এলার্জি আছে। আমি খুব ভয় পাই। দু’বারই আমি অত্যন্ত স্বাচ্ছ্যন্দে এই ইনজেকশনটা নিতে পেরেছি। সেজন্য কর্তৃপক্ষকে আমি ধন্যবাদ জানাই।’

আনিসুল হক বলেন, ‘করোনাভাইরাস সারাবিশ্বে ভয়াবহভাবে বেড়ে যাচ্ছে। দ্বিতীয় ডোজ নিলে আমি মনে করি অন্ততপক্ষে আক্রান্তটা কমে যাবে। দ্বিতীয় ডোজ দেয়ার সক্ষমতা আমাদের রয়েছে। আমি সবাইকে অনুরোধ করবো দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে নেয়ার জন্য।’


About us

DHAKA TODAY is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and 7 days in week. It focuses most on Dhaka (the capital of Bangladesh) but it reflects the views of the people of Bangladesh. DHAKA TODAY is committed to the people of Bangladesh; it also serves for millions of people around the world and meets their news thirst. DHAKA TODAY put its special focus to Bangladeshi Diaspora around the Globe.


CONTACT US

Newsletter