আইপিএল Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

krunal.jpg

সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইপিএল জিতে দেশে ফিরছিলেন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের ক্রুনাল পাণ্ডিয়া।

ফিরে আসার পথে পথে বিমানবন্দরে ক্রুনাল পাণ্ডিয়াকে আটকে দেন ডিরেক্টরেট অফ রেভিনিউ ইন্টালিজেন্স কর্মকর্তারা।

পরবর্তীতে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের ক্রুনাল পাণ্ডিয়াকে মুম্বাই বিমানবন্দরে ডিআরআই কর্মকর্তারা তল্লাশি চালান।

সেখানেই তার ব্যাগ থেকে হিসাববিহীন এমন সোনার অলঙ্কার, দামি ঘড়ি ও বহুমূল্য সামগ্রী জব্দ করা হয়।

জানা যায়, এ সমস্ত জিনিস কেনার বৈধ কাগজপত্র বা নথি তিনি দেখাতে পারেননি। বেশ কিছুক্ষণ ধরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

পরে তিনি আর কখনো এমন কাজে জড়িত হবেন না বলে মুচলেকা দিলে ডিরেক্টরেট অফ রেভিনিউ ইন্টালিজেন্স কর্মকর্তারা তাকে যেতে দেন।

IPL-Dream.jpg

ভারতে করোনার অতিমারীতে এবারের আইপিএল হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় কাটছিল না।

অবশেষে সংযুক্ত আরব আমিরাতে জৈব সুরক্ষায় মাত্র তিনটি স্টেডিয়ামে সফলভাবে শেষ হলো ভারতের এই ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টটি।

পঞ্চমবারের মতো শিরোপার স্বাদ পেল মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। আর আইপিএলের ১৩তম আসর শেষ হতে না হতেই ২০২১ সালের আসর নিয়ে আলোচনায় ব্যস্ত হয়ে গেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে আগামী বছরের এপ্রিল-মে মাসে ভারতের মাটিতেই আইপিএলের ১৪তম আসরের আয়োজন করতে চায় সৌরভ গাঙ্গুলির নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই।

এ আলোচনার মধ্যেই বাতাসের গুঞ্জন– আট দলের জায়গায় ২০২১ আইপিএল হতে পারে ৯ দলের।

গুজরাট থেকে নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি দল খেলতে পারে সামনের আসরে। সেই ফ্র্যাঞ্চাইজির হোমগ্রাউন্ড হতে পারে মোতেরা।

উল্লেখ্য, ২০১৬ ও ২০১৭- এ দুই মৌসুমে চেন্নাই সুপার কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালস নির্বাসিত থাকাকালীন গুজরাট লায়ন্স ও রাইজিং পুনে সুপার জায়ান্ট নামে দুটি দল আইপিএলে খেলেছিল। সেখান থেকে গুজরাটের দলকে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়ারও পরিকল্পনা চলছে।

তথ্যসূত্র: দ্য হিন্দু, আনন্দবাজার পত্রিকা

mumbai8.jpg

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৩ আসরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ পাঁচবার শিরোপা জিতল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। এই পাঁচটি শিরোপা জয়ে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ভারতীয় তারকা ওপেনার রোহিত শর্মা।

মঙ্গলবার আইপিএলের ১৩তম আসরের ফাইনালে স্রেয়াশ আইয়ারের নেতৃত্বাধীন দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৫ উইকেটে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় এবং সবমিলে পঞ্চম শিরোপা ঘরে তুলে মুম্বাই।

এর আগে ২০১৩, ২০১৫ ও ২০১৯ সালে ভারতের সফল অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে আইপিএল শিরোপা জিতেছিল রোহিত শর্মার দল।

আর ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ান তারকা ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথের নেতৃত্বাধীন রাইজিং পুনেকে হারিয়ে শিরোপা জিতে মুম্বাই।

মঙ্গলবার দুবাইয়ের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ট্রেন্ট বোল্টের গতির মুখে পড়ে ২২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায় দিল্লি।

ইনিংসের প্রথম ওভারের প্রথম বলেই ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার মার্কাস স্টয়নিস। এরপর নিজের দ্বিতীয় ও ইনিংসের তৃতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে আজিঙ্কা রাহানের উইকেট তুলে নেন বোল্ট।

চলতি আইপিএলে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া শিখর ধাওয়ান আউট হন জয়ন্ত যাদবের স্পিনে। তার বিদায়ের মধ্য দিয়ে মাত্র ২২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে দিল্লি।

মাত্র ২২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরাতে হাল ধরেন অধিনায়ক স্রেয়াশ আইয়ার ও ঋষভ পন্ত। চতুর্থ উইকেটে ৯৬ রানের দায়িত্বশীল জুটি গড়েন তারা।

ফিফটির পর বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন ঋষভ পন্ত। তার আগে ৩৮ বলে ৪টি চার ও দুই ছক্কায় করেন ৫৬ রান।

ছয় নম্বর পজিশনে প্রত্যাশিত ব্যাটিং করতে পারেননি দিল্লির ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান সিমরন হিতমার।

আগের ম্যাচে ২২ বলে ৪২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলা এ তারকা ব্যাটসম্যান এদিন ফেরেন মাত্র ৫ রানে।

এরপর অক্ষর প্যাটেলকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান স্রেয়াশ আইয়ার।  ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত খেলেন দিল্লির এ অধিনায়ক।

তার ৫০ বলের ৬ চার ও এক ছক্কায় গড়া ৬৫ রানের দায়িত্বশীল ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেটে ১৫৬ রান করে দিল্লি।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৪৫ রানে ফেরেন ওপেনার কুইন্টন ডি কক (২০)।

দ্বিতীয় উইকেটে সুরাইয়াকুমার যাদবের সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক রোহিত।  ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হন যাদব (১৯)।

এরপর ইশান কিশানকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে রোহিত। দলের জয়ের জন্য শেষ দিকে ২২ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র ২০ রান।

খেলার এমন অবস্থায় নর্টিজের বলে ললিত যাদবের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিনত হয়ে সাজঘরে ফেরেন রোহিত।

তার আগে ৫১ বলে ৫টি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে করেন দলীয় সর্বোচ্চ ৬৮ রান।

পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে কাগিসো রাবাদার গতির বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন কায়রন পোলার্ড।  তার বিদায়ে জয়ের জন্য তেমন কোনো ব্যাক পেতে হয়নি মুম্বাইকে।  উইকেটে থাকা ইশান কিশানের ব্যাটে জয় নিশ্চিত করে মুম্বাই। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত খেলে ১৯ বলে অপরাজিত ৩৩ রান করেন ইশান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দিল্লি ক্যাপিটালস: ২০ ওভারে ১৫৬/৭ (স্রেয়াশ ৬৫*, ঋষভ পন্ত ৫৬, ধাওয়ান ১৫; ট্রেন্ট বোল্ট ৩/৩০, নাথান কোল্টার নিল ২/২৯)।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স: ১৮.৪ ওভারে ১৫৭/৫ (রোহিত ৬৮, ইশান ৩৩*, ডি কক ২০, যাদব ১৯)।

ফল: মুম্বাই ৫ উইকেটে জয়ী।

IPL2020.jpg

বিশ্বের ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটের সবচাইতে বড় এবং দামি আইপিএলের আরো একটি আসরের পর্দা নামছে। ক্রিকেট দুনিয়ার সবচাইতে রঙ্গিন আইপিএলের এবারের আসরের সেরার মুকুট উঠবে কার মাথায় সেটা নিশ্চিত হবে আজ।

যে মুকুটের জন্য ফাইনালে লড়বে টুর্নামেন্টের সবচাইতে সফলতম দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং এখনো পর্যন্ত শিরোপা জিততে না পারা দিল্লি ক্যাপিট্যালস।

অনেকটা তারুণ্যনির্ভর দল নিয়ে দিল্লি এবার দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলছে। দিল্লি অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার বলেন, এই অনুভূতি সেরা। অনেক উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে আসতে হয়েছে। তারপরও আমরা একটা পরিবারের মতো একাট্টা ছিলাম।

মুম্বাই অত্যন্ত শক্তিশালী এবং আইপিএল ইতিহাসের অন্যতম বড় দল। ফাইনালেও আমাদের লক্ষ্য খেলাটা উপভোগ করা।

ব্যাটিংয়ে দিল্লির সাফল্যের অন্যতম রূপকার শিখর ধাওয়ান। ২ সেঞ্চুরি ও ৪ হাফ সেঞ্চুরিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬০৩ রান এই ওপেনারের। ৪৫৪ রান অধিনায়ক আইয়ারের। ভাল করেছেন মার্কাস স্টয়নিসও।

বোলিংয়ে তরুপের তাস অবশ্যই কাগিসো রাবাদা। টুর্নামেন্টে এ পর্যন্ত সবার্ধিক ২৯ উইকেটের মালিক দক্ষিণ আফ্রিকান কৃষ্ণাঙ্গ এ পেসার।

যৌথভাবে চতুর্থ সর্বোচ্চ ২০ উইকেট আরেক পেসার এনরিখ নরকিয়ার দখলে। স্পিনে অভিজ্ঞ রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সঙ্গে আছেন অক্ষর প্যাটেল।

অন্যদিকে ব্যাটিংয়ে মুম্বাইর বড় ভরসার নাম ইশান কিষান ও সূর্যকুমার যাদব। যথাক্রমে ৪৮৩ ও ৪৬১ রান দুইজনের ঝুলিতে।

নিজের দিনে কাঁপিয়ে দিচ্ছেন হার্দিক পান্ডিয়াও। অনেকটা চোটে-অফফর্মে ম্লান অধিনায়ক রোহিত নিশ্চয়ই আজ ফাইনালে জ্বলে উঠতে চাইবেন। বোলিংয়ে মুম্বাইর বড় অস্ত্র জাসপ্রিত বুমরাহ ও ট্রেন্ট বোল্ট।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭ উইকেট বুমরাহর দখলে, বোল্ট তৃতীয় সর্বোচ্চ ২২। তিন অলরাউন্ডার হারদিক পান্ডিয়া, ক্রনাল পান্ডিয়া ও কাইরন পোলার্ডের রসায়ন মুম্বাইর সাফল্যের গুরুত্বপূর্ণ কারণ।

IPL-Dream.jpg

দেখতে দেখতে ২০২০ আইপিএল এখন শেষের পথে। মঙ্গলবার শেষ হলো লিগ পর্বের খেলা।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মধ্যকার ম্যাচটি দিয়েই নিশ্চিত হয়েছে প্লে-অফে খেলতে যাচ্ছে কোন চার দল।

অবশ্য তিনটি দল নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, দিল্লি ক্যাপিটালস ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। চতুর্থ দলের জন্য ছিল অপেক্ষা।

আগেই শীর্ষ স্থান নিশ্চিত করে ফেলা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে শেষ দল হিসেবে প্লে-অফে জায়গা করে নিয়েছে হায়দরাবাদ।

নেট রানরেট ভালো থাকায় ডেভিড ওয়ার্নারের হায়দরাবাদ উঠে এসেছে তিন নম্বরে। চারে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

শুক্রবার এলিমিনেটর ম্যাচে মুখোমুখি হবে এই দুই দল। যে দল হারবে বিদায় নিতে হবে তাদের।

আর জয়ী দলকে ফাইনালের পথে লড়তে হবে আরো এক ম্যাচে।

বৃহস্পতিবার প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে খেলবে শীর্ষে থাকা মুম্বাই ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা দিল্লি।

এই ম্যাচে হেরে যাওয়া দল এলিমিনেটর ম্যাচে জয়ীদের বিপক্ষে খেলবে ৮ নভেম্বর।

১০ নভেম্বর ফাইনাল। যেখানে মুখোমুখি হবে দুই কোয়ালিফায়ার ম্যাচে জয়ী দল।

প্লে-অফের সূচি:-

৫ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার):- মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স বনাম দিল্লি ক্যাপিটালস (প্রথম কোয়ালিফায়ার, দুবাই, রাত ৮টা)

৬ নভেম্বর (শুক্রবার):- সানরাইজার্স হায়দরাবাদ বনাম রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু (এলিমিনেটর, আবুধাবি, রাত ৮টা)

৮ নভেম্বর (রবিবার):- দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার (আবুধাবি, রাত ৮টা)।

IPL-Dream.jpg

দেখতে দেখতে শেষের দিকে চলে এসেছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। আর কদিন বাদেই শুরু হবে প্লে-অফের লড়াই।

তার আগে প্লে-অফ ও ফাইনালের চূড়ান্ত ভেন্যু ঠিক করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

১০ নভেম্বর দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে হবে আইপিএলের ১৩তম আসরের ফাইনাল।

শুরুর দিকে আইপিএলের প্রথম পর্বের সূচি প্রকাশ করেছিল টুর্নামেন্ট আয়োজক কমিটি।

সে সময় জানানো হয়, অক্টোবরের শেষদিকে চূড়ান্ত হবে প্লে-অফ ও ফাইনালের ভেন্যু। অবশেষে ভেন্যু ও সূচি প্রকাশ করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

আইপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার হবে দুবাইতে। সে ম্যাচে মুখোমুখি হবে লিগ পর্বে খেলা শীর্ষ দুদল। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে ৫ নভেম্বর।

পরের দিন এলিমিনেটর ম্যাচ হবে। একদিন বিরতি দিয়ে ৮ নভেম্বর হবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। দুটি ম্যাচই হবে আবুধাবিতে। সব ম্যাচ হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

প্লে-অফের সূচির পাশাপাশি উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জের জন্যও ভেন্যু ঠিক করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

নারীদের আইপিএলের ভেন্যু নির্ধারিত হয়েছে শারজাহ। একই ভেন্যুতে আগামী ৪ থেকে ৯ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে মেয়েদের টুর্নামেন্ট।

মেয়েদের আইপিএলে বাংলাদেশের দুজন নারী ক্রিকেটার অংশ নেবেন। তারা হলেন জাহানারা আলম ও সালমা খাতুন।

আসরে ভেলোসিটির হয়ে খেলবেন জাহানারা। আর ট্রেইলব্লেজার্সের হয়ে খেলবেন প্রথমবার অংশ নিতে যাওয়া সালমা।

দুজনেই বর্তমানে দুবাইতে দলের সঙ্গে আছেন।

আইপিএলের প্লে-অফ সূচি ও ভেন্যু :

৫ নভেম্বর, প্রথম কোয়ালিফায়ার, দুবাই

৬ নভেম্বর, এলিমিনেটর, আবুধাবি

৮ নভেম্বর, দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার, আবুধাবি

১০ নভেম্বর, ফাইনাল, দুবাই

dhoni883.jpg

বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০০৪ সালে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া ভারতীয় দলের কিংবদন্তি এমএস ধোনি শিগগিরই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) থেকে অবসর নিতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দীর্ঘ ১৬ বছরের ক্যারিয়ার থেকে অবসর নেয়ার মাত্র দুই মাস পরে এ খেলার মাল্টি-বিলিয়ন ডলারের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের আসর আইপিএলকেও বিদায় জানবেন বলে কথা ভেসে বেড়াচ্ছে।

সম্প্রতি ধোনি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যকার আইপিএল ম্যাচ শেষে পান্ডিয়া ভাই- হার্দিক ও কুণালকে তার সাত নম্বর জার্সি দিয়ে দিলে সাবেক জাতীয় অধিনায়কের অবসরের জল্পনার পালে আরও হাওয়া লাগে।

এর আগের রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষ ম্যাচের পরও ধোনি তার জার্সি দিয়ে দিয়েছিলেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলমান আইপিএল ২০২০-এ ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংস এখন পর্যন্ত তাদের খেলা ১১ ম্যাচের মধ্যে আটটিতে হেরে খুব বাজে সময় পার করছে।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের ৩৯ বছর বয়সী সাবেক অধিনায়ক ধোনি গত ১৫ আগস্ট ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দেন।

এর আগে টেস্ট ক্রিকেটে ৯০ ম্যাচে ৪,৮৭৬ রান করে ২০১৪ সালে ধোনি অবসর নেন। তবে, সীমিত ওভারের খেলা চালিয়ে যান তিনি।

২০১৭ সালে ভারতের ওয়ানডে দলের হয়ে ১০ হাজার ৭৩৩ রান করা ধোনি অধিনায়ক পদ থেকে সরে আসেন।

তিনি জাতীয় দলের হয়ে ৫৩৮টি ম্যাচে মোট ১৭ হাজার ২৬৬ রান, ১৬ সেঞ্চুরি, ১০৮ ফিফটি, ৩৪৯ ছক্কা ও ৮২৯ ডিসমিস্যাল করেন।

২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১১-তে এক দিনের ক্রিকেট বিশ্বকাপ এবং ২০১৩ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতা ধোনিকে সীমিত ওভারের আন্তর্জাতিক ম্যাচে ভারতের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

dhoni883.jpg

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বোলারদের সামনে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ল চেন্নাই সুপার কিংসের ব্যাটিং।

২০ ওভারে তিন বারের চ্যাম্পিয়নরা করে ৯ উইকেটে ১১৪ রান।

জবাবে রান তাড়া করতে নেমে ১০ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় মুম্বাই।

ঈশান কিষাণ (৬৮) ও কুইন্টন ডি কক (৪৬) অপরাজিত থেকে যান। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে প্রথমবার ১০ উইকেটে ম্যাচ হারল চেন্নাই।

এবারের আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল চেন্নাই ও মুম্বাই। সেই ম্যাচ জিতেছিল ধোনির দল। শুক্রবার সেই চেন্নাইকে বিধ্বস্ত করল মুম্বাই।

এতে এবারের টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকেই গেল চেন্নাই। অঙ্কের হিসাবে আশা বেঁচে থাকলেও চেন্নাইয়ের পক্ষে প্লে অফে পৌঁছানো আর সম্ভব নয়। প্রতিবার প্লে অফে খেলে চেন্নাই। এবার আর তা সম্ভব হলো না।

টস জিতে প্রথমে চেন্নাইকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় মুম্বাই। দলে একাধিক পরিবর্তন এনেও সুবিধা করতে পারল না চেন্নাই।

ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একা লড়াই করেছেন স্যাম কারেন। শেষ পর্যন্ত তিনি ৫২ রানে আউট হন বোল্টের বলে।

স্যাম কারেন রান পাওয়ায় চেন্নাই ১১৪ রান করে। তিনি ও ইমরান তাহির ৪৩ রানের পার্টনারশিপ গড়ায় একশো পেরোতে পারে চেন্নাই।

ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যয় নামে চেন্নাই শিবিরে। প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে রুতুরাজ গায়কোয়াড়কে (০) এলবিডব্লিউ করেন ট্রেন্ট বোল্ট। যশপ্রীত বুমরা তার প্রথম ওভারেই অম্বতি রায়ুডু (২) ও জগদিসানকে (০) পর পর দুই বলে আউট করেন।

দ্বিতীয় ওভারেই ব্যাট করতে নামেন ধোনি। চেন্নাই ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দু প্লেসি রানের মধ্যে ছিলেন। তিনিও ১ রান করে ব্যর্থ এদিন।

পর পর দল যখন উইকেট হারাচ্ছে, তখন রবীন্দ্র জাদেজা ও ধোনির উপরে দায়িত্ব ছিল ইনিংস গড়ার। কিন্তু দিনটা ছিল মুম্বাই বোলারদের।

বোল্ট ফের আঘাত হানে চেন্নাই শিবিরে। তার বলে জাদেজা ৭ রানে আউট হন।

পাওয়ার প্লেতেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে প্রবল চাপে ছিল চেন্নাই। ম্যাচের রাশ শুরু থেকেই চলে এসেছিল মুম্বাইয়ের হাতে।

ধোনিরা কিছুতেই আর ম্যাচে ফিরতে পারেননি।

চেন্নাই সমর্থকরা ধরে নিয়েছিলেন অধিনায়ক হয়তো জ্বলে উঠবেন। ধোনিও ব্যর্থ হন। রাহুল চহারের বলে মাত্র ১৬ রানে আউট হন তিনি।

দীপক চহারও (০) শিকার রাহুল চহারের। কুল্টার নাইলের বলে শার্দুল ঠাকুর (১১) ক্যাচ তুলে দেন সূর্যকুমার যাদবের হাতে। স্যাম কারেন একমাত্র রুখে দাঁড়ান মুম্বাই বোলারদের বিরুদ্ধে। ইমরান তাহির অপরাজিত থেকে যান ১৩ রানে।

এই ম্যাচ জিততে হলে চেন্নাই বোলারদের শুরু থেকেই উইকেট তুলতে হতো। কিন্তু ধোনির বোলাররা সমস্যায় ফেলতে পারেনি মুম্বাইকে।

ঈশান কিষাণ ও কুইন্টন ডি ককের দাপটে ১২.২ ওভারে ১১৬ রান করে মুম্বাই। মুম্বাই বোলারদের মধ্যে বোল্ট (৪-১৮), বুমরা (২-২৫) ও রাহুল চহার (২-২২) সফল।

Salma11.jpg

নারী আইপিএল খ্যাত ওমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জে অংশ নিতে ঢাকা ত্যাগ করেছেন সালমা খাতুন ও জাহানারা আলম।

বুধবার সকালে বাংলাদেশ নারী জাতীয় ক্রিকেট দলের দুই সদস্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিসিসিআই) আয়োজিত নারীদের এই টুর্নামেন্টে দ্বিতীয়বারের মতো অংশ নিতে চলেছেন জাহানারা।

অন্যদিকে প্রথমবার খেলতে যাচ্ছেন সালমা।

গেলবার ভেলোসিটির হয়ে খেলা পেসার জাহানারা এবারও একই দলের জার্সি গায়ে জড়াচ্ছেন। অন্যদিকে স্পিনার সালমা খেলবেন ট্রেইলব্লেজার্সের হয়ে।

করোনার দাপটে ভারতের বদলে ওমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জের তৃতীয় আসর বসছে  আরব আমিরাতে।

আগামী ৪ নভেম্বর শুরু হচ্ছে নারীদের আইপিএল। প্রথম ম্যাচে গেল দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন সুপারনোভাসের বিপক্ষে মাঠে নামবে ভেলোসিটি।

৫ নভেম্বর ট্রেইলব্লেজার্স-ভেলোসিটির ম্যাচ দিয়ে মাঠের লড়াইয়ে নামবেন সালমা- জাহানারা।

রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে তিন ম্যাচে অংশ নিবে দলগুলো। সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়া দুই দল ৯ নভেম্বর ফাইনালে শিরোপার লড়াইয়ে লড়বে।

IPL-Dream.jpg

ভারতে করোনা ভাইরাস তুলনামূলক বেশি সংক্রমিত হওয়ায় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৩ তম আসর হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

করোনার এই কঠিন সময়ে ক্রিকেটারদের কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে রেখেই আইপিএল আয়োজন করা হচ্ছে।

প্লেয়াররা কঠোর নিরাপত্তা বলয়ে থাকা সত্ত্বেও জুয়াড়িরা এক খেলোয়াড়কে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব দিয়েছে।

একটি সূত্রে জানা যায়, আইপিএল খেলোয়াড়কে দলের তথ্য ফাঁসের প্রস্তাব দেন অপরিচিত একজন।

সেই খেলোয়াড় নিজেই ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে (বিসিসিআই) জানিয়েছে, তার সঙ্গে অপরিচিত একজনের যোগাযোগের চেষ্টা করার কথা।

বিষয়টি নি’শ্চি’ত করে রোববার রয়টার্সকে বিসিসিআইয়ের দুর্নীতি দমন ইউনিটের প্রধান অজিৎ সিং বলেছেন, একজন ক্রিকেটার একটি পদ্ধতির কথা আমাদের জানিয়েছেন।

বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। তদন্তের স্বার্থে এখনই সব কিছু খোলাসা করা যাচ্ছে না। তবে প্লেয়ারদের গতিবিধি আমরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত করছি।