ইমরান খান Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

imrankhan.jpg

দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই আর্থিক সঙ্কটে রয়েছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফিলে সৌদি আর, তুরস্ক, ইরান, চীনসহ নানা দেশ আর্থিক সহায়তা ও বিনিয়োগ পাচ্ছেন তিনি। দেশের এই সঙ্কট কাটিয়ে উঠতে এবার ৬০০ কোটি ডলার আর্থিক সহায়তা পাচ্ছেন ইমরান খানের সরকার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকার সমান।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বা আইএমএফ এ অর্থ সহায়তা দিচ্ছে বলে সোমবার (১৩ মে) খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ কম থাকায় এবং প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়ায় বড় ধরনের অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে দেশটি। তাই পাকিস্তানের অর্থনৈতিক সংকট দূর করতে আগামী তিন বছরে দেশটিকে এ আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে।

101170_404052_125.jpg

পাকিস্তান প্রথম এবং শেষ আইসিসি বিশ্বকাপ শিরোপা জিতেছিলো ১৯৯২ সালে। ইমরান খানের নেতৃত্বে সেবার প্রথম আর এখন পর্যন্ত শেষ শিরোপার ছোঁয়া পায় দেশটি। এরপর কেটে গেলো ২৬টি বসন্ত। বিশ্বকাপ জয়ী পাকিস্তানের সেই অধিনায়ক এখন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। দুই দশক ধরে পুরো দস্তুর রাজনীতিক করছেন তিনি।

প্রায় ২০ বছরেও বেশি সময় যার কেটেছে তার ব্যাট-বলের সাথে। সেই ইমরান খান কি ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে পারেন? না, তিনি তা পারেননি। বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত পাকিস্তান দলের সাথে শুক্রবার বৈঠক করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। দিয়েছেন তাদের নানা টিপস। নিজে বিশ্বকাপ জিতেছেন, তাই আরেকটি বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে দলের জন্য তার উপদেশই তো সবার আগে দরকার।

ইসলামাবাদের বানি গালার বাসভবনে পাকিস্তান ক্রিকেট টিমের সদস্যদের সাথে এক ঘণ্টারও বেশি সময় নিয়ে বৈঠক করেছেন ইমরান খান। বিশ্বকাপে সফল হওয়ার জন্য জন্য দিয়েছেন নানা পরামর্শ। সেই সাথে জানিয়েছেন নিজের বিশ্বকাপ জেতার অভিজ্ঞতার কথা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড আশা করছেন, বিশ্বকাপ জেতা এক নায়কের মুখ থেকে সরাসরি তার অভিজ্ঞতার কথা শুনলে ক্রিকেটাররা উদ্দীপ্ত হবে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর মুখপাত্র জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ক্রিকেটারদের বলেছেন, জয়ের ক্ষুধা আর সুন্দর পরিকল্পনা নিয়ে চ্যাম্পিয়নরা মাঠে নামে। আর বিজয়ের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টিম স্পিরিট। তিনি ক্রিকেটারদের বলেন, তোমার দক্ষতা, খেলোয়াড়ি চেতনা আর দৃঢ়তা দিয়ে পাকিস্তানের জন্য সুনাম বয়ে আনো’।

ইমরান বলেন, বিভিন্ন সেক্টরে কিছু দুর্বলতা থাকলেও ১৯৯২ সালে আমরা আমাদের অত্যন্ত শক্তিশালী টিম স্প্রিটের কারণেই শিরোপা জিতেছিলাম।

বিশ্বকাপ ও ইংল্যান্ড সফরের জন্য ঘোষিত দলের মোট ১৭ জন সদস্য। নির্বাচক মণ্ডলি, কোচসহ টিম ম্যানেজমেন্টের অন্যান্য কর্মকর্তার উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে।

এবারের দলটি বিশ্বকাপে ভালো করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন ইমরান । তিনি বলেন, পুরো দেশ তোমাদের জন্য দোয়া করবে। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে দেশের প্রতিনিধিত্ব করা অত্যন্ত সম্মানের। তোমরা জাতির প্রতিনিধি।

বৈঠকে ক্রিকেটারদের ফিটনেস, বিশ্বকাপ প্রস্তুতির নানা বিষয়ে খোঁজ খবর নেন ইমরান খান। অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে সামনে থেকে দক্ষতার সাথে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য পরামর্শ দেন তিনি। পৃথক কিছু পরামর্শ দিয়েছেন দলের বোলাদের উদ্দেশ্যে।

gwx.jpg

এ মাসেই চীন ও ইরান সফরে যাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এ সফরগুলোতে দু’দেশের সঙ্গে সম্পর্ক বৃদ্ধি ছাড়াও কয়েকটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে।

পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, আগামী ২১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ইরান সফর করবেন। সেখানে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি ও প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে তার বিশেষ বৈঠকের কথা রয়েছে। মুসলিম বিশ্বের সমসাময়িক বিষয় নিয়ে তারা আলোচনা করবেন।

এদিকে আগামী ২৫ এপ্রিল চীনের প্রেসিডেন্ট শিং জে পিংয়ের বিশেষ আমন্ত্রণে তিন দিনের সফরে চীন যাবেন ইমরান খান। ২৬ এপ্রিল বিশ্বের শতাধিক দেশের আমন্ত্রিত অতিথির উপস্থিতিতে একটি বিশেষ প্রদর্শনীতে অংশ নেবেন তিনি।

পাশাপাশি বাণিজ্যিক চুক্তিসহ দু’দেশের সম্পর্কন্নোয়নে কথা বলবেন তারা।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারে বিষেশ তৎপরতা চালাচ্ছেন ইমরান খান। বছরের শুরুতেই মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী নেতা এরদোগানের আমন্ত্রণে তুরস্ক সফর করেছেন। গত দুই মাসের মধ্যে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ও মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ পাকিস্তান সফর করেছেন।

dc-Cover-6bi7dg7d93ecrd2hsd55fn57h7-20180425131348.Medi_.jpeg

শনিবার পাকিস্তা টিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানান, স্ত্রী বুশরা মানেকা বিবির সঙ্গে শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত থাকতে চান তিনি। সম্প্রতি তাদের বিবাহ-বিচ্ছেদ হচ্ছে বলে গুঞ্জন ওঠে। রেডিও পাকিস্তান।

তিনি বলেন, ‘বুশরা আমার জন্য আল্লাহর রহমত। আমাদের মধ্যে সমস্যা থাকার প্রশ্নই আসে না।

সাক্ষাৎকারে বুশরা বলেন, ‘ইমরান খুবই সাধারণ জীবন-যাপন করেন। কোন লোভ নেই তার মধ্যে।’ বুশরার মতে, শুধু ইমরান খানই পাকিস্তানে পরিবর্তন আনতে পারেন। তবে পরিবর্তন আসতে সময় লাগবে।

ফার্স্ট লেডি হয়েও হিজাব পরার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেকেরই হিজাব পরার অধিকার রয়েছে। এটা আমার ব্যক্তিগত পছন্দ। কেউ হিজাব পরতে না চাইলে পরবে না। প্রত্যেকেরই ব্যক্তিস্বাধীনতা থাকা উচিত।’

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান ২০১৮ সালে তৃতীয়বারের মতো তাঁর আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু বুশরা মানেকার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। অনেকে বুশরাকে ডেকে থাকেন ‘বুশরা বিবি’ বা ‘পিংকি পির’ হিসেবে।

১৯৯৫ সালে ইমরান খান বিয়ে করেছিলেন জেমিমা গোল্ডস্মিথকে। নয় বছর পর ২০০৪ সালে তাঁদের বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর ২০১৫ সালে ইমরান বিবাহবন্ধনে জড়িয়েছিলেন বিবিসির টিভি উপস্থাপিকা রেহাম খানের সঙ্গে।

কিন্তু তাঁদের এই সম্পর্ক স্থায়ী হয়েছিল মাত্র ১০ মাস। এরপর তৃতীয়বারের মতো ইমরান বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন নিজের আধ্যাত্মিক ধর্মগুরুর সঙ্গে।

১৯৯২ সালে পাকিস্তানের ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ছিলেন ইমরান খান। পরবর্তীতে ১৯৯৬ সালে পিটিআই গঠন করে তিনি রাজনীতি শুরু করেন। দল গঠনের ২২ বছর পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে যাত্রা শুরু করলেন তিনি।

imrankhan.jpg

দরজায় কড়া নাড়ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ-২০১৯। এর আগে টানা হারে দিশেহারা পাকিস্তান। বিষয়টি ভালো নজরে নেননি দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান। ক্রিকেটের স্বীকৃত দুই ফরম্যাট টেস্ট ও ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ পাঁচেও নেই পাকিস্তান। তাই দ্রুত এই অবস্থার পরিবর্তন চান তিনি।

গত বছর আফগানিস্তান, হংকং ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে জিতেছে সরফরাজ বাহিনী। এছাড়া চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত, ক্রিকেটের নব্যশক্তি বাংলাদেশ, পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে দলটি।

বিশ্বকাপে এই দল নিয়ে আশা কতটুকু? সেই আশা পুনরুজ্জীবিত করতে ইমরান খান পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সঙ্গে বৈঠক করেছেন। পিসিবি কর্মকর্তাদের চরম সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, নানা সমস্যায় জর্জরিত পাকিস্তান ক্রিকেট। সমাধানে সবাইকে ব্যক্তিগত স্বার্থ ত্যাগ করতে হবে।

পরিপ্রেক্ষিতে ইমরানকে বোঝাতে নানা যুক্তি পেশ করেন পিসিবি কর্তারা। যুক্তি খণ্ডাতে সাবেক কিংবদন্তি অলরাউন্ডার সোজাসাপ্টা বলেন, ৪০ বছর ধরে ক্রিকেট খেলেছি। আমাকে বোঝাতে এসো না।

পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৮৮ টেস্ট ও ১৭৫ ওয়ানডে খেলেছেন ইমরান। সেই সাথে ১৯৯২ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ তার নেতৃতে ঘরে তুলে পাকিস্তান। দেশটির সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার হিসেবে বিবেচিত তিনি। খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার শেষে জড়িয়ে পড়েন রাজনীতিতে। সেখানেও সফল সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। এখন নানা সমস্যাজর্জর দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন ইমরান খান।

imrankhan.jpg

এ বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেতে পারেন এমন একটি তালিকায় স্থান পেয়েছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নাম। আমেরিকার ‘খ্রিস্টিয়ান সাইন্স মনিটর’ নামের পত্রিকাটি তাদের তালিকায় ইমরান খানের নাম যোগ করেছে।

সম্প্রতি ভারত-পাকিস্তান সম্ভাব্য যুদ্ধ নিরসনে ইমরান খান যে অবদান রেখেছেন তার উদ্ধৃতি দিয়ে পত্রিকাটি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর নাম তালিকাভুক্ত করেছে বলে জানায়।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে জঙ্গি হামলায় ৪২ জনের বেশি ভারতীয় জওয়ান নিহত হয়। এ হামলার দায় পাকিস্তান ভিত্তিক জইশ-ই-মোহাম্মদ স্বীকার করে নেয়।

এনিয়ে ভারত পাকিস্তানের মধ্যে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

এই হামলার জবাব দিতে পাকিস্তানের সীমানা ভেদ করে ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে হামলা চালায় ভারতীয় সেনাবাহিনী। ভারতের দাবি হামলায় অন্তত ৩০০ জঙ্গি নিহত হয়েছে। তবে ভারতের এমন দাবি প্রত্যাখান করে পাকিস্তান।

এর জবাবে ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় সীমানায় ঢুকে পড়ে পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান। এদিনেই ভারতের দুইটি বিমান ভূপাতিত করে পাকিস্তান, আটক করে ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে।

শান্তির বার্তা হিসেবে পাইলট অভিনন্দনকে ভারতের কাছে হস্তান্তরের ঘোষণা দেয় ইমরান খান। আটকের ৫৮ ঘন্টা পর অভিনন্দনকে হস্তান্তর করে ভারত। এছাড়া ইমরান খান বারবার ভারতের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব দেন।

এমন উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে ইমরান খানের এমন পদক্ষেপ ঘরে ও ঘরের বাইরে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। পাকিস্তানের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কারীরা ইমরানকে নোবেল দেয়ার জোর দাবি জানান।

imrankh.jpg

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমরা হিন্দুদের প্রতি কোনও ধরনের অন্যায় সহ্য করবো না।

স্থানীয় গণমাধ্যম ‘ডন’ জানিয়েছে, শুক্রবার দেশটির সিন্ধু প্রদেশের থারপারকার জেলার ছাছরো শহরে একটি জনসমাবেশে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ইমরান খান বলেন, আজ আমি এখানে আপনাদেরকে বলতে এসেছি আমার সরকার পূর্ণ সংহতি নিয়ে আমাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের সঙ্গে আছে। পাকিস্তানের যেকোনো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে দেশের নাগরিক হিসেবে সমান অধিকার দেয়া আমাদের দায়িত্ব। এক্ষেত্রে কোনও ধরনের বৈষম্যকে মেনে নেয়া হবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এই জনসমাবেশে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী থারপারকার জেলাবাসীদের জন্য একটি হেলথ প্যাকেজ ঘোষণা করেন, যার অধীনে এক লাখ ১২ হাজার পরিবারকে ‘ইনসাফ হেলথ কার্ড’ সরবরাহ করা হবে।

ইমরান খান বলেন, এই অঞ্চলে দুটি আধুনিক ভ্রাম্যমাণ হাসপাতাল এবং চারটি অ্যাম্বুলেন্স সরবরাহ করা হবে। যদি কোনও পরিবারের কেউ অসুস্থ হয়, তবে এই হেলথ কার্ড দেখিয়ে তার পছন্দ মতো যেকোনো হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিতে পারবে। তাদের জন্য আছে সাত লাখ ২০ হাজার রুপি।

পাক প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ক্ষমতায় আসার পেছনে আমার প্রাথমিক প্রেরণাটি ছিল পাকিস্তানের জনগণকে দারিদ্র্যমুক্ত করা। থারপারকার সবচেয়ে বেশি দারিদ্র্যক্লিষ্ট জায়গা। এই কারণেই আমি এখানে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি এবং প্রদেশটির সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ড. আরবাব গুলাম রহিম।

jkyh.jpg

ইমরান খানের বুদ্ধি ও প্রজ্ঞার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি মারকানডে কাটজু।

তিনি বলেন, আমি আগে ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম। কিন্তু টেলিভিশনে তার (রাজনৈতিক) প্রজ্ঞা ও বুদ্ধিদীপ্ত বক্তব্যের কারণে তার ভক্ত হয়ে গেলাম।

ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেয়ার বিষয়ে শুক্রবার পাকিস্তানের সংসদে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তব্যের প্রশংসায় ভারতীয় এ বিচারপতি এসব কথা বলেন।

পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যেই ভারতীয় পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। যুদ্ধের চেয়ে তখন পাইলট আটক হওয়ার ইস্যুই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানে আটক পাইলটকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

ইমরান খানের এমন সিদ্ধান্তে অনেকেই হতবাক হয়ে যান। দ্রুত এমন ইতিবাচক সিদ্ধান্ত আসবে এমন ধারণা ভারতীয়রা কল্পনাও করতে পারেনি।

খোদ ভারতীয়রাও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর এ সিদ্ধান্তকে ইতিবাচক হিসেবে বর্ণনা করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই দেশেরই সুশীল সমাজ ইমরান খানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তারা বলেছেন এরকম সিদ্ধান্ত দুই দেশের মধ্যকার উত্তেজনা প্রশমন করতে সহায়ক হবে।

ইমরান খানের এ ঘোষণার পর ভারতজুড়ে স্বস্তি নেমে এসেছে। পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে টুইট করেন।

টুইট বার্তায় অমরিন্দর সিং বলেন, ‘আমি খুবই খুশি। আমরা দাবি করছি যথাশীঘ্রই তাঁকে মুক্তি দেয়া হবে। আমি মনে করি এটি একটি ভালো উদ্যোগ এবং এটি বজায় থাকবে।’

পাক প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতীয় সাবেক ক্রিকেটার নবজ্যুত সিধু এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘প্রত্যেক মহৎ কাজই তার নিজের জন্যই একটি রাস্তা বাতলে দেয়। ইমরান খান, তোমার শুভেচ্ছার নির্দশন (পাইলটের মুক্তি) কোটি জনতার জন্য ‘এক কাপ জয়’, একটি জাতির আনন্দ। আমি তার মা-বাবার জন্য আনন্দিত এবং তোমার (ইমরান খান) প্রতি ভালবাসা।’

imrampk.jpg

উত্তেজনা প্রশমনে শান্তির ইঙ্গিত হিসেবে আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণার পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ‘উত্তেজনা কমানোর এই পদক্ষেপকে দুর্বলতা হিসেবে বিবেচনা করা উচিত হবে না।’

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে শুক্রবার ফেরতের ঘোষণা দেয়ার পর এ মন্তব্য করেন তিনি। পাক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, সব সঙ্কটই আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা উচিত। কারতারপুর করিডর খোলা সত্ত্বেও আমরা ভারতের কোনো সাড়া পাইনি।

‘পুলওয়ামা হামলার ৩০ মিনিটের মধ্যে আমাদের ওপর দায় চাপানো হলো। আমি বলছি না যে, ভারতের কোনো বিষয়ে পাকিস্তানের ভূমিকা আছে, তবে আমি তাদের তথ্য-প্রমাণ শেয়ার করার আহ্বান জানিয়েছিলাম।’

পাকিস্তানের গণমাধ্যমের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘ভারতের গণমাধ্যম যুদ্ধের হিস্টিরিয়া তৈরি করেছে। আমাদের গণমাধ্যম একাত্বতা দেখিয়েছে এবং দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করেছে।’ ইমরান খান বলেন, আমরা বুঝতে পারছিলাম যে, তারা (ভারত) কিছু করবে। কিন্তু আমাদের অভিযান চালানোর উদ্দেশ্য ছিল শক্তি প্রদর্শন এবং আমরা সেটি করেছি।

‘আমরা ভারতের কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটাতে চাইনি। সেজন্য দায়িত্বশীল উপায়ে কাজ করতে চেয়েছিলাম। আমি আগেই বলেছি, ভারত যদি কিছু করে, তাহলে আমরা তার জবাব দেব।’ তিনি বলেন, ভারত জাতিসংঘের আইন লঙ্ঘন করেছে। তারা আক্রমণ চালানোর দু’দিন পর আজ আমাদের কাছে কিছু নথি দিয়েছে।

পাক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভুল হিসেবের ফলে অনেক দেশ ধ্বংস হয়েছে। যুদ্ধ কোনো সমাধান নয়। ভারত যদি কোনো পদক্ষেপ নেয়, তাহলে আমাদের প্রতিশোধ নিতে হবে। কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন, এক দিক থেকে কাশ্মীরি নেতারা বিচ্ছিন্ন হতে চাননি। কিন্তু ভারতের নৃশংসতার কারণে আজ তারা সবাই স্বাধীনতা চান।

কাশ্মীরের সব ঘটনার জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করার এই প্রবণতা কত দিন পর্যন্ত চলবে, প্রশ্ন ইমরান খানের।তিনি বলেন কাশ্মীর ইস্যু অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যেতে দেয়া উচিত নয়। নতুবা পাকিস্তান প্রতিশোধ নেবে।

imrankhan.jpg

শান্তির ইঙ্গিত হিসেবে আটক ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে শুক্রবার ফেরত দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বৃহস্পতিবার দেশটির পার্লামেন্টে যৌথ অধিবেশনে এই ঘোষণা দেন।

এর আগে বুধবার কাশ্মীরে অনুপ্রবেশের অভিযোগে গুলি চালিয়ে পাকিস্তানি দুটি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে পাকিস্তান। এর মধ্যে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে একটি এবং অপরটি ভারতে ভূপাতিত হয়। পাক-কাশ্মীরে ভূপাতিত হওয়ার উত্তেজিত জনতার হাত থেকে ভারতীয় ওই পাইলটকে উদ্ধার করে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে ভারতকে আর উত্তেজনা না বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে ইমরান খান বলেন, এটাকে আর সামনে এগিয়ে নেবেন না, তাহলে পাকিস্তান প্রতিশোধ নিতে বাধ্য হবে।

তিনি বলেন, ‘পরিস্থিতি যেন এর বাইরে যেতে না পারে সেজন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশা করছি।’

পাকিস্তানের এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের শান্তির ইচ্ছা অনুযায়ী, আমি ঘোষণা করছি যে, উন্মুক্ত আলোচনার পথম পদক্ষেপ হিসেবে অাগামীকাল ভারতীয় বিমান বাহিনীর কর্মকর্তাকে মুক্তি দেবে পাকিস্তান। ইমরান খানের এই ঘোষণাকে পার্লামেন্টে স্বাগত জানান দেশটির সরকারি ও বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যরা।

এর আগে দেশটির টেলিভিশন চ্যানেল জিও নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেন, যদি উত্তেজনা কমিয়ে আনে তাহলে ভারতীয় পাইলটকে ফেরত পাঠানোর বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। তিনি বলেন, পাইলটের মুক্তির বিনিময়ে যদি উত্তেজনা প্রশমিত হয়, পাকিস্তানি এটি বিবেচনা করতে ইচ্ছুক।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় ভারতীয় আধা-সামরিক বাহিনীর গাড়ি বহরে জঙ্গি হামলায় ৪০ জওয়ানের প্রাণহানির পর পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে যুদ্ধবিমান থেকে অভিযান চালায় ভারতীয় বিমানবাহিনী। এই অভিযানের একদিন পর বুধবার দুই দেশের আকাশসীমায় পাল্টাপাল্টি অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটে।

পাকিস্তান বলছে, তারা ভারতীয় বিমানবাহিনীর দুটি বিমান ভূপাতিত এবং একজন পাইলটকে আটক করেছে। ভারতের দাবি, তারাও পাকিস্তানের একটি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে জানায়, পাকিস্তানি অনুপ্রবেশ ঠেকানোর সময় ভারতীয় একটি মিগ-২১ যুদ্ধবিমান ও পাইলট নিখোঁজ হয়েছে।