ক্রিকেট Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

sports-01-big-20190413191836.jpg

তিনি বলিউডের বাদশা। তিনি আইপিএলের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) মালিক। শাহরুখ খানের কন্যা সুহানা এমনিতে বলিউডের উঠতি তারকা। তবে গ্ল্যামার জগতের বাসিন্দা হলেও খেলার প্রতি আলাদা টান রয়েছে তাঁর। কলেজে পড়ার মাঝেই তাই বাবার সঙ্গে প্রায়ই তাঁকে দেখা যায় ইডেন গার্ডেন্সে। প্রিয় কেকেআর দলকে চিয়ার করতে হাজির থাকেন তিনি।

সুহানার ক্রাশ কিন্তু কোনও সিনে জগতের তারা নন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সুহানার সিক্রেট ক্রাশ শুভমন গিল! যিনি শুক্রবার রাসেল-শিখরদের মঞ্চে আলাদা করে নজর করেছিলেন। শুভমনের ৩৯ বলে ঝোড়ো ৬৫ রানের দাপটেই শুক্রবার কেকেআর ১৭৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর বোর্ডে তোলে। যদিও শেষরক্ষা হয়নি।

তবে হেরে গেলেও উঠতি ক্রিকেটার হিসেবে শুভমনের দাপুটে ইনিংস সমালোচকদের প্রশংসা আদায় করে নিয়েছে। এরপরই প্রকাশ্যে এল মালিক শাহরুখের কন্যা সুহানার সিক্রেট ক্রাশের বিষয়!

গত মৌসুমে কেকেআরকে প্লে অফে তুলেও শুভমান গিল জেতাতে পারেননি দলকে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন শুভমন। গতবারের আইপিএলে কেকেআরের জার্সিতে নিয়মিত পারফর্ম করে গেছেন। এবারও মোটামুটি ধারাবাহিক তিনি।

নিজের পারফরম্যান্সের মাধ্যমেই দলের মালিক শাহরুখের মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে নাকি মেয়েরও! একাধিক ক্রিকেট ওয়েবসাইটে সে খবর প্রকাশিত হয়েছে। গত মৌসুমে প্লে অফে কেকেআর বনাম হায়দরাবাদ ম্যাচের পরে শুভমনের সঙ্গে একান্তে কথা বলতে দেখা গিয়েছিল সুহানাকে। সেই পানি কি আজ গড়িয়েছে অন্য খাতে, জল্পনা তুঙ্গে আইপিএল জগতে।

imrankhan.jpg

দরজায় কড়া নাড়ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ-২০১৯। এর আগে টানা হারে দিশেহারা পাকিস্তান। বিষয়টি ভালো নজরে নেননি দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান। ক্রিকেটের স্বীকৃত দুই ফরম্যাট টেস্ট ও ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ পাঁচেও নেই পাকিস্তান। তাই দ্রুত এই অবস্থার পরিবর্তন চান তিনি।

গত বছর আফগানিস্তান, হংকং ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে জিতেছে সরফরাজ বাহিনী। এছাড়া চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত, ক্রিকেটের নব্যশক্তি বাংলাদেশ, পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে দলটি।

বিশ্বকাপে এই দল নিয়ে আশা কতটুকু? সেই আশা পুনরুজ্জীবিত করতে ইমরান খান পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সঙ্গে বৈঠক করেছেন। পিসিবি কর্মকর্তাদের চরম সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, নানা সমস্যায় জর্জরিত পাকিস্তান ক্রিকেট। সমাধানে সবাইকে ব্যক্তিগত স্বার্থ ত্যাগ করতে হবে।

পরিপ্রেক্ষিতে ইমরানকে বোঝাতে নানা যুক্তি পেশ করেন পিসিবি কর্তারা। যুক্তি খণ্ডাতে সাবেক কিংবদন্তি অলরাউন্ডার সোজাসাপ্টা বলেন, ৪০ বছর ধরে ক্রিকেট খেলেছি। আমাকে বোঝাতে এসো না।

পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৮৮ টেস্ট ও ১৭৫ ওয়ানডে খেলেছেন ইমরান। সেই সাথে ১৯৯২ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ তার নেতৃতে ঘরে তুলে পাকিস্তান। দেশটির সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার হিসেবে বিবেচিত তিনি। খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার শেষে জড়িয়ে পড়েন রাজনীতিতে। সেখানেও সফল সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। এখন নানা সমস্যাজর্জর দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন ইমরান খান।

degte.jpg

সফররত বাংলাদেশ দলকে যথাযথ নিরাপত্তা না দেয়ায় ক্রিকেট বিশ্বে এখন নিউজিল্যান্ডে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠেছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের জাতীয় খেলোয়াড় ও ক্রিকেটপ্রেমীরা এক দিকে যেমন বাংলাদেশ দলের জন্য সহানুভূতি জানাচ্ছেন অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের নিরাপত্তা ব্যবস্থার তুমুল সমালোচনা করছেন।

পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরিন আজারি নিজের অফিসিয়াল টুইট বার্তায় বলেন, এই সন্ত্রাসী হামলার পর নিউজিল্যান্ডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ নিষিদ্ধ করা উচিত। এ বিষয়টা আইসিসির ভেবে দেখবে।

আমানউল্লাহ করিম নামের পাকিস্তানের এক নাগরিক টুইটবার্তায় বলেন, বাংলাদেশের উচিত ভবিষ্যতে আর নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কোনো ম্যাচ না খেলা। যেমন সামান্য হামলার অজুহাতে পাকিস্তানের মাটিতে শ্রীলংকা টিম আর আসছে না।

নুসরাত জাহান মিম নামের একজন টুইটবার্তায় বলেন, নিউজিল্যান্ড, তোমাদের জানা উচিত কীভাবে অন্য দেশের নাগরিকদের রক্ষা করতে হয়।

গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নূরে নৃশংস সন্ত্রাসী হামলায় ৪১ জন নিহত হন। আহত হন প্রায় ৩০ জন। তবে অল্পের জন্য বেঁচে যান বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। সেই মসজিদেই জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়েছিলেন তারা।

সেই হামলার কারণে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড তৃতীয় টেস্ট বাতিল করে ক্রিকেটারদের দেশে ফেরত নিয়ে এসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে পাকিস্তান সফররত শ্রীলংকান ক্রিকেট দলকে বহনকারী বাসে সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। লাহোরে সেই হামলার পর থেকে আজও পাকিস্তান যেতে সাহস পাচ্ছে না টেস্ট খেলুড়ে কোনো দেশ।

bd-team-1-20190316231637.jpg

নিউজিল্যান্ড থেকে দেশে ফিরে এসেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা। আজ রাত ১০.৪২ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে ঢাকা হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে এসে পৌঁছায় টিম বাংলাদেশ।

এ সময় বাংলাদেশ দলকে বিমান বন্দরে স্বাগত জানান বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। ক্রিকেটারদের স্বাগত জানাতে বিমান বন্দরের বাইরের সড়কে উপস্থিত হন হাজার হাজার মানুষ।

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল নুরে নারকীয় হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় বাতিল হয়ে গেছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বাংলাদেশের তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ।

যে মসজিদে জঙ্গি হামলার ঘটনায় ৪৯জন প্রাণ হারিয়েছেন, সেখানে আক্রান্ত হতে পারতেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। কিন্তু ভাগ্য ভালো এবং আল্লাহর অশেষ রহমতে বেঁচে যান তামিম-মুশফিকরা। ক্রিকেটাররা মসজিদে পৌঁছার আগেই হত্যাযজ্ঞের ঘটনা ঘটে যায়।

ওই ঘটনার পরই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তৎপরতায় দ্রুততার সঙ্গে বাংলাদেশ দলকে দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

মসজিদ আল নুরে জুমার নামাজ আদায় করার কথা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। সে লক্ষ্যে তারা মসজিদের সামনে পৌঁছেও গিয়েছিলেন। কিন্তু ৫ মিনিট বিলম্ব হওয়ার কারণেই আল্লাহ তাদেরকে এবং পুরো বাংলাদেশকে ভয়াবহ বিপদের হাত থেকে রক্ষা করেছেন।

ঘটনার পরপরই ক্রিকেটাররা হাগলি ওভাল স্টেডিয়ামে ফিরে যান এবং সেখান থেকে চলে যান টিম হোটেলে। বিমানে ওঠার আগ পর্যন্ত হোটেলেই অবস্থান করছিলেন তারা। ক্রিকেটারদের ফেরার বিমানের টিকিট ছিল ২১-২২ তারিখ। কিন্তু উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দ্রুত বিমানের টিকিট ম্যানেজ করে ক্রিকেটারদের দেশে ফিরিয়ে আনা ছিল কঠিন কাজ।

তবুও বাংলাদেশ সরকার এবং বিসিবির ঐকান্তিক চেষ্টার ফলে বাংলাদেশ টিমকে আজই দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশ সময় আজ ভোর ৫টায় ১৫জন ক্রিকেটারসহ দলেল মোট ১৯ সদস্য একসঙ্গে একই বিমানে করেই রওয়ানা দেয় এবং রাত ১০.৪২ মিনিটে ঢাকা এসে পৌঁছাতে সক্ষম হয় তারা।

শনিবারই (১৬ মার্চ) শুরু হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার চলতি সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। কিন্তু ম্যাচটি সমঝোতার ভিত্তিতে বাতিল ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

dt36dt.jpg

দল গঠন থেকে শুরু করে সবকিছুই স্বযত্নে করেছেন তামিম। নেতৃত্বের ভারটাও তার হাতেই থাকার কথা ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিনে কুমিল্লার অধিনায়কের আলোচনায় নতুন নাম যোগ হয়েছে। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, সবকিছু ঠিক থাকলে ষষ্ঠ আসরে দলটির নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন স্টিভ স্মিথ।

অস্ট্রেলিয়ান এই সাবেক অধিনায়ক আগামীকাল বিকালে ঢাকায় আসছেন। প্রথমে চার ম্যাচের পর থেকে খেলার কথা ছিল তার। কিন্তু এখন পূর্ণ সম্ভাবনা বিপিএলের প্রথম ম্যাচ থেকেই স্মিথকে পাবে কুমিল্লা। সময়ের অন্যতম সেরা ক্রিকেটারের নেতৃত্ব গুণ নিয়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্ব পঞ্চমুখ। আর দলে পেয়েও স্মিথের ক্রিকেট মস্তিষ্ক ব্যবহারের চেষ্টা করবে না কুমিল্লা, তা কিছুটা অস্বাভাবিকই বটে।

দল সূত্রে জানা গেছে, স্মিথকে অধিনায়কের দায়িত্ব দেয়া হবে। তামিমও নাকি সেটাই চাইছেন। নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান, সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে ব্যাটিংয়ে নিজের সেরাটা দিতে চান তামিম। তাই স্মিথকে নেতৃত্বের দায়িত্ব দিয়ে কুমিল্লাকে চ্যাম্পিয়ন করতে চাপমুক্ত হয়ে ব্যাটিং করতে চাইছেন অভিজ্ঞ এ ক্রিকেটার।

যদিও গতকাল অনুশীলন শেষে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘এ বিষয়ে এখন কিছুই বলা যাবে না।’

এদিকে আজ কুমিল্লার পাঁচ বিদেশি ক্রিকেটার ঢাকায় আসছেন। দলটির মিডিয়া বিভাগ গতকাল জানিয়েছেন, বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে সিদ্ধহস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার এভিন লুইস, পাকিস্তানের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শোয়েব মালিক, শহীদ আফ্রিদি, তরুণ অলরাউন্ডার আমের ইয়ামিন, আফগান তরুণ পেসার সালমাখেইল আজ আসছেন।

দেশীয় ও বিদেশি ক্রিকেটার মিলে দারুণ দল কুমিল্লা। টুর্নামেন্টের অন্যতম শক্তিধর বললেও ভুল হবে না। কোচ সালাউদ্দিন অবশ্য বলেছেন, দেশীয় ক্রিকেটারদের ভূমিকাই বেশি থাকবে। তাদের ভালো করাই জরুরি। তার চোখে স্মিথের মতো প্রতিটি ক্রিকেটারই গুরুত্বপূর্ণ।

সালাউদ্দিন গতকাল বলেছেন, ‘দেখুন একটি দলের সবাই আসলে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। স্টিভ স্মিথ আসলেই অনেক ভালো খেলোয়াড়। তবে আমার দলের সবাইকেই অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। স্থানীয় ক্রিকেটার এবার যেহেতু সাত জন খেলবে সুতরাং তাদের ভূমিকাটি অনেক বেশি হবে এবং এটি দলের জয়-পরাজয়ের ব্যাপারে অনেক নির্ভর করবে। আমি মনে করি স্থানীয় ক্রিকেটাররা ভালো খেললে বিদেশিদের কাজটি কমে যাবে এবং স্থানীয়দের ভালো করা অনেক বেশি জরুরি।’

স্মিথ আসলে দল কতটা লাভবান হবে জানতে চাইলে কুমিল্লার কোচ বলেছেন, ‘আমার কাছে মনে হয় দলের তো লাভ হবেই, সঙ্গে তার নিজেরও লাভ হবে। সে আন্তর্জাতিক লেভেলে আসার জন্য ম্যাচ খেলতে পারবে। এটা তার জন্য যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমন আমাদের জন্যও সে গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। আমাদের দলের জন্য সে ভালো খেললে তা আমাদের জন্যই ভালো হবে। আমি আসলে প্রত্যেকটি ক্রিকেটারকে নিয়েই রোমাঞ্চিত, শুধু একজনকে নিয়ে নয়।’

dt29dt.jpg

একসময় মনে হচ্ছিল মুশফিককে আইকন বা এ প্লাস ক্যাটাগরিতে কেউ কিনবে না। তাকে রীতিমতো প্লেয়ার্স ড্রাফটেই উঠতে হবে। তবে শেষ মুহূর্তে প্লেয়ার্স ড্রাফট শুরুর ঘণ্টাখানেক আগে মুশফিককে প্লেয়ার্স ড্রাফটের বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত হয়।

সেখানেই উৎসাহী হয়ে আইকন বা এ প্লাস ক্যাটাগরিতে মুশফিকুর রহীমকে দলে নিয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস। অনেক নাটকের পর চিটাগাং ভাইকিংসে নাম লেখাতে পারলেন দেশের অন্যতম সেরা এই উইলোবাজ কাম উইকেটকিপার। শুধু নাম লেখানোই নয়। চিটাগাংয়ের এবারের অধিনায়কও মনোনীত হয়েছেন মুশফিক। আজই আনুষ্ঠানিকভাবে মুশফিককে অধিনায়ক ঘোষণা করেছে চিটাগাং ভাইকিংস।

পাশাপাশি আরও একটি খবর আছে চট্টগ্রামের দলটির সমর্থকদের জন্য। অস্ট্রেলিয়ান সায়মন হেলমটকে নতুন কোচ হিসেবে বেছে নিয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস। দলটির প্রধান টেকনিক্যাল ডিরেক্টর মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আজ সকালেই এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার চিটাগাং ভাইকিংসের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘আমরা বিসিবি হাইপারফরমেন্স ইউনিট (এইচপির) হেড কোচ সায়মন হেলমটকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছি। এই অস্ট্রেলিয়ানের সঙ্গে কথাবার্তা চূড়ান্ত। এবারের বিপিএলে তিনিই চিটাগাং ভাইকিংসের প্রধান কোচ।’

হেলমট প্রধান কোচ হলে গতবারের কোচ ও নান্নুর বড় ভাই নুরুল আবেদিন নোবেলের কী হবে? নান্নুর জবাব, ‘নোবেলও থাকবে। তবে প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করবেন হেলমট।’

এদিকে বিসিবি হাইপারফরমেন্স ইউনিটের প্রধান কোচ হিসেবে কর্তব্যরত সায়মন হেলমটকে নিয়ে বিপিএলে বিদেশি কোচের সংখ্যা দাঁড়ালো পাঁচে।

এছাড়া রংপুর রাইডার্সে অস্ট্রেলিয়ান টম মুডি, খুলনা টাইটান্সের শ্রীলঙ্কান মাহেলা জয়বর্ধানে, সিলেট সিক্সার্সে পাকিস্তানের ওয়াকার ইউনুস এবং রাজশাহী কিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার ল্যান্স ক্লুজনার প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করবেন।

দলগুলোর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই চার বিদেশি কোচের সবাই গড়পড়তা আগামীকাল বা পরশুর মধ্যে ঢাকায় চলে আসবেন।

স্থানীয় মানে বাংলাদেশি কোচ মোটে দু’জন। খালেদ মাহমুদ সুজন (ঢাকা ডায়নামাইটস) ও মোহাম্মদ সালাউদ্দীন (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স)।

dt25dt.jpg

ক্রিকেট পাড়া আবার বিপিএলকে কেন্দ্র করে যারপরনাই সরব হবার পথে। ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং টিম ম্যানেজমেন্টে প্রানচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। এমনিতেই প্রস্তুতি শুরু করতে দেরি হয়ে গেছে। আসর শুরুর বাকি আছে মাত্র চার দিন। তাই সব দল তৎপর যত শীঘ্র সম্ভব অনুশীলন শুরু করতে।

গড়পড়তা ২ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে দলগুলোর প্রস্তুতি। সেটা ঠিকই আছে। তবে ভিতরের খবর, কোন কোন দলের বিদেশী কোচ ও ক্রিকেটারসহ পুরোদস্তুর প্রস্তুতি শুরু করতে হয়ত আরও একদিন বেশী লাগতে পারে।

তবে এখনকার খবর সাত দলের সবাই না হলেও কোন কোন দল নতুন বছরের প্রথমদিন থেকেই বিপিএল প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছে। সেটা শুধুই স্থানীয় ক্রিকেটারদের দিয়ে।

আজ রাত পর্যন্ত একজন বিদেশী ক্রিকেটারও আসছেন না। বেশীর ভাগ ফরেন ক্রিকেটার ও কোচই ২ জানুয়ারি রাজধানীতে এসে পৌঁছবেন। তাই ২০১৯ সালের প্রথম দিন শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের পাশের একাডেমি মাঠে গতবারের ফাইনালিস্ট ঢাকা ডায়নামাইটস, সিলেট সিক্সার্স, রাজশাহী কিংস অনুশীলন করবে। এছাড়া কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শীর্ষ তারকা ও অধিনায়ক তামিম ইকবালও কাল থেকেই প্র্যাকটিস শুরু করবেন ।

এদিকে এবারের বিপিএলে যে চার বিদেশী কোচ টম মুডি, মাহেলা জয়বর্ধনে, ওয়াকার ইউনুস আর ল্যান্স ক্লুজনার যথাক্রমে রংপুর রাইডার্স, খুলনা টাইটান্স, সিলেট সিক্সার্স ও রাজশাহী কিংসের হেড কোচের দায়িত্ব পালন করবেন। চার দলের অফিসিয়ালরা নিশ্চিত করেছেন তারা সবাই ২ জানুয়ারির মধ্যে এসে রাজধানীতে পৌঁছবেন।

এছাড়া ঢাকা ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হেড কোচ হিসেবে থাকবেন খালেদ মাহমুদ সুজন ও মোহাম্মদ সালাউদ্দীন। চিটাগাং ভাইকিংসের গতবারের কোচ নুরুল আবেদিন নোবেল এবারও দলের সাথে আছেন। থাকবেনও। তবে প্রধান কোচের ভুমিকায় থাকবেন কি-না? তা নিশ্চিত নয়।

দলটির প্রধান টেকনিক্যাল এডভাইজার মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, চিটাগাং ভাইকিংস হেড কোচ হিসেবে, বিসিবি হাই পারফরমেন্স ইউনিটের হেড কোচ হেলমোকে পেতে চাচ্ছে। তার সাথে কথা বার্তা চলছে। আজ কালের মধ্যেই তা চূড়ান্ত হয়ে যাবে- এমন বিশ্বাস নান্নুর।

এদিকে খুলনা টাইটানসের মিডিয়া ম্যানেজার মিনহাজউদ্দীন আহমেদ নিশ্চিত করেছেন খুলনার কোচ মাহেলা জয়বর্ধনে রাজধানীতে এসে পৌঁছবে আগামী ২ জানুয়ারি।

তবে আগামীকাল থেকে শুরু হয়ে যাবে খুলনার বিদেশী ক্রিকেটারদের আসা। পুরো দল এক সাথে নিয়ে খুলনার অনুশীলন শুরু ৩ জানুয়ারি। তবে তার আগে কাল বছরের প্রথম দিন প্র্যাকটিস করবেন খুলনার স্থানীয় ক্রিকেটাররা।

অন্যদিকে সিলেট সিক্সার্সের মিডিয়া ম্যানেজার তামজিদুল ইসলাম কাকন  জানিয়েছেন তাদের হেড কোচ ওয়াকার ইউনুস ঢাকা আসবেন ২ জানুয়ারি। তবে স্থানীয় পর্যায়ের ক্রিকেটাররা আগামীকাল থেকেই অনুশীলনে নেমে পড়বেন।

চট্টগ্রামেরও একই অবস্থা। ভাইকিংসের স্থানীয় ক্রিকেটারদের অনুশীলন শুরু ২ জানুয়ারি।

রাজশাহীর মিডিয়া ম্যানেজার অম্লান আহমেদ  নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ক্রিকেটাররা আগেভাগে মানে ১ জানুয়ারি প্র্যাকটিস শুরু করলেও মূল প্র্যাকটিস শুরু হবে ৩ জানুয়ারি। তার আগে ২ জানুয়ারি রাতের মধ্যেই হেড কোচ ল্যান্স ক্লুজনার ও বিদেশী ক্রিকেটারদের চলে আসার কথা।

dt008539.jpg

প্রথম দিন বাংলাদেশের বোলিংয়ে প্রতিরোধের দেয়াল দিয়ে খেলেছে জিম্বাবুয়ে। প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শুরুটায় ছিলো বিপরীত চিত্র। বাংলাদেশের ঘূর্ণিতে সেই দেয়াল চূর্ণ হয়েছে। প্রথম সেশন শেষ হওয়ার আগেই জিম্বাবুয়েকে প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানে গুটিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। স্পিনার তাইজুলের ঘূর্ণিতে পুরোপুরি খেই হারিয়েছে এদিন। নিয়েছেন ৬ উইকেট!

সিলেটে এদিন ১২ ওভার পর আসে দ্বিতীয় দিনের প্রথম সাফল্য। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে প্রথম দিনের মতো পিজে মুর ও রেগিস চাকাভা মিলে প্রতিরোধ দিচ্ছিলেন বড় সংগ্রহ পেতে। ১০৩তম ওভারে তাইজুলের বলেই অবশেষে ধরা দেন রেগিস চাকাভা। শর্ট লেগে ক্যাচ তুলে দেন নাজমুলের হাতে। ২৮ রানে ফিরে যান সাজঘরে। দিনের শুরুতে তার ও চাকাভার জুটিটি ছিলো ৩৫ রানের।

তাইজুলের ঘূর্ণিজাদু এরপর থেকেই শুরু। নতুন নামা কোনও ব্যাটসম্যানকেই পথের কাঁটা হতে দেননি। তেমন ধারাতে ওয়েলিংটন মাসাকাদজাকেও বেশিক্ষণ থিতু হতে দেননি তাইজুল। ২৮ বল খেলা ওয়েলিংটনকে ৪ রানেই গ্লাভসবন্দী করান। তবে অপর প্রান্ত আগলে ছিলেন পিজে মুর। দৃঢ় চেতা ব্যাটিংয়ের উদাহরণ হয়ে হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন। অপরাজিত ছিলেন ৬৩ রানে। চার মেরে তাইজুলের ওভারে চতুর্থ হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি।

এরপর স্পিনার নাজমুল ইসলামের আঘাতে ব্রেন্ডন মাভুতা। ৩ রান করা মাভুতাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন নাজমুল। দিনের শুরুটায় ঘূর্ণিজাদুতে শুরু করা তাইজুল লেজ ছেঁটে দেন পর পর দুই উইকেট নিয়ে। কাইল জার্ভিসকে প্রথম স্লিপে তালুবন্দী করিয়ে পরের বলে সাজঘরে ফেরান চাতারাকে।

তাইজুল ১০৮ রানে নিলেন ৬ উইকেট। দুটি নিলেন নাজমুল, একটি করে মাহমুদউল্লাহ ও আবু জায়েদ।