নুসরাত Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

nusrat-270573.jpg

বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে ভোট প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন তৃণমূল সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। গত বুধবার (২৪ মার্চ) ডেবরা বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী হুমায়ুন কবীরের সমর্থনে প্রচার করেছেন তিনি।

এ সময় নুসরাত বলেন, মনে রাখবেন শুধু একটাই মুখ, সেটা দিদির মুখ। যিনি শুধুমাত্র বাংলার জন্য লড়াই করে যাচ্ছেন। আমাদের দলের মানুষের থেকে যদি কিছু ভুল হয়ে গিয়ে থাকে, আপনাদের তো মন বড়। ক্ষমা করে দেবেন। আমাদের দলের মানুষ যদি কোনো ভুল করে থাকে, আপনাদের তো মন বড়। ক্ষমা করে দেবেন।

অভিনেত্রী থেকে রাজনীতিতে যোগ দিয়েছেন নুসরাত। তৃণমূল কংগ্রেসে হয়ে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এবারের নির্বাচনে সক্রিয় ভূমিকা রাখছেন নুসরাত। মমতা ব্যানার্জি থেকে শুরু করে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কাজ করছেন তিনি।

সুন্দরী প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ২০১০ সালে শোবিজে পা রাখেন নুসরাত। রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত ‘শক্র’ সিনেমায় অভিনয় করে ২০১১ সালে বড়পর্দায় অভিষেক তার। এতে জিতের বিপরীতে অভিনয় করেছেন নুসরাত। এরপর দেব, অঙ্কুশ, আবীর, যশ, শাকিব খানের সঙ্গে একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। বক্স অফিসে উপহার দিয়েছেন অনেকগুলো ব্যবসা সফল সিনেমা।

nusrat333.jpg

পশ্চিমবঙ্গে জমে উঠেছে বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা। এবারের নির্বাচনে বিজেপি, তৃণমূল ও কংগ্রেস-বামফ্রন্ট জোটের ত্রিমুখী লড়াইয়ে নানা কৌশলে চলছে ভোটের প্রচার।

তবে রাম-বাম, গেরুয়া-সবুজ- রাজ্যের প্রথম সারির অনেক নেতা-নেত্রীসহ সবার মুখেই উঠে আসছে একটি স্লোগান- ‘খেলা হবে’।

এবার সেই স্লোগান দিয়ে আলোচনায় এলেন বসিরহাটের তৃণমূলের সংসদ সদস্য অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

সম্প্রতি তৃণমূলের নির্বাচনী প্রচারণায় যান নুসরাত। সেখানে নির্বাচনী সভায় তিনি বললেন- ‘খেলা হবে, জেতা হবে’।

বিষয়টি নিয়ে তিনি ফেসবুকেও স্ট্যাটাস দিয়েছেন। ওই স্ট্যাটাসের সঙ্গে জনসভার কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত গত কয়েক মাস ধরে নুসরাত জাহানের সংসার ভাঙার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। স্বামী নিখিলের সঙ্গে এক ছাদের নিচে না থাকলেও অভিনেতা যশের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্কের গুঞ্জন উঠেছে।

nusrAT32.jpg

নুসরাত জাহানকে বিবাহবিচ্ছেদের নোটিশ দিয়েছেন নিখিল জৈন। কলকাতার গণমাধ্যমগুলোতে এমন খবরই দেখা যাচ্ছে কয়েকদিন ধরে। তবে এ নিয়ে মুখ খুলেছেন নুসরাত। তিনি দাবি করেছেন, খবরটি ভুয়া।

নুসরাতের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে জানানো হয়েছে, দাম্পত্য জীবনে কিছু সমস্যা থাকলেও তা সমাধানের চেষ্টা চলছে। মাসখানেক আগেই নিখিলের এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ইঙ্গিত ছিলো সম্পর্কের ভাঙনের। নিজের ছবি ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে আপলোড করে তাকে লিখতে দেখা গিয়েছিলো, ‘কোনো মানুষ আপনার সঙ্গে যেমন ব্যবহার করবে সেটা তার কর্ম। আর আপনি তার উত্তর কীভাবে দেবেন তা আপনার কর্ম’।

তার এমন পোস্টকে কেন্দ্র করে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিল সংসার ভাঙনের। আলোচনায় এসেছিলো নুসরাতের সঙ্গে নায়ক যশের সম্পর্ক।

প্রসঙ্গত, নায়িকা নুসরাতের সঙ্গে ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ২০১৮ সালে। প্রেমের পর বেশ ঘটা করে নুসরাত বিয়ে করেছিলেন ২০১৯ সালের ১৯ জুন। সেই বিয়ে হয়েছিলো সুদূর তুরস্কে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের হাতে গোনা কিছু সদস্য ও বন্ধুবান্ধব।

nusrat-nikhils.jpg

দুজনের কেউ মুখ না খুললেও বোঝা যাচ্ছিলো, অনেক দিন ধরে দাম্পত্য জটিলতার মধ্যে আছেন তারা। অবশেষে স্ত্রী নুসরাত জাহানের কাছে বিবাহবিচ্ছেদের দাবি জানালেন নিখিল জৈন। খবরটি জানিয়েছে কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা। তবে সংবাদমাধ্যমটিকে নিখিল জানান, এই বিষয়ে এখনই কিছু বলতে চান না। যা বলার পরে বলবেন।

সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হচ্ছে, এখনো নিখিলের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন নুসরাত। নিখিল তাতে কোনো দিন বাধা দেননি। যশের সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জন বা একসঙ্গে রাজস্থানে ছুটি কাটাতে যাওয়া কোনো কিছু নিয়েই মুখ খোলেননি। এমনকি তার সোশ্যাল হ্যান্ডেল থেকে নুসরাত-বিরোধী পোস্ট দেখা যায়নি।

বরং ভালোবাসা দিবসে আকারে ইঙ্গিতে বলেছিলেন, নুসরাত বদলে গেলেও তিনি একই রকম আছেন। কিন্তু অবশেষে বাধ্য হয়ে তিনি এই পদক্ষেপ নিলেন।

মনে করা হচ্ছে, বিচ্ছেদের পর নুসরাত মোটা টাকা খোরপোষ দাবি করবেন। কারণ তার অতীতের সম্পর্কেও একই রকম ইতিহাস জানা যায়। বিয়ে না করলেও, বিচ্ছেদের সময় প্রেমিকদের সঙ্গে অনেক টাকার আদানপ্রদান হয়েছিল।

তবে পুরো বিষয়টি নিয়ে একদম চুপ নুসরাত। তার সঙ্গে যাকে নিয়ে এত গুঞ্জন সম্প্রতি সেই যশও যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। এমনও বলা হচ্ছিল, তৃণমূল সংসদ সদস্য নুসরাতের দাম্পত্য জটিলতার পেছনে রাজনৈতিক কারণ রয়েছে।

এদিকে ইনস্টাগ্রাম বলছে, নুসরাতের সঙ্গে সম্পর্কের তিক্ততা থাকলেও তার বোন নুজহাত জাহানের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেছেন নিখিল। তাহলে কি এই বিচ্ছেদ আরও গাঢ় করবে নুসরাত ও যশের সম্পর্ক সম্পর্কও? যশের সঙ্গেই কি নতুন অধ্যায় শুরু হবে নুসরাতের? সেটা দেখার জন্যই এখন অপেক্ষা।

২০১৯ সালের ১৯ জুন তুরস্কের বোদরুম শহরে পাম অ্যাভিনিউয়ের ইডেন ইম্পেরিয়ালে কলকাতার সফল ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের গলায় মালা পরান অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। তাদের সেই বিয়েতে উপস্থিত ছিল শুধু দুই পরিবারের সদস্য, আত্মীয়-স্বজন ও কাছের কয়েকজন বন্ধু।

Nusrat21.jpg

‘ধর্ষণের হুমকি আমিও পাই। যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা, সেখানকার মেয়েরা ধর্ষণের হুমকিকে ভয় পায় না। সাহস থাকলে আমাদের ধর্ষণ করুক! ঝাঁটা-বঁটি নিয়ে তেড়ে যাব।’ সম্প্রতি এক সভায় এভাবেই বিজেপির নেতাদের কঠোর সমালোচনা করেন টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও সংসদ নুসরাত জাহান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, দিন কয়েক ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় টালিউড তারকাদের খুন ও ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বিশেষত ‘গো-মাংস রান্না’ এবং ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানের বিরোধিতা করে দেবলীনা দত্ত এবং অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ বর্তমানে বিজিবির চরম রোষানলে পড়েছে। ইতোমধ্যেই এই দুই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তার প্রতিবাদেই ফুঁসে উঠেছে অভিনেত্রী নুসরাত।

নাম না নিয়েই এক বিজেপি নেতার উদ্দেশ্যে এ অভিনেত্রী বলেন, ধর্ষণের হুমকি আমার কাছেও আসে। কিন্তু আমি বা এই মঞ্চে উপস্থিত কোনও মহিলা এই ধরনের হুমকিকে ভয় পায় না। সাহস থাকলে আমাদের ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে দেখাক।

বাংলার বাড়িতে-বাড়িতে ঝাঁটা আছে, বঁটি আছে। কেউ আমাদের ভয় দেখালে তাঁদের ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হবে। আজ সায়নী-দেবলীনার সঙ্গে যা হয়েছে তা যাতে আর কোনও মেয়েদের সঙ্গে না হয়, সেই জন্যই এই মঞ্চে উপস্থিত হয়েছি আমি।

তিনি বলেন, তোমরা বাংলার সংস্কৃতি বোঝো? বোঝো না বলেই মেয়েদের অপমান করো। কিন্তু জেনে রাখো, বাংলার মেয়েদের সম্মান তাদের হাতেই। তাই তোমরা কেড়ে নিতে পারবে না।

নুসরাত আরও বলেন, যে দল মানুষের পাশে নেই, তার জায়গা হবে না বাংলার মাটিতে।

nusrat333f.jpg

সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব নুসরাত জাহান। কলকাতার এই নায়িকা ও সংসদ নানা সময়েই নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েন।

কিন্তু থেমে যাওয়ার পাত্র নন তিনি। সব সমালোচনা উপেক্ষা করে নিজের দর্শনেই চলেন নুসরাত।

এই নায়িকা ব্যক্তিগত জীবনে নিয়ম মেনে চলায় পক্ষপাতী? নাকি নিয়ম ভেঙে বেশি আনন্দের খোঁজে সদাই ব্যস্ত তিনি!

নুসরাতের একটি ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘যদি তুমি সমস্ত নিয়ম ঠিক ঠিক মেনে চল, তাহলে সব মজাই মাটি!’

এখন প্রশ্ন উঠেছে তাহলে নতুন বছরেও নিয়ম মানার থেকে নিয়ম ভাঙাতেই কি বেশি আগ্রহী হবেন নুসরাত? বরাবরের মতো?

এই নায়িকা কোনোদিন কোনো কিছুতেই বাঁধাধরা নিয়ম মেনে চলেননি। নিজের ধর্মে সম্পূর্ণ আস্থা রেখেই আজীবন সম্মান জানিয়ে এসেছেন সব ধর্মের মানুষদের।

জীবনসঙ্গী বেছেছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বী নিখিল জৈনকে। আবার বিয়ের পরেই নিজের সমাজের নিয়ম ভেঙে হিন্দু রমণীর মতোই চূড়া, সিঁদুর, মঙ্গলসূত্রে সেজেছেন।

Nusraat-j4.jpg

বিতর্ক যেন কোনোভাবেই তার পিছু ছাড়তে চায় না। শুক্রবার রাতে ছবি আঁকার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতেই নুসরাত জাহানকে লক্ষ্য করে ধেয়ে আসে নানা নেতিবাচক মন্তব্য। তারকা যদি শিল্পী হন, তাতেও যেন সমস্যা নেটাগরিকদের!

সেই রেশ কাটার আগেই শনিবার দুপুরে নতুন ছবি পোস্ট করে ফের নেট দুনিয়ায় আগুন জ্বালালেন এই তারকা সাংসদ।

লাল শাড়ি, লাল ব্যাকলেস চোলি। লাল অন্তর্বাস। চুল মাথার উপর তুলে ক্যাচারে আটকানো। চোখে রোদচশমা।

সূর্যের দিকে মুখ করে দাঁড়ানো অভিনেত্রী যেন সূর্যমুখী! সব ছাপিয়ে নজর টেনেছে তার মাখন গলা পিঠ, মুঠো মাপের কোমর।

নুসরাতকে জড়িয়ে আছে শীত রোদ। এটুকুই উষ্ণতা ছড়ানোর জন্য যথেষ্ট।

এক নেটাগরিকের আফসোস, ‘ধন্য পশ্চিমবঙ্গবাসী। এ রকম ট্যালেন্টেড সাংসদ পেয়েছে!’

চোখে আটকানোর মতো আপত্তিকর মন্তব্যও আছে অনেক। যদিও যার ছবি দেখে নেট পাড়ার পড়শিদের ঘুম উড়েছে সেই নুসরাতের কিন্তু এ সব নিয়ে একটুও মাথাব্যথা নেই। উল্টো ছবিতে ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘আমাকে পড়তে চেষ্টা কোরো না। স্নাতক হতে পারবে না!’

তারও জবাব মিলেছে। এক নেটাগরিক কান এঁটো করা মন্তব্য লিখেছেন, ‘ঠিক আছে। কোনও সমস্যা নেই। আমি তো কেবল উচ্চমাধ্যমিক পাস!’

nusrat333f.jpg

আবারো ট্রলের শিকার হলেন নুসরাত জাহান! রিল ভিডিও বা কোনও উৎসবকে কেন্দ্র করে নয়। এবার ট্রলিংয়ের কারণ তাঁর ফটোশ্যুট।

বছর ফুরিয়ে এলেও উৎসবের মৌসুম ফুরায়নি। বিয়েবাড়ি আছে। বড়দিন, ইংরেজি নববর্ষও বাকি। আর বাঙালি উৎসবপ্রেমী।

তাই বিশেষ দিনে স্পেশাল কিছু দেখানোর টিপস দিয়েছেন সাংসদ-তারকা।

স্বামী নিখিল জৈনের সংস্থার তৈরি পোশাকে নিজেকে সাজিয়ে ভিডিও শ্যুট করে। সেই ক্লিপিং শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সেখানেই উড়ে এসেছে মন্তব্য, ‘শুধু ফটোশ্যুট করলেই হবে দিদি? কাজও কিছু করুন, বসিরহাটের লোকজন তো আপনার টিকিও খুঁজে পাচ্ছে না কয়েক মাস ধরে!’

কোনও উত্তর দেননি বসিরহাটের সাংসদ। তবে কাজে করে দেখিয়েছেন। অতি সম্প্রতি পৌঁছে গিয়েছিলেন তাঁর নির্বাচনী কেন্দ্রে।

একুশের নির্বাচনের আগে শাসকদলের নতুন পদক্ষেপ ‘দুয়ারে সরকার’-এর কাজ ঠিকমতো হচ্ছে কি না বসিরহাটে, দেখতে।

বসিরহাটের নানা অঞ্চল ঘুরে তৃণমূলের হয়ে প্রচার করতেও দেখা যায় তাঁকে। শোনেন বাসিন্দাদের কথা।

সেলফিও তোলেন অঞ্চলের মানুষের সঙ্গে। সেই ছবি পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে অভিনেত্রীর ফ্যান ক্লাব। ট্রলিংয়ের ‘জবাব’ হিসেবে।

এভাবেই উঠতে-বসতে সেলেবদের ট্রোল করাটা যেন নেটিজেনদের নিউ নর্মালের নয়া অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে! কে কাকে বিয়ে করবেন, নতুন বৌয়ের চেহারা, চুলের স্টাইল, সিঁদুর পরানোর ধরন-কিচ্ছু বাদ নেই এই তালিকা থেকে। সম্প্রতি বিয়ে করে বিচ্ছিরি ভাবে ট্রলড হয়েছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য।

নুসরত জাহানও ট্রলড হন প্রায়ই। উৎসবে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে। রিল ভিডিয়োর জন্য। এবং প্রতিবাদী সত্ত্বার জন্য।

কিছু দিন আগেই এই ‘লাভ জিহাদ’ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন তারকা, ‘‘ভোট এলেই ‘লাভ জিহাদ’ শব্দটা ঘুরে ফিরে আসে।

অথচ দুটো শব্দের সম্পূর্ণ বিপরীত অর্থ। কিছুতেই পাশাপাশি বসতে পারে না।’’

nusrat-247995.jpg

আগুনে পুড়ে মেরে ফেলা ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির জন্মদিন ছিল শুক্রবার (২০ নভেম্বর)।

নুসরাতের জন্মদিনে ফেসবুকে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছে তার ছোট ভাই রাসেদুল হাসান রায়হান। যার প্রতিটি শব্দ যেন কান্না হয়ে ঝরছে।

বোনের জন্মদিনে ফেসবুক পোস্টে রায়হান লিখেছেন, ‘আপু আপনাকে ভুলিনি আমি, আমার অনুভূতিতে এক স্বপ্ন হয়ে আপনি আছেন, অদৃশ্য ভালোবাসায় পূর্ণ আমার অনুভূতিগুলো, আপুনি শুনতে পাচ্ছেন কি আমার শব্দহীন চিৎকার? আপনাকে হারিয়ে এখনও এক মানসিক বিপর্যয়ে নিমজ্জিত।

এই হাসিটাই আমাদের ভালো থাকার কারণ ছিল তাই না আপু? কিন্তু কিছু মানুষরূপী জানোয়ার ইতি টেনে দিলো আমাদের সম্পর্কের।

শুভ জন্মদিন আপুনি। স্মৃতিচারণ ছাড়া নিজের মনকে সান্ত্বনা দিতে পারছি না। মহান আল্লাহ আপনাকে জান্নাতবাসী করুন।’

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের দায়ে ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ দৌলাকে আটক করে পুলিশ।

পরে ৬ এপ্রিল ওই মাদ্রাসার কেন্দ্রের সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নিয়ে অধ্যক্ষের সহযোগীরা নুসরাতের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়।

১০ এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত জাহান রাফি।

vsnusrat.jpg

কলকাতার একটি গয়না সংস্থার বিজ্ঞাপন নিয়ে গত দুদিন ধরেই সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া।

খুব সাধারণভাবে অতি গুরুত্বপূর্ণ কথা দেখিয়ে ফেলেছে ওই গয়না সংস্থাটি।

বিজ্ঞাপনটিতে দেখা যায়, হিন্দু মেয়ে মুসলিম ঘরের বউ হয়েও ‘সাধ’ খাচ্ছেন পরম আদরে।

কিন্তু এই দৃশ্য মেনে নিতে পারছেন না নেটিজেনদের একাংশ। ফলে বিজ্ঞাপনটি নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

এই বিতর্ক আরো বাড়িয়ে এর মধ্যে এক নেটিজেন টেনে আনেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও বসিরহাটের সাংসদ নুসরাত জাহান এবং তার স্বামী নিখিল জৈনের বিয়ের প্রসঙ্গ।

হিন্দু ধর্মাবলম্বী নিখিলকে বিয়ে করেছেন এই মুসলিম নায়িকা। তাই ওই নেটিজেনের বাঁকা উক্তি, ‘বিজ্ঞাপনে অন্যদের মডেল করার কী দরকার ছিল, যেখানে ‘রোল মডেল’ নিখিল-নুসরাত রয়েছেন।’

হিন্দি ভাষায় সরাসরি ওই নেটিজেন আঙুল রেখেছেন সাংসদ-অভিনেত্রী এবং তার ব্যবসায়ী স্বামীর এই স্পর্শকাতর জায়গায়।

নিখিল হার পরিয়ে দিচ্ছেন নুসরাতকে- এই ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘বিজ্ঞাপন প্রস্তুতকারীরা বড় ভুল করে ফেলেছেন।

এখানে নিখিল জৈন এবং নুসরাত জাহানকে দেখানো উচিত ছিল। আজ না হয় কাল, নুসরাতও তো গর্ভধারণ করবেন।’

প্রসঙ্গত, নিখিলকে বিয়ে করার পর থেকেই রোষের মুখে নুসরাত জাহান।

সিঁদুর, চুড়া, মঙ্গলসূত্র, শাড়ি পরে সংসদ ভবনে যেতেই নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে তাকে নিয়ে।

যদিও সাংসদ-অভিনেত্রী কোনো দিনই এসবে কান দেননি।

উল্টো তিনি উপস্থিত থেকেছেন রথযাত্রায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সমস্ত হিন্দু উৎসবে।


About us

DHAKA TODAY is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and 7 days in week. It focuses most on Dhaka (the capital of Bangladesh) but it reflects the views of the people of Bangladesh. DHAKA TODAY is committed to the people of Bangladesh; it also serves for millions of people around the world and meets their news thirst. DHAKA TODAY put its special focus to Bangladeshi Diaspora around the Globe.


CONTACT US

Newsletter