বিমান Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

plane-20190504112049.jpg

অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে ছিটকে ফ্লোরিডার একটি নদীতে গিয়ে পড়েছে বোয়িং ৭৩৭ মডেলের একটি বিমান। বিমানটি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের জ্যাকসনভিলে বিমানবন্দরে অবতরণের সময় কাছাকাছি একটি নদীতে গিয়ে পড়ে।

তবে ওই দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বিমানের সব যাত্রী এবং ক্রু সদস্য। তাদের সবাইকে নিরাপদেই বিমানের ভেতর থেকে বের করে আনা সম্ভব হয়েছে। বিমানটি যেখানে গিয়ে পড়েছে সেখানে পানি কম ছিল। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা হয়। ফলে যাত্রীদের বড় ধরনের কোন ক্ষতি হয়নি।

স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৪০ মিনিটে মিয়ামি এয়ার ইন্টারন্যাশনালের ওই বিমানটি একটি নৌ-বিমানবন্দরে অবতরণের চেষ্টা করছিল। বিমানটি গুয়ান্তানামো বে থেকে যাত্রা করেছিল। অবতরণের সময় এটি রানওয়ে থেকে ছিটকে সেন্ট জন্স নদীতে গিয়ে পড়ে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই দুর্ঘটনায় বিমানের সব যাত্রী নিরাপদে আছেন। ২১ জন প্রাপ্তবয়স্ককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তাদের কারো আঘাতই তেমন গুরুতর নয়।

স্থানীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, বিমানটি যে সময় অবতরণের চেষ্টা করছিল তখন ভারী বজ্রপাত হচ্ছিল। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বিমানটিতে ১৩৬ জন যাত্রী ছিল। তবে সে সময় বিমানটিতে কতজন ক্রু ছিলেন তা স্পষ্ট নয়।

biman1-20190405222106.jpg

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স একসময় পাঁচটি ডিসি-১০ দিয়ে ২৮টি আন্তর্জাতিক রুট পরিচালনা করত। বর্তমানে ১৩টি অত্যাধুনিক উড়োজাহাজ দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে মাত্র ১৫টি আন্তর্জাতিক রুট। একের পর এক রুট হারানোর কারণ হিসেবে দুর্নীতি ও অনিয়মকে দায়ী করছেন অনেকে। তাদের মতে, বিমানের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের কাছে একপ্রকার নতিস্বীকার করে বসেছে কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বহরে নতুন নতুন এয়ারক্রাফট যুক্ত হলেও ২০১৩ সালের পর বিমান কোনো নতুন রুট চালু করতে পারেনি। বরং কয়েকটি রুট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে বিমানের মুখপাত্র শাকিল মেরাজ  বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স একটি রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান। এখানে বাস্তবতার আলোকে সব সিদ্ধান্ত নিতে হয়। নানা সীমাবদ্ধতার কারণে বিগত কয়েক বছর কোনো নতুন রুট খোলা সম্ভব হয়নি। তবে নিকট ভবিষ্যতে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক রুটে ডানা মেলবে বিমান। এর মধ্যে জুনে গুয়াংজু এবং অক্টোবরে মদিনা রুটে ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শাকিল মেরাজ আরও বলেন, বর্তমানে বিমানের বহরে ১৩টি উড়োজাহাজ থাকলেও নতুন প্রজন্মের আরও দুটি ড্রিমলাইনার আসছে জুলাই ও সেপ্টেম্বরে। সহসাই বিমানের বহরে যুক্ত হচ্ছে দুটি বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজ। এছাড়া এ বছর হজ ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আসবে আরও দুটি বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজ।

জানা গেছে, প্রায় ৪৭ বছর আগে জন্ম নেয়া বিমানে নতুন উড়োজাহাজ থাকার পরও সে তুলনায় রুট বাড়ানো যায়নি। অপরদিকে মাত্র নয়টি ছোট ছোট উড়োজাহাজ দিয়ে ১৫টি রুট পরিচালনা করছে বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলা। শুধুমাত্র অনটাইম পারফরমেন্সের কারণে বর্তমানে এয়ারলাইন্সটি এখন দেশে-বিদেশে বেশ জনপ্রিয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। সরকারের দেয়া বিমানবাহিনীর একটি ডিসি-৩ এয়ারক্রাফট দিয়ে এর যাত্রা শুরু। ১৯৭২ সালের ৭ মার্চ চট্টগ্রাম ও সিলেটে এবং ৯ মার্চ যশোরে একটি ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে আকাশে ওড়ে বিমান। এভাবেই শুরু হয় বিমানের অভ্যন্তরীণ কার্যক্রম। এরপর থেকে আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি।

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের তিনদিন আগে অর্থাৎ ওই বছরের ৪ মার্চ ১৭৯ জন যাত্রীকে লন্ডন থেকে ঢাকায় নিয়ে আসার মধ্য দিয়ে বিমানের প্রথম আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শুরু হয়।

২০০৭ সালে বিমান পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। ২০০৮ সালে নতুন প্রজন্মের ১০টি এয়ারক্রাফটের জন্য বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করে বিমান। ১০টি এয়ারক্রাফটের মধ্যে বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর চারটি, দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও চারটি বোয়িং ৭৮৭।

biman1-20190405222106.jpg

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে ৭০ জন প্রার্থী তাদের আবেদন জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে ১২ জন বিদেশি প্রার্থী রয়েছেন।

গত ১৪ মার্চ নিজস্ব ওয়েবসাইটে এ-সংক্রান্ত একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সংস্থাটি। সোমবার (১৬ এপ্রিল) ছিল আবেদন জমা দেয়ার শেষ দিন।

বিমানের নিয়োগ শাখাসূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে দেশি-বিদেশি মোট ৭০ জন প্রার্থী আবেদন করেছেন। এদের মধ্যে বিদেশি প্রার্থী রয়েছেন ১২ জন। তবে উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) পদে কোনো বিদেশি আবেদন করেননি।

বর্তমানে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এমডি ও সিইও পদে বহাল আছেন এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ। টানা তৃতীয় মেয়াদে বিমানের এই পদে রয়েছেন তিনি। এর আগে ভারপ্রাপ্ত এমডি ও সিইও হিসেবেও এই সংস্থায় দায়িত্ব পালন করেন মোসাদ্দিক আহমেদ।

দীর্ঘদিন পর নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে নতুনের সন্ধানে নেমেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। ১৪ মার্চ প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে এভিয়েশন বা এয়ারলাইন্সের পরিচালক পদে ১০ বছরের বছরের অভিজ্ঞতা চাওয়ায়, বিমানের কোনো সাবেক পরিচালক আবেদন করতে পারেননি।

উল্লেখ্য, নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ব্যাপক হারে বিদেশিদের টানতে শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক রাখা হয়েছে। তবে শুধু স্নাতক হলে চলবে না, সঙ্গে থাকতে হবে ১০ বছরের এভিয়েশন খাতের পরিচালক পদসহ ২০ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা।

এছাড়াও এয়ারলাইন্স মার্কেটিং সম্পর্কিত জ্ঞান, কোড শেয়ার, রাজস্ব ব্যবস্থাপনা এবং অনলাইন ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম জানতে হবে। জ্ঞান থাকতে হবে এভিয়েশন ও শ্রম আইন সম্পর্কেও।

বিজ্ঞপ্তিতে বেতনের ব্যাপারে কিছু বলা হয়নি। আগতদের প্রত্যাশিত বেতনের অঙ্ক উল্লেখ করতে বলা হয়েছে।

us-bangla-5caf647dc3001.jpg

বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হয়েছে আরও একটি নতুন এটিআর ৭২-৬০০ উড়োজাহাজ। এ নিয়ে দু’সপ্তাহের ব্যবধানে দুটি উড়োজাহাজ সংস্থাটির বহরে যুক্ত হয়েছে।

ইউএস-বাংলার জিএম-মার্কেটিং সাপোর্ট অ্যান্ড পিআর জানান, দ্বিতীয় এটিআর ৭২-৬০০ উড়োজাহাজটি ফ্রান্সের ব্ল্যাগনাক এয়ারপোর্ট থেকে মিসর, ওমান হয়ে গত বুধবার রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকভাবে একে গ্রহণ করেন সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আসিফ। এ সময় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ও বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ছিলেন।

সংস্থাটির কর্মকর্তারা জানান, এটিআর ৭২-৬০০ উড়োজাহাজে ৭২টি আসন রয়েছে, যা দিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

তারা আরও জানান, ‘ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ’ স্লোগান নিয়ে ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই ৭৬ আসনবিশিষ্ট দুটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ উড়োজাহাজ দিয়ে ঢাকা-যশোর ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে ইউএস-বাংলা। বর্তমানে সংস্থাটির বহরে নয়টি উড়োজাহাজ রয়েছে।

এর মধ্যে ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ ও দুটি এটিআর ৭২-৬০০। অধিকতর অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনার লক্ষ্যে আগামী মে মাসের মধ্যে আরও দুটি এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট সংস্থাটির বহরে যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এ ব্যাপারে ইমরান আসিফ বলেন, যাত্রা শুরুর পর গত পাঁচ বছরে প্রায় ৬০ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করেছে ইউএস-বাংলা। বর্তমানে অভ্যন্তরীণ সব রুটসহ আন্তর্জাতিক রুট কলকাতা, চেন্নাই, মাস্কাট, দোহা, কুয়ালালামপুর, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক ও গুয়াংজু রুটে নিয়মিত এ সংস্থার ফ্লাইট চলছে।

biman.jpg

২০১৮ সালে এক বছরের ওয়েট লিজ চুক্তির ভিত্তিতে মালয়েশিয়ার উড়োজাহাজ ইজারাদাতা-প্রতিষ্ঠান ফ্লাই গ্লোবাল থেকে তিনটি বোয়িং-৭৭৭ উড়োজাহাজ ইজারা নেয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। ওয়েট লিজের (ভাড়ায়) শর্ত অনুযায়ী ফ্লাই গ্লোবালের বৈমানিক ও ক্রু দিয়ে এসব উড়োজাহাজের ফ্লাইট পরিচালনা করতে নানা সমস্যায় পড়ে বিমান। ফ্লাইট শিডিউল বিপর্যয়সহ নানা কারণে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয় রাষ্ট্রায়ত্ত উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থাটিকে। দীর্ঘদিন অচল পড়ে থাকে উড়োজাহাজগুলো।

ফ্লাই গ্লোবাল শর্ত অমান্য করায় বিমানও তাদের দাবি করা ৪০ লাখ ডলার (প্রায় ৩৪ কোটি টাকা) পরিশোধ করবে না বলে জানিয়ে দেয়। এ নিয়ে তিন মাস ধরে চলে বাগ্বিতণ্ডা। বিষয়টি নিয়ে সমঝোতা করতে গত সপ্তাহে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালক (প্ল্যানিং) এয়ার কমোডর মাহবুব জামানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের এক প্রতিনিধি দল মালয়েশিয়ায় যায়। সেখানে দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনায় ৮ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণের বিষয়ে একটি সিদ্ধান্ত হয়।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালে এক বছরের ওয়েট লিজ চুক্তির ভিত্তিতে ফ্লাই গ্লোবালের তিনটি বোয়িং-৭৭৭ উড়োজাহাজ নিজস্ব বহরে যুক্ত করে বিমান। ওয়েট লিজের শর্ত অনুযায়ী ফ্লাই গ্লোবালের বৈমানিক ও ক্রু দিয়ে এসব উড়োজাহাজের ফ্লাইট পরিচালনা করতে গিয়ে বিভিন্ন সময় বিপত্তির সম্মুখীন হয় বিমান। নির্ধারিত সময়ে ফ্লাইট ছেড়ে না যাওয়া, হঠাৎ ক্রু অসুস্থ হয়ে পড়াসহ বিভিন্ন কারণে সংকটের মুখোমুখি হয় বিমান কর্তৃপক্ষ।

চুক্তি শেষে বিমান কর্তৃপক্ষ তিনটি উড়োজাহাজই ফেরত পাঠায়। গত বছরের ১৭ নভেম্বর ফ্লাই গ্লোবাল থেকে ইজারায় আনা সর্বশেষ উড়োজাহাজটিও ঢাকা ছেড়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, ‘ফ্লাই গ্লোবাল চুক্তিমতো সেবা দেয়নি। লিজে আনা উড়োজাহাজ দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনায় প্রায়ই ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয় বিমানকে। যে কারণে উড়োজাহাজগুলো ফেরত পাঠানো হয়েছে।’

আগামীতে ফ্লাই গ্লোবাল থেকে উড়োজাহাজ লিজে আনবেন কিনা-এমন প্রশ্রের জবাবে মোসাদ্দিক আাহমেদ বলেন, ‘এ বিষয়ে বিমান পরিচালনা পর্ষদ সিদ্ধান্ত নেবে।’

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বিমানের বহরে উড়োজাহাজ রয়েছে ১৩টি। এর মধ্যে চারটি বোয়িং-৭৭৭-৩০০ ইআর ও দুটি বোয়িং-৭৮৭ ‘ড্রিমলাইনার’ উড়োজাহাজ। এ ছাড়া রয়েছে চারটি বোয়িং-৭৩৭-৮০০ ও তিনটি ড্যাশ-৮-কিউ-৪০০ উড়োজাহাজ। বহরের এ ১৩টি উড়োজাহাজের মধ্যে পাঁচটি আনা হয়েছে লিজে।

plane-20190311205753.jpg

সন্তানকে নিয়ে সৌদি আরব থেকে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে যাওয়ার জন্য বিমানে ওঠেন মা। কিন্তু বিমান ছাড়ার পর মাঝ আকাশে গিয়ে সন্তানকে আর খুঁজে পাচ্ছিলেন না। বিমানের কেবিন ক্রুকে গিয়ে এ কথা বলার পর বিমানটি জরুরি অবতরণ করে পুনরায় বিমানবন্দরে ফিরে আসে।

ঘটনাটি ঘটে সৌদি আরবের জেদ্দা শহরে অবস্থিত বাদশাহ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের একটি বিমান মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার পর এমন ঘটনা ঘটলে জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হন পাইলট।

সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যমগুলোতে জানানো হয়েছে, সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের বিমানটি ছেড়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর এক যাত্রী কেবিন ক্রুকে বলেন, তিনি ভুলে তার সন্তানকে জেদ্দার বাদশাহ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের টার্মিনালে ফেলে এসেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, বিমান জরুরি অবতরণের জন্য পাইলট এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের অপারেটরকে অনুরোধ করছেন। পাইলটের কাছ থেকে অনুরোধ পাওয়ার পর অপারেটর মনে করেন বিমানটি হয়তো কোনো বিপদে পড়েছে। তাই তিনি চিৎকার করে অন্য সহকর্মীদের বিষয়টি জানান দেন।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, পাইলট এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের অপারেটরকে বলছেন, ‘আল্লাহ আমাদের সাথে আছে। আমরা কি ফিরে যেতে পারি?’ অপারেটর যখন পাইলটের কাছে জরুরি অবতরণের কারণ জানতে চান তখন তিনি বলেন, ‘একজন যাত্রী তার সন্তানকে টার্মিনালে রেখে এসেছেন। তিনি বিমানটি অবতরণের অনুরোধ করছেন আমাদের।’

পাইলটের কাছে এমন কথা শোনার পর অপারেটর বলেন, ‘আচ্ছা, ফিরে আসেন। আমাদের কাছে এটা একেবারে নতুন ঘটনা।’ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবাই ওই পাইলটের মহানুভবতার প্রশংসা করছেন। তাছাড়া উড্ডয়নের অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে বিমানবন্দরের ফিরে আসার ঘটনাটিকে জরুরি বলে অভিহিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

biman-parlement-20190207195429.jpg

গত অর্থবছরে বিমানে ২০১ দশমিক ৪৭ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে চট্টগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জনান।

মন্ত্রী বলেন, গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের আয় ছিল চার হাজার ৯৩১ দশমিক ৬৪ কোটি টাকা। ব্যয় ছিল পাঁচ হাজার ১৩৩ দশমিক ১১ কোটি টাকা। গত বছর বিমানে লোকসানের পরিমাণ ২০১ দশমিক ৪৭ কোটি টাকা।

নওগাঁ-৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইসরাফিল আলমের অপর এক প্রশ্নের জবাবে- অভ্যন্তরীণ রুটে বিমানে ভাড়া নির্ধারণে কোনো নীতিমালা নেই বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ভাড়া ও ভাড়া সংক্রান্ত আইনগত নীতিমালা নেই। এয়ারলাইন্সগুলো তাদের উড়োজাহাজের আধুনিকতা, সুযোগ-সুবিধা, অপারেটিং কস্ট, ওভারহেড কস্ট, ফুয়েল কস্ট, মেইনটেনেন্স কস্ট অ্যান্ড এস্টাবলিশমেন্ট কস্ট বিবেচনা করে আইএটিএ ট্রাফিক কনফারেন্স অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারণ করে থাকে। আইএটিএ’র এন্টি ট্রাস্ট নীতিমালা অনুযায়ী কোনো এয়ারলাইন্স ভাড়া, ট্যাক্স ও যাত্রী সংখ্যা সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদান করতে পারে না।

তিনি আরও জানান, বিশ্বের অন্যান্য দেশেও এ নিয়মে চলে। ফলে ভাড়া নিধারণের কোনো নীতিমালা আপাতত নেই।

পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফের অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পর্যাপ্ত যাত্রী না থাকায় ঈশ্বরদী বিমানবন্দরে ২০১৫ সালে মে মাসের ৩০ তারিখ থেকে বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। উক্ত বিমানবন্দরের অধিগ্রহণকৃত মোট ৪৩৬ দশমিক ৬৫ একর জমির মধ্যে ২৯০ দশমিক ৭৪ একর জমি মিলিটারি ফার্ম ব্যবহার করছে। তাদের ব্যবহৃত জমি বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলরাচল কর্তৃপক্ষের অনুকূলে হস্তান্তরের পর বিমানবন্দরটি সংস্কার ও উন্নয়ন করে পুনরায় চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

জমি প্রাপ্তিসহ অন্যান্য উন্নয়ন ও সংস্কারমূলক কাজ সম্পাদনপূর্বক বিমানবন্দরটি চলতি অর্থবছরে পুনরায় চালু করা সম্ভব নয় বলেও জানান মন্ত্রী।

aircrash.jpg

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে একটি ভবনের ওপর বিমান ভেঙে পড়ার ঘটনা ঘটেছে।

রোববারের ওই দুর্ঘটনায় এক পাইলট এবং আরও চারজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন কর্মকর্তারা।

দুর্ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৭০ জনের বেশি উদ্ধারকর্মী কাজ করছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ইয়োরবা লিনডাতে বিধ্বস্ত হওয়ার আগে বিমানটিতে আগুন ধরে যায়।

সংবাদমাধ্যমে অরেঞ্জ কাউন্টির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এ ঘটনায় দুইতলা ভবনের দুই নারী এবং দুই পুরুষ নিহত হয়েছেন। এছাড়াও দুর্ঘটনায় দগ্ধ হওয়ায় দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, দুই ইঞ্জিনবিশিষ্ট ছোট একটি আকাশযান ছিল এটি।

বিমানটি শহর থেকে ২০ মাইল দক্ষিণ-পূর্বের স্থানীয় একটি বিমানবন্দর থেকে যাত্রা শুরু করেছিল।

দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিচয় এখনও প্রকাশ করা হয়নি এবং কী কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে অরেঞ্জ কাউন্টির কর্মকর্তারা।

france-20190127201108.jpg

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিস থেকে তিউনিশিয়াগামী একটি বিমানে এক যাত্রী আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করায় বিমানের যাত্রাপথ পরিবর্তন করে অন্যত্র অবতরণ করা হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে জাননো হয়েছে, ওই ব্যক্তিকে বিমানে নামাজ পড়তে না দেয়ায় সে ক্রু সদস্যদের ওপর চড়াও হলে এমনটা করতে বাধ্য হন পাইলট।

নেদারল্যান্ডভিত্তিক বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা ট্রান্সাভিয়ার একটি বিমানে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সূত্রপাত নাকি নামাজ পড়াকে কেন্দ্র করে। ওই যাত্রী বিমানে নামাজ পড়ার জন্য জায়গা চান। কিন্তু বিমানের ক্রু সদস্যরা তাকে জায়গা করে না দিলে তিনি রাগারাগি শুরু করেন। পড়ে বিমানের যাত্রাপথ পরিবর্তন করা হয়।

ডেইলি মেইলের প্রতিবদনে জানানো হয়েছে, ওই যাত্রীর বয়স ৩০ বছর। তিনি নাকি বিমান চলাকালীন ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্টদের ওপর চড়াও হন। কেননা তারা ওই ব্যক্তিকে ককপিটে নামাজ পড়ার অনুমতি দেননি। পড়ে তিনি ক্ষীপ্ত হয়ে গেলে নিক কটে ডি আজুরে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় বিমানটি অবতরণ করা হয়।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, বিমানের মধ্যে এক যাত্রীর সঙ্গে ক্রু সদস্যদের ধ্বস্তাধ্বস্তি হচ্ছে। তারা সবাই মিলে ওই যাত্রীকে জোরপূর্বক এক জায়গায় আটক করে নিয়্ন্ত্রণে নিয়ে আসার চেষ্টা করা হচ্ছে। এরই এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তি আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করে নিজেকে ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন। পরে অবশ্য তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিমানের ভেতর চিৎকার করতে থাকা ওই যাত্রী বলেন, ‘আমাকে বলো যে আমি কি করেছি। আমি কি করেছি? তোমরা আমাকে কষ্ট দিচ্ছ। এটা তোমরা কেন করছো। আল্লাহু আকবর।’ প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, তিনি নাকি বলেছেন যে তিনিও অন্যান্য যাত্রীদের মতো তিউনিশিয়ার নাগরিক। তাকে সবার সাহায্য করা উচিত। বর্তমানে তাকে মানসিক বিশেষজ্ঞের কাছে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

biman.jpg

মিশর থেকে ভাড়া করা নষ্ট উড়োজাহাজ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিকল অবস্থায় পড়ে থাকা দুই উড়োজাহাজের জন্য বিমানের প্রতিমাসে গচ্চা যাচ্ছে ১০ কোটি টাকা। ফলে ভাড়া করা উড়োজাহাজ দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনার বদলে বিমানের জন্য পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে।
এ নিয়ে রোববার বিমানের বলাকা ভবনে প্রথম পরিদর্শনে এসে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মন্ত্রণালয়ের নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালে প্রায় ৫০ কোটি টাকা অগ্রিম দিয়ে মিসর থেকে দুটি বোয়িং ৭৭৭-২০০ ইআর উড়োজাহাজ ভাড়ায় আনে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিমান বহরে যোগ হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই এয়ারক্র্যাফটের ইঞ্চিন নষ্ট হয়ে যায়।

দুই দফায় নতুন ইঞ্জিন আনলে কিছুদিন পরপর ক্রুটি দেখা দেয়। যার কারণে পরবর্তীতে ফেরত মিশরের পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় বিমান। কিন্তু ইজিপ্ট এয়ারের সাথে চুক্তি অনুযায়ী সচল করে ফেরত পাঠাতে হবে তাদেরকে।

মেরামতের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ না পাওয়ার অজুহাতে গেল দীর্ঘ সময় ধরে ভিয়াতনামে পড়ে আছে বিমানের ভাড়া করা উড়োজাহাজ দুটি। এরফলে প্রতিমাসে দুটি এয়ারক্রাফট বাবদ ১০ কোটি টাকা করে ভাড়া গুনছে বিমান।

জানা গেছে, চুক্তি অনুযায়ী ৫ বছরের জন্য এ দু’টি উড়োজাহাজ লিজ নেয়া হয়। চলতি বছরের শেষের দিকে লিজের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পরে প্রথম বারের মতো বিমানের কর্মকর্তাদের সাথে সৌজন্য সক্ষাতে আসেন মো. মাহবুব আলী।

বিমানের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকে মিশর থেকে ভাড়া করা উড়োজাহাজের বিষয় নিয়ে গাফিলতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এএম মোসাদ্দিক আহমেদের কাছে নষ্ট উড়োজাহাজের বিষয় নিয়ে জানতে চান।

প্রতিমন্ত্রী চুক্তির সময় নষ্ট হলে ক্ষতিপূরণের ব্যাপারে আরও সতর্ক সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার ছিল জানান।

তিনি বলেন, মিশরতো প্রতিমাসে টাকা পাচ্ছে, আমাদেরকে এ বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া দরকার ছিল।

এ সময় অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হকও ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ‘নষ্ট এয়ারক্রাফট দুটি ভিয়াতনামে পড়ে আছে। সেখানে আসলে কি ঘটছে, তারা যেটা বলছে (মেরামতের নামে) আমরা সেটা বিশ্বাস করছি। যখন এই বিষয়টি নিয়ে এতো জটিলতা হচ্ছে তখন মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে আমি জানলাম না কেন? তাদের সাথে দরকার হলে আমরা কথা বলতাম। বিষয়টা নিয়ে এত গোপনতো আপনারাই (বিমান কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য)করছেন।’

তবে বিমানের এমডি মোসাদ্দিক আহমেদ খুব দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন প্রতিমন্ত্রী।

বৈঠক শেষে বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘চুক্তিতে ছিল বিমানগুলো যেভাবে আনা হয়েছে। সেইভাবে ফেরত দিতে হবে। বর্তমানে অকজে অবস্থায় থাকা বিমান মেরামত করতে গেল যে পার্টাসগুলো দরকার সেগুলো এই মুহুর্তে নেই। এখন সেই উড়োজাহাজগুলো ভিয়াতনামে আছে। সেগুলো মেরামতের চেষ্টা করা হবে অতিদ্রুত, তা না হলে ক্ষতিপূরণ দিয়ে হলেও মিশরের কাছে পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। কারণ এভাবে লোকসান দিনের পর দিন টানা সম্ভব না।’

এ সময় ভবিষ্যতে উড়োজাহাজ লিজ নেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়ারও পরমর্শ দেন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।