ভর্তি পরীক্ষা Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

admission-test.jpg

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের হয়রানি কমাতে ৩৪টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় এগিয়ে এসেছে। তবে এর আওতাভুক্ত না হয়ে ভিন্ন পথে রয়েছে দেশের বড় চারটি বিশ্ববিদ্যালয়।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) জানিয়েছে, কাউকে জোর করে কিছু চাপিয়ে দেয়া হবে না। এ কার্যক্রমের আওতায় আসতে সকলের জন্য রাস্তা খোলা রয়েছে।

জানা গেছে, ২০২১ শিক্ষাবর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য এবার গুচ্ছ পদ্ধতিতে ৮টি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ১৯টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় যুক্ত হয়েছে।

গত মার্চেই চারটির মধ্যে তিনটি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় একসঙ্গে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার ব্যাপারে একমত হয়েছে। এর সঙ্গে সম্প্রতি বুয়েট যুক্ত হওয়ার ইচ্ছা ইউজিসিতে লিখিতভাবে জানিয়েছে।

এ ছাড়া বিশেষায়িত বাংলাদেশ টেক্সটাইল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস ইউনিভার্সিটিও গুচ্ছবদ্ধ হয়ে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে।

কিন্তু এখনও ভিন্নপথেই হাঁটছে দেশের প্রাচীন চার বিশ্ববিদ্যালয়। বর্তমানে শতাধিক মেডিকেল কলেজে একটিমাত্র ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। এতে শিক্ষার্থীদের এক কলেজ থেকে আরেকটিতে দৌড়াতে হয় না।

ফলে বাড়তি অর্থ ব্যয় হচ্ছে না। ভোগান্তি আর হয়রানি থেকেও মুক্ত ভর্তিচ্ছুরা। এভাবে ভোগান্তিমুক্ত করতে সরকার প্রায় একযুগ ধরে গুচ্ছবদ্ধ বা অভিন্ন ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির উদ্যোগ নেয়।

এর অংশ হিসেবে গত বছর ৭টি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় একটিমাত্র পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করে। এ অবস্থায় চলতি বছর সরকার ফের একইভাবে গুচ্ছবদ্ধ ভর্তি পরীক্ষার উদ্যোগ নেয়। প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ভিন্নমত থাকলেও বেশিরভাগই এগিয়ে এসেছে।

কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এখনও আলাদাভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে অনড়। শুধু তাই নয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্যও প্রকাশ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর জানান, ‘দেশে ৪৯টি সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় আছে।

এসবের মধ্যে কয়েকটির কার্যক্রম শুরু হয়নি আর কয়েকটি স্নাতক পর্যায়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করে না। এ ছাড়া কলেজ পর্যায়ে পাঠদান এবং দূরশিক্ষণ পরিচালনা করছে দুটি।

সেই হিসেবে মোট ৩৯টি ক্যাম্পাসভিত্তিক পাঠদান করে যেগুলো স্নাতকে শিক্ষার্থী ভর্তি করে। এর মধ্যে ৩৪টিই গুচ্ছবদ্ধ ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার পক্ষে একমত পোষণ করেছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছবদ্ধ ভর্তি পরীক্ষার ব্যাপারে গত ১ ডিসেম্বর ইউজিসির মধ্যস্থতায় একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেদিনই মূলত ১৯ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গুচ্ছে পরীক্ষা নেয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসে।

এই গুচ্ছে নাম দেয়া হয়েছে জিএসটি (জেনারেল, সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি) বিশ্ববিদ্যালয়।

DU77.jpg

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ২০০ নম্বরের পরিবর্তে ১০০ নম্বরে হবে।

এবার ভর্তি পরীক্ষার মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল থেকে ২০ এবং মূল পরীক্ষার লিখিত ও বহুনির্বাচনী উভয় অংশে ৪০ নম্বর করে মোট ৮০ নম্বর থাকবে।

ভর্তি পরীক্ষার পাস নম্বর হবে ন্যূনতম ৪০ শতাংশ। অর্থাৎ ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় একজন পরীক্ষার্থীর পাস করতে লাগবে ৩২ নম্বর।

এর আগে গত বছর ২০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষার ১২০ নম্বর ছিল বর্ণনামূলক ও বহু নির্বাচনীর অংশ আর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএ ছিল ৮০ নম্বর।

এরমধ্যে ৫০ নম্বর ছিল এইচএসসি পরীক্ষার জিপিএ এবং ৩৫ নম্বর ছিল এসএসসি পরীক্ষার জিপিএ। তখন ভর্তি পরীক্ষার ন্যূনতম পাস নম্বর ছিল ৪৮।

গতকাল সোমবার এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ঢাবির ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা ক্যাম্পাস ছাড়াও বিভাগীয় শহরগুলোতে অনুষ্ঠিত হবে।

মোট ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্যে ৪০ নম্বরের বহু নির্বাচনী এবং ৪০ নম্বরের বর্ণনামূলকসহ মোট ৮০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর থাকবে ২০ (১০+১০) নম্বর।

exam_pic.jpg

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে এমবিএ (ইভিনিং) কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করার পর সমালোচনার মুখে তা স্থগিত করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ।

শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত রাজধানীর আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীদের মোবাইলে এসএমএস দিয়ে এবং পরীক্ষা কেন্দ্রের গেটে নোটিস সাঁটিয়ে পরীক্ষা স্থগিত করার বিষয়টি জানানো হয়।

করোনা মহামারীর কারণে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। মার্চ থেকে আবাসিক হলসহ ঢাবিতেও বন্ধ ক্লাস-পরীক্ষা।

এর আগে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবদুল মঈন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০ নভেম্বর (শুক্রবার) বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের এমবিএ (ইভিনিং) প্রোগ্রামের (৪৫তম ব্যাচ) ভর্তি পরীক্ষা আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, আজিমপুর, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা গ্রহণের সময় সকাল ১১টা-দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

করোনার মধ্যে কেন ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে এ বিষয়ে জানতে গতকাল বৃহস্পতিবার অধ্যাপক আবদুল মঈনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিয়ে সাড়া পাওয়া যায়নি।

ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে অবগত নন জানিয়ে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান গতকাল দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়টি আমি জানি না। ডিন সাহেবের সঙ্গে কথা বলে জানার চেষ্টা করছি। তবে এ সময় তো ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার কথা নয়।’

online8.jpg

অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের সক্ষমতা যাচাই করতে পাচঁ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত ইউজিসির নিয়মিত সভায় এ কমিটি গঠন করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইউজিসি পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক ড. ফেরদৌস জামান।

তিনি বলেন, ‘আজকের বৈঠক মূলত উপাচার্যদের সংগঠন ‘উপাচার্য পরিষদ’র চিঠির আলোকে হয়েছে।

আমাদের কাছে তারা চিঠি দিয়ে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে জানতে চেয়েছিলেন। যেহেতু আমরা এই বিষয়ে অভিজ্ঞ নই।

তাই এই বিষয়ে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা এই বিষয়ে কাজ করবেন।’

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ইউজিসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহিদুল্লাহ।

এর আগে বিকেল সাড়ে তিনটা থেকে কমিশনে এই বৈঠক শুরু হয়।

এবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি পরীক্ষা অনলাইনে হবে, নাকি সরাসরি হবে, তা নিয়ে সেখানে নিজেরাই আলোচনা করেন।

পরে উপাচার্যদের সংগঠন ‘বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের’ সঙ্গে বসে সেটি চূড়ান্ত করা হবে বলে কমিশন সূত্রে জানা যায়।

এছাড়া সব বিশ্ববিদ্যালয়কে সঙ্গে নিয়ে সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগের বিষয়টিও ওই বৈঠকে আলোচনা করা হয়।

medical-admission.jpg

দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব না কমলেও আগের মতো সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা নেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের ডিন মোহাম্মদ নাসিম হাসান।

রোববার (২৫ অক্টোবর) বিকেলে ডিনস কমিটির সভায় স্নাতক প্রথম বর্ষে (২০২০-২১) ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, গতবার ছিল ১২০ নম্বরের পরীক্ষা। যার ১০০ নম্বর নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন, আর ২০ নম্বর যোগ হয় এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ থেকে। তবে এবার ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ডিন নাসিম হাসান বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাব না কমলেও ভর্তি পরীক্ষা হবে। শিক্ষার্থীরা সরাসরি এসে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন।

এবারও ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নে পরীক্ষা হবে।

অবশ্য বাকি ২০ নম্বর কীভাবে যুক্ত হবে, পরীক্ষা কত দিনে হবে, কোথায় হবে—এসব বিষয়ে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এর আগে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ও সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার কথা জানিয়েছিল।

kubi.jpg

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এসময় জালিয়াতির অভিযোগে দুই শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়সহ ১৫টি কেন্দ্রে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাযায়, ‘বি’ ইউনিটের নির্ধারিত সবগুলো কেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবে ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদ কেন্দ্রে ৫০১ নং কক্ষে প্রক্সি পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে দায়িত্বরত শিক্ষক মিনহাজ নামে একজনকে আটক করে। একই অভিযোগে গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল কেন্দ্র থেকে মো. মিজানুর রহমান নামে আরেকজনকে আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এই বিষয়ে প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দীন বলেন, দুইজন শিক্ষার্থীর উত্তরপত্রে ঘষামাজার অভিযোগে তাদেরকে আটক করা হয়েছে, তাদের পুলিশে সোর্পদের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

এ শিক্ষাবর্ষের ‘বি’ ইউনিটে (কলা, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদ) আটটি বিভাগের অধিনে ৪৫০ টি আসনের বিপরীতে ২৪ হাজার ২৩২ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছে। ‘বি’ ইউনিটে একটি আসনের বিপরীতে ৫৪ জন ভর্তিচ্ছু ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে।

উল্লেখ্য, আগামী ১০ নভেম্বর (শনিবার) সকাল ১০টায় ‘সি’ ইউনিটের পরীক্ষা এবং বিকাল ৩টা থেকে ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।