মাশরাফি Archives - 24/7 Latest bangla news | Latest world news | Sports news photo video live

mashrafee-20181211220717.jpg

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শিরোপার দাবিদার দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২১ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এ জয়ে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজারই ‘বিচক্ষণতা ও দূরদর্শিতা’ দেখছেন ভারতের ক্রীড়া বিশ্লেষক ও ভাষ্যকার আকাশ চোপড়া। তার মতে, মাশরাফি টপ ক্লাস অধিনায়ক।

রবিবার (২ জুন) ওভালের খেলায় বাংলাদেশের ৩৩০ রানের জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা যখন ৩৩১ রানের টার্গেটে ব্যাট করছিল, তখন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের আটকাতে মাশরাফির কিছু বিচক্ষণ ও ফলপ্রসূ সিদ্ধান্তে মুগ্ধ হয়ে আকাশ চোপড়া এই মন্তব্য করেন।

আকাশ চোপড়া তার টুইটার অ্যাকাউন্টে বলেন, ‘মাশরাফি টপ ক্লাস ক্যাপ্টেন। এশিয়া থেকে বের হওয়া সেরাদের একজন।’

এর আগে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়েরও প্রশংসা করে একাধিক টুইট করেন আকাশ চোপড়া।

mash56f.jpg

ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে উইন্ডিজের বিপক্ষে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সোমবার (১৩ মে) ডাবলিনে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে ৪টায়।

ক্যারিবিয়ানদের এই ম্যাচে পরাজিত করতে পারলে জয়ের দিক থেকে নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টোরিকে ছাড়িয়ে যাবেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। নড়াইল এক্সপ্রেস। নাম বসাবেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়ের পাশে।

অবসর নেয়ার আগে মোট ৮২টি ওয়ানডেতে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ভেট্টোরি। তার অধীনে কিউইরা জয় পেয়েছিল ৪১টি ম্যাচে এবং পরাজিত হয়েছিল ৩৩ ম্যাচে। ফলে তার জয়ের পরিমাণ ৫৫.৩৩ শতাংশ।

অপরদিকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশকে ৭৪টি ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। যেখানে তিনি সর্বমোট জয় পেয়েছেন ভেট্টোরির সমান ৪১টি ম্যাচে। পরাজয়ের সংখ্যা ৩১টি এবং জয়ের পরিমাণ বর্তমানে ৫৬.৯৪ শতাংশ।

২০০০ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে ৭৯টি ওয়ানডেতে ৪২টি জয় পেয়েছিল ভারত। আর পরাজিত হয়েছিল ৩৩টিতে। তার জয়ের পরিমাণ ৫৬.০০ শতাংশ।

ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ সংখ্যক ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার ও সর্বোচ্চ সংখ্যক ম্যাচে দলকে জয় এনে দেওয়ার দুটো রেকর্ডই অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিটি পন্টিংয়ের দখলে। তার নেতৃত্বে ২৩০টি ম্যাচ খেলেছে অস্ট্রেলিয়া। এর মধ্যে জয় এসেছে ১৬৫টি ম্যাচে; হার ৫১টি ম্যাচে।

ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেওয়ায় দ্বিতীয়স্থানে আছেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক স্টিফেন ফ্লেমিং (২১৮ ম্যাচ)। তৃতীয়স্থানে আছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি (২০০ ম্যাচ)। অবশ্য জয়ের সংখ্যায় দ্বিতীয়স্থানে আছেন ধোনি (১১০ ম্যাচ); তৃতীয়স্থানে ফ্লেমিং (৯৮ ম্যাচ)।

mash-20190506220231.jpg

ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরুর আগে প্রস্তুতি ম্যাচ হেরে বাংলাদেশের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি টাইগারদের। তবে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্বরূপেই ফিরলো মাশরাফির দল। দাপটের সঙ্গেই হারালো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। তামিম-সৌম্য-সাকিবের ব্যাটিংয়ের নৈপুণ্যে ক্যারিবীয়দের ৮ উইকেটে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ।

এ ম্যাচে তামিম ইকবাল ৮০, সৌম্য সরকার ৭৩, সাকিব আল হাসান ৭৩ এবং মুশফিকুর রহীমরা ৩২ রান ও বল হাতে মাশরাফি ১০ ওভারে ৪৯ রান খরচে ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন।

এমন পারফরম্যান্সেও ঠিক সন্তুষ্ট হতে রাজি নন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বরং মনোযোগ দিতে চান পরের ম্যাচের দিকে। যাতে করে ফাইনালে খেলার পথ সহজ হয় তার দলের।

ম্যাচপরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাশরাফির বলেন, ফাইনালে যেতে হলে আমাদের আরও ভালো এবং শক্তভাবে ক্রিকেট খেলতে হবে। তাই সামনের ম্যাচগুলোর দিকে চেয়ে আছি।

টাইগার অধিনায়ক আরও বলেন, যেকোনো টুর্নামেন্টের শুরুটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। প্রস্তুতি ম্যাচে হারের পর ছেলেরা আজকের শুরুটা অনেক ভালো করেছে। পরের ম্যাচের জন্য ভালো অবস্থানে থাকবে ছেলেরা।

mash-20190506220231.jpg

বিদেশে খেলতে গেলে উইকেট সবসময়ই বড় একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে। সারাবছর মিরপুর বা চট্টগ্রামের স্লো-লো ট্র্যাকে খেলে, বাইরে গিয়ে মুখোমুখি হতে হয় ফাস্ট এবং বাউন্সি উইকেটের। যে বাঁধা পেরুনো বেশ কঠিনই হয়ে পড়ে টাইগারদের জন্য।

আর এবার আয়ারল্যান্ড সফরে উইকেটের এ বাঁধার সঙ্গে যোগ হয়েছে হিম বাতাস ও কনকনে ঠান্ডা। দেশে অনুশীলন ক্যাম্পে মুশফিক-তামিমরা অতিষ্ঠ হয়েছেন তীব্র গরমে, অথচ আয়ারল্যান্ডে গিয়ে গায়ে দিয়ে রাখতে হচ্ছে ভারি জ্যাকেট, গ্লাভস ও কানটুপি। ফলে উইকেটের সঙ্গে ঠান্ডার বিরুদ্ধেও লড়াইয়ে নামতে হচ্ছে বাংলাদেশ দলকে।

তবে এ ঠান্ডাকে অজুহাত হিসেবে মানতে রাজি নন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি জানেন এ ঠান্ডার সঙ্গে মানিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। তাই এটিকে একপ্রকার চ্যালেঞ্জ হিসেবে মেনে নিয়েই নিজেদের কাজ সঠিকভাবে করার পক্ষেই মত দিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক।

আজ (সোমবার) ম্যাচের আগেরদিন সংবাদমাধ্যমে মাশরাফি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় না এই ঠাণ্ডা আমাদের এডজাস্ট হবে। এখানে যারা থাকে তারাও স্ট্রাগল করে ঠান্ডার সঙ্গে। এর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই আসলে। ফলে মানসিকভাবে শক্ত হতে হবে। দিনশেষে খেলতে নেমে ঠান্ডা কেমন, এটা কোন অজুহাত হতে পারে না।’

এদিকে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দল তথা ওলভসের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ৮৮ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ দল। অন্যদিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়ে ১৯৬ রানের বড় ব্যবধানে জয় দিয়েই ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু করেছে ক্যারিবীয়রা।

ফলে মঙ্গলবারের লড়াইটি যে সহজ হবে না তা মেনে নিয়েছেন মাশরাফি। তিনি বারবার জোর দিচ্ছেন নিজেদের কাজ সঠিকভাবে করার দিকেই। অধিনায়কের ভাষ্যে, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিছু খেলোয়াড় আছে যারা, আমরা জানি একা হাতে ম্যাচ শেষ করতে পারে। শাই হোপের বিপক্ষে দেশের মাঠেও আমাদের ভুগতে হয়েছে, ড্যারেন ব্রাভো আছে। আরও কিছু খেলোয়াড় আছে ভালো। ওদের পেস আক্রমণও ভালো। কাল (রোববার) ওরা ভাল একটা ম্যাচ খেলেছে। আমরাও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। কাল (মঙ্গলবার) আমাদের কাজগুলো ঠিকভাবে প্রয়োগ করছি কি না সেটা দেখাতে হবে।’

drmurad.jpg

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনা। সোশ্যাল মিডিয়ার বদৌলতে মাশরাফির ঝটিকা সফরের ঘটনাটি ভাইরাল হয়ে যায়।

মর্তুজাকে সমালোচনা করে অশালীন ভাষায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার জন্য, এবার চিকিৎসকদের কঠোর ভাষায় সমালোচনা করলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে এই বিষয়ে কথা বলেন তিনি। এর আগে দায়িত্বে অবহেলার কারণে নড়াইল সদর হাসপাতালের চিকিৎসকদের তিরস্কার করায় দেশব্যাপী চিকিৎসকদের সমালোচনার মুখে পড়েন মাশরাফি।

এ সময় ডা. মুরাদ হাসান বলেন, ‘শ্রদ্ধা-সম্মান আপনি কোনো দিন চেয়ে নিতে পারবেন না। এটা স্বয়ং আল্লাহতালা দেন। ভুলেও ভাববেন না একজন সম্মানিত মানুষকে অসম্মানিত করে আপনি সম্মান পাবেন। একটা ঘটনা ঘটলে আপনারা এইভাবে অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করেন কেনো। একজন মাশরাফি সৃষ্টি করতে পারবেন! জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন সে। হতে পারবেন একজন জাতীয় ডাক্তার! হয়ে প্রমাণ করেন যে আপনি জাতীয় ডাক্তার তাই মাশরাফিকে নিয়ে কথা বলার যোগ্যতা রাখেন।’

mash443.jpg

নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফি বিন মর্তুজা নড়াইল সদর হাসপাতাল আকস্মিক পরিদর্শনের সময় অনুপস্থিত হাসপাতালের চার চিকিৎসকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিনা অনুমতিতে হাসপাতালে অনুপস্থিতির কারণ দর্শানোর নোটিশের পাশাপাশি দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

রোববার মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এই চিকিৎসকদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়ে সাত কর্মদিবসের মধ্যে মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যোগ দিতে বলা হয়েছে।

ওএসডি হওয়া চিকিৎসকার হলেন- নড়াইল সদর হাসপাতালের সার্জারির সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. আখতার হোসেন, কার্ডিওলজির জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. শওকত আলী ও ডা. মো. রবিউল আলম এবং মেডিকেল অফিসার ডা. এ এসএম সায়েম।

সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুস শাকুর অনুপস্থিত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ছেন।

ওয়ানডে দলের অধিনায়ক নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফি বিন মর্তুজা বৃহস্পতিবার বিকেলে আকস্মিকভাবে সদর হাসপাতাল পরিদর্শনে যান। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসকদের মধ্যে চারজন অনুপস্থিত ছিলেন। হাজিরা খাতাতেও তাদের স্বাক্ষর ছিল না।

mashrafe-large-20190427175247.jpg

চলতি বছর ৩৭ বছরে পা রাখবেন মাশরাফি বিন মুর্ত্জা। এই বয়সেও বাইশ গজ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই ওয়ানডে অধিনায়ক। পাশাপাশি রাজনীতিতে নাম লিখিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের টিকিটে নড়াইল-২ আসন থেকে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এমপি হয়ে বসে নেই তিনি এলাকার উন্নয়নে এক মন্ত্রণালয় থেকে আরেক মন্ত্রণালয়ে ঘুরছেন। এবার সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছেন নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত এই ক্রিকেটার।

গেল বুধবার দুপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও সুধিজনের সাথে মতবিনিময়কালে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে মাশরাফি বলেছিলেন, ‘যারা দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয় তারাও দোষে দোষী। আপনারা নিজ নিজ দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করবেন। স্বচ্ছতার সাথে কাজ করতে গিয়ে যদি কেউ হুমকি দেয় তাহলে আমাকে জানাবেন। কারও বিরুদ্ধে কোনো অনিয়ম পেলে ছাড় দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ইতিমধ্যে নড়াইলের একজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতির তথ্য আমার হাতে এসেছে। আমি একজন সরকারি কর্মকর্তার ফাইল রেডি করে আনছি। আমি নিজেই দুদকে কেচ করবো তার নামে’।

তার ধারাবাহিকতায় ২৫ এপ্রিল নড়াইল সদর আধুনিক হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। দুপুরে হাসপাতাল পরিদর্শনকালে কর্তব্যরত চিকিৎসকদের না দেখে  মাশরাফি বিন মুর্ত্জার প্রথম হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: মো: আব্দুস শাকুর এবং পরে সিনিয়র সাজারী ডা: আকরাম হোসেনকে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে কথা বলেন।

মাশরাফি বলে দিয়েছেন, ‘আমার নড়াইলে চাকরী করতে হলে সরকারি নিয়ম-নীতি মেনে চাকরি করবেন, তা না হলে চাকরী ছেড়ে চলে যান, আমি আপনাকে চলে যেতে হেল্প করবো। অযাথা আমার এলাকা বা দেশের মানুষকে সেবা প্রদানে হয়রানি করার কোন অধিকার আপনার নেই’।

হাসপাতালে কোন দালাল ডুকতে পারবে না, হসপিটাল ক্যাম্পাসে বহিরাগত কোন প্রাইভেট এ্যাম্বুলেন্স অবস্থান করতে পারবে না। এর কোনটা ব্যতয় ঘটলে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। হাসপাতালে যতটুকু রিসোর্স রয়েছে তার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে এবং প্রতিনিয়ত জেলা প্রশাসক ও এসপিকে অবহিত করতে নির্দেশ দেন তিনি।

রাত ৯টায় নড়াইল হাসপাতালের স্টোর রুম পরিদর্শন করেন এবং হাসপাতালের কর্মকর্তাদের মতবিনিয় করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার), সিভিল সার্জন ডা: আসাদ-উজ-জামান মুন্সী, হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: মো: আব্দুস শাকুর, আরএমও ডা: মশিরউর রহমান বাবু, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, চিকিসৎক, নার্স উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন গত বুধবার এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আপনারা রাজনীতিটা ভাল করে দেখুন আমি নড়াইলের উন্নয়নটা দেখি। এখানে তার ইঙ্গিত খুবই সুস্পষ্ট যে, যারা এলাকার উন্নয়ন নিয়ে ভাবেন না তাদের রাজনীতিতে কতটুকু প্রয়োজন। সম্ভবত এ কথা দিয়েই রাজনীতি নিয়ে যারা ভাবেন তাদের মাথায় উন্নয়ন মানে কার পকেটে কতটা আসবে। এবার কিন্তু নড়াইল-২ আসনে সে রাজনীতি হতে দেবেন  মাশরাফি বিন মুর্ত্জা। যিনি দেশের ও এলাকার উন্নয়ন নিয়ে ভাবেন এবং স্বইচ্ছায় দায়িত্বভার গ্রহণ করেন তারপক্ষেই রাজনীতি করা সাজে। এ ভাবনা বোধ করি চলমান রাজনৈতিক ধারার নেতাকর্মীদের মাথায় ডুকলে দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি তরান্বিত হবে এবং সে উন্নয়ন টেকসইও হবে।

নড়াইল-২ আসনের এমপি  মাশরাফি বিন মুর্ত্জা কাজ করিয়ে সারা দেশকে বুঝিয়ে দিবেন রাজনীতি ও উন্নয়নের সম্পর্ক কি হওয়া উচিত? এ বিশ্বাস বাস্তবায়নের জন্য সকল অশুভশক্তির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধারাসহ সমাজ সচেতন মানুষগুলোকে এগিয়ে আসতে হবে, সহযোগিতা করতে হবে  মাশরাফি বিন মুর্ত্জার সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডকে। যেখানে দুর্নীতি, দখলবাজ, উন্নয়ন কর্মকান্ডে বাঁধাসৃষ্টিকারি দেখবেন সেখানে মুক্তিযোদ্ধাসহ সমাজ সচেতন মানুষগুলোকে রুখে দাঁড়াতে হবে। হোক সে দলীয় নেতাকর্মী, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি বা মহল তাদের রুখতে আপনাদের পাশে নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা থাকবেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

mash-20190425151806.jpg

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু কী?- তা জানতে শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দিলেন জাতীয় ক্রিকেট ওয়ানডে দলের অধিনায়ক সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা। নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ পরামর্শ দেন মাশরাফি।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিদ্যালয়ে এ কর্নারের উদ্বোধন করেন তিনি। এসময় স্কুলের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে নানান মূল্যবান পরামর্শ দেন জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক।

জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সভাপতিত্বে সহকারী কমিশনার (ভূমি) নড়াইল সদর মোঃ আজিমউদ্দিন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন সিকদার, বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ অনেকে এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের বই পড়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু কী ছিলেন, তিনি কী করেছেন সে সর্ম্পকে জানতে পারবেন, আমি বিশ্বাস করনড়াইলের প্রতিটি স্কুলে এ রকম উদ্যোগ নেয়া হবে। শিক্ষকরা এই শিক্ষা গুলি যদি স্কুল থেকে দিয়ে দেন তাহলে আমার বিশ্বাস সবাই সততার সঙ্গে বড় হবে।’

পরে সংসদ সদস্য মাশরাফি সেই স্কুলে থাকা ‘সততা ষ্টোর’ পরিদর্শন করেন। এছাড়া নিজের ছুটির মধ্যেও নড়াইল জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও সুধীজনের সাথে মতবিনিময় সভায় অংশ নেন।

mash-20190419205914.jpg

দুদিন আগেই (বুধবার) বাংলাদেশের মাত্র দ্বিতীয় বোলার হিসেবে দারুণ এক কীর্তি গড়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। আবাহনী লিমিটেডের এই পেসার লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন।

মাশরাফির এমন কীর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতে আজ (শুক্রবার) মিরপুর শেরে বাংলায় কেক নিয়ে হাজির আবাহনীর সমর্থক গোষ্ঠী। উৎসবমুখর পরিবেশে সেই কেক মাশরাফিকে কেটে খাওয়ান তার সতীর্থ, ভক্ত-সমর্থকরা।

মাশরাফির আগে বাংলাদেশের প্রথম বোলার হিসেবে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন বর্ষীয়ান স্পিনার আবদুর রাজ্জাক। মাশরাফি বিন মর্তুজাই যে এই তালিকায় দ্বিতীয় হিসেবে ঢুকবেন, সেটা অনুমিতই ছিল।

বুধবার চির প্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে মাশরাফির নামের পাশে জ্বলজ্বল করছিল ৩৯৯ উইকেট। ছিল মাত্র ১ উইকেটের অপেক্ষা। এই অপেক্ষাটি অবশ্য ছিলো আগের তিন ম্যাচেও। কারণ টানা তিন ম্যাচ উইকেটশূন্য ছিলেন মাশরাফি।

সেই অপেক্ষা ফুরোতে মাশরাফি নেন মাত্র ১৩ বল। ম্যাচে নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে মোহামেডানের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইরফান শুক্কুরকে সরাসরি বোল্ড করেই লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে নিজের ৪০০তম উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

বাংলাদেশের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেট প্রথম ৪০০ উইকেট শিকারি রাজ্জাকের এই মাইলফলক স্পর্শ করতে লেগেছিল ২৬৯ ম্যাচ। মাশরাফির লেগেছে একটু বেশি। ২৮৭তম ম্যাচে এসে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি।

mashrafe-large-20190409205959.jpg

কিছু দিন আগেও নিজের এলাকার জন্য বরাদ্দ পেতে বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে গিয়েছিলেন নড়াইল-২ আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এবার তিনি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয় ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ে গেলেন।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সৌমেন চন্দ্র বসু তার ফেসবুক আইডিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীমের সঙ্গে মাশরাফির সাক্ষাতের ছবি আপলোড করেন।

নড়াইল সদর ও লোহাগড়া উপজেলা নিয়ে নড়াইল-২ আসন গঠিত। নড়াইলের প্রায় ৭ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের দ্বারস্থ হন সাংসদ মাশরাফি।

এছাড়া নদী ভাঙন রোধে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীমের কাছে যান মাশরাফি। এ সময় এই বর্ষা মৌসুমের আগেই নদী ভাঙন রোধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানান এনামুল হক শামীম। এছাড়া ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে যে কোনো সহযোগিতার আশ্বাস দেন প্রতিমন্ত্রী।

মাশরাফির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সৌমেন চন্দ্র বসু।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, ‘মাশরাফি রাজনীতিতে এসে রাজনীতির রং বদলে দিয়েছেন। আমরা বক্তৃতায় আপনার গল্প বলি যেমন-নিউজিল্যান্ডে আপনি বলেছিলেন আমি পায়ের কথা চিন্তা করি না, আমি খেলি আমার দেশের পতাকার জন্য। আপনার মতো মানুষ রাজনীতিতে এসেছে এটা খুবই সৌভাগ্যের। নড়াইল জেলার নদী ভাঙন রোধে এখনই ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘তুমি (মাশরাফি) আমার এখানে এসেছ আমি খুব খুশি হয়েছি। তোমার এলাকার ধর্মপ্রাণ মানুষের জন্য যা যা করার প্রয়োজন, সব আমি নিজ দায়িত্বে করে দেব।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফির উদ্দেশে বলেন, ‘আপনার সকল আবেদন আমি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি।’

এ সময় মাশরাফি বলেন, ‘আমার নড়াইলের অধিকাংশ লোক নিম্ন আয়ের। তারা তাদের মৌলিক চাহিদা স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। নড়াইল সদর ও লোহাগড়া হাসপাতালে চিকিৎসকের অভাব, পরিচ্ছন্ন কর্মীর অভাব, ভালো ভবন নেই, প্রসূতি মায়েরা সেবা পাচ্ছে না, মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে অ্যাম্বুলেন্স নেই।’ এ সময় আরও বহু সমস্যার কথা শুনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

গত ২ এপ্রিল শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্যের সঙ্গে দেখা করে নড়াইলে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম এবং বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণসহ শিক্ষার বিভিন্ন দাবি নিয়ে দেখা করেন।